Maintance

ইরানে বন্ধ ইনস্টাগ্রাম, টেলিগ্রাম

প্রকাশঃ ৮:০৮ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:০৮ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : টানা চার দিনের সহিংসতায় অন্তত ১০ জন নিহত হয়েছে ইরানে। সরকার বিরোধী এই বিক্ষোভ দমনে অবশ্য সামাজিক মাধ্যম বন্ধ করার উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির কর্তৃপক্ষ।

ইনস্টাগ্রাম, টেলিগ্রামের মতো মোবাইল অ্যাপ্লিকেশনগুলোর মাধ্যমে জমায়েত হয়ে এই সহিংসতা চালানো হচ্ছে এমন অভিযোগে দেশটিতে দুটি মাধ্যমই বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে।

তবে এই নিষেধাজ্ঞা সাময়িক বলেও বলছে ইরানের সরকার।

গণমাধ্যমগুলো যখন কড়া নীতিমালার মধ্যে তখন আন্দোলনকারীরা বিস্তৃত পরিসরে এই অ্যাপগুলোর মতো সামাজিক মাধ্যম ব্যবহার করছিল, এমনটাই বলা হয় বিবিসির প্রতিবেদনে।

এ পর্যন্ত প্রায় ৪০০ লোককে গ্রেফতার করা হয়েছে। কর্তৃপক্ষ টেলিগ্রাম বা ইন্সটাগ্রামের মত সামাজিক মাধ্যম বন্ধ করে দিয়ে বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণের চেষ্টা করছে।

টেলিগ্রাম ইরানে খুব জনপ্রিয় একটি অ্যাপ। দেশটির আট কোটি জনগণের অর্ধেকেরও বেশি এই অ্যাপে সক্রিয় বলে প্রতিবেদনে জানানো হয়।

প্রতিষ্ঠানটির প্রধান নির্বাহী পাভেল দুরোভ এক টুইটে বলেন, ‘শান্তিপূর্ণ আন্দোলনের মাধ্যমগুলো’ বন্ধে ইরান সরকারের আহ্বান তার প্রতিষ্ঠান প্রত্যাখ্যান করে দেওয়ার পর এই পদক্ষেপ নিয়েছে সরকার।

তিনি বলেন, তাদের লাখ লাখ গ্রাহক রয়েছে যারা মাধ্যমটি শান্তিপূর্ণ কাজে ব্যবহার করেন। কিন্তু তারপরও ইরানের বাইর থেকে কিছু ব্যক্তির উষ্কানিমূলক পোস্টের কারণে তা বন্ধ করে দেওয়া হলো। যদিও টেলিগ্রাম কর্তৃপক্ষ সেসব পোস্ট সরানোর জন্য কাজ শুরু করছিল।

২০০৯ সালের পর দেশটিতে এটিই সবচেয়ে বড় ধরনের বিরোধীদের বিক্ষোভ বলেও বিবিসি তার প্রতিবেদনে বলছে।

বিবিসি ও রয়টার্স অবলম্বনে ইমরান হোসেন মিলন

 

*

*

Related posts/