দামি যত গ্যাজেট

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নিত্য নতুন উদ্ভাবন ও বৈচিত্র্যময় পণ্য যোগ হচ্ছে বিশ্ব প্রযুক্তি বাজারে। এ খাতকে বর্ণিল করে তুলতে উদ্যোগ ও আয়োজনে কমতি নেই ছোট বড় সব প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের। কয়েক দিন পরপরই চমক নিয়ে হাজির হচ্ছে অনেকে। এরই ধারাবাহিকতায় দামি ডিভাইস তৈরি করেও শিরোনাম হয়েছে অনেক প্রতিষ্ঠান।

প্রযুক্তি বিশ্বের সবচেয়ে দামি গ্যাজেটগুলোর সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে এ প্রতিবেদন।

ডায়মন্ডের আইফোন
সবচেয়ে বিলাসবহুল এবং ব্যয়বহুল একটি স্মার্টফোনকে আরও আকর্ষণীয় করা এটির কেসিংকে স্বর্ণ ও হীরা দিয়ে সাজিয়ে। একই সঙ্গে তা হেয় উঠেছে ব্যয়বহুল একটি স্মার্টফোন।

অ্যাপলের ফোনটির কেসিং তৈরি ২৪ ক্যারেট মানের স্বর্ণ দিয়ে। সঙ্গে রয়েছে ৭০০ আলাদা ভিভিস হীরা। এটি বিশ্বের সবচেয়ে ব্যয়বহুল এবং বিলাসবহুল একটি মোবাইল ফোন।

iphone_techshohor

ফোনটিতে রয়েছে আজীবনের ওয়ারেন্টি। গোল্ড প্লেটেড কেসিংয়ে রয়েছে হীরা দিয়ে তৈরি অ্যাপল লোগো। মাত্র দুই পিস তৈরি করা হয়েছে এ ফোনটি। এটির মূল্য ১৫ মিলিয়ান ডলার।

আইপ্যাড টু গোল্ড সংস্করণ
সবচেয়ে দামি গ্যাজেটের তালিকায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে অ্যাপলের ট্যাবলেট আইপ্যাড টু। স্বর্ণ এবং হীরা দিয়ে তৈরি ট্যাবটির একটি সংস্করণ রয়েছে যার মূল্য ৭.৮ মিলিয়ন। এতে ব্যবহার করা হয়েছে ৫৩ ফ্লোলেস ডায়মন্ড।

ipod_techshohor

আইপ্যাডটির পিছনে অ্যাপলের লোগোতে ব্যবহার করা হয়েছে ২৪ ক্যারেট মানের স্বর্ণ।

সবচেয়ে দামি স্পিকার
গান শোনার জন্য একটি স্পিকার যার দাম ৪.৭ মিলিয়ন ডলার। কি আছে এই স্পিকারে? অন্য সাধারণ স্পিকারের মতো এটি দিয়েও গান শোনা যাবে।

এত দাম হওয়া কারণ এটি তৈরি করা হয়েছে স্বর্ণ দিয়ে।

 loudspeakers_techshohor

হার্ট অডিও নামের একটি প্রতিষ্ঠান ২০১২ সালে তৈরি করে স্পিকারটি। সারা বিশ্বে ১৮ ক্যারেট স্বর্ণের তৈরি বিশেষ এ স্পিকারের মাত্র এক জোড়া সংস্করণ রয়েছে।

ডাইমন্ডের আইপ্যাড
অ্যাপলের আইপ্যাডের মূল্য এমনিতেই অন্য ট্যাবলেট থেকে বেশি। এতে শখের বসে হীরাযুক্ত করায় মূল্য আরও বেড়েছে।

4.Camael Diamonds iPad_techshohoro

১৮ ক্যারেট স্বর্ণ এবং ৩০০ ক্যারেট ডায়মন্ডসমৃদ্ধ আইপ্যাডের এ সংস্করণের মূল্য ১.২ মিলিয়ান ডলার।

ম্যাকবুক এয়ার প্লাটিনাম সংস্করণ
আইফোন ও ট্যাব ছাড়াও সবচেয়ে দামি গ্যাজেটের তালিকায় আরও আছে অ্যাপলের ল্যাপটপ ম্যাকবুক এয়ারের প্লাটিনাম সংস্করণ। প্লাটিনাম যুক্ত এ ল্যাপটপটির ওজন ৭ কেজি।

5.MacBook Air_techshohor

সারা বিশ্বে এ সংস্করণের পাঁচটি ম্যাকবুক এয়ার রয়েছে। একেকটির মূল্য ৫ লাখ ডলার।

নিন্টেনডো উইই
জাপানের বিখ্যাত গেইম কনসোল নির্মাতা নিন্টেনডো উইই কনসোলটির একটি বিশেষ সংস্করণ রয়েছে। এটি ২২ ক্যারেট স্বর্ণ দিয়ে তৈরি। যার ওজন ২.৫ কেজি।

Nintendo Wii Supreme_techshohor

ফ্রন্ট বাটন তৈরি করতে ব্যবহার করা হয়েছে ৭৮*০.২৫ ফ্লোলেস ভিভিস ডায়মন্ড। এটির মূল্য ৪ লাখ ৯৭ হাজার ডলার।

সনি প্লেস্টেশন ৩
নিন্টেনডো স্বর্ণের তৈরি কনসোল বানালে কেন পিছিয়ে থাকবে জাপানের অপর প্রতিষ্ঠান সনি। সনির প্লে স্টেশন থ্রি কনসোলের বিশেষ একটি সংস্করণ তৈরি করা হয়েছে ২২ ক্যারেট স্বর্ন দিয়ে।

Sony-PlayStation-3-Supreme_techshohor

এ ছাড়া এতে ব্যবহার করা হয়েছে ডায়মন্ড। সনির বিশেষ সংস্করণের কনসোলটির ওজন ১.৬ কেজি। এর মূল্য ৩ লাখ ৩১ হাজার ৫০০ ডলার।

ব্ল্যাকবেরি ডায়মন্ড
মৃতপ্রায় স্মার্টফোন ব্ল্যাকবেরির একটি ডায়মন্ড সংস্করণ রয়েছে। এতে ব্যবহার করা হয়েছে ২৪ ক্যারেট স্বর্ন। স্মার্টফোনটির বডিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১৮ ক্যারেট স্বর্ণ।

Diamond-Blackberry_techshohor

এ ছাড়া রয়েছে স্বর্ণের আবরণ। ডায়মন্ডযুক্ত ব্ল্যাকবেরির এ সংস্করণটি দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২ লাখ ৪০ হাজার ডলার।

স্বর্ণের আইপ্যাড
বেশি দামের কারণে যারা হীরার তৈরি অধিকতর বিলাসবহুল আইপ্যাড কিনতে পারছে না তাদের জন্য রয়েছে স্বর্ণের তৈরি আইপ্যাড। এটির মূল্য ১ লাখ ৯০ হাজার ডলার।

এটির দশটি ইউনিট রয়েছে বাজারে। ২২ ক্যারেট স্বর্ণের তৈরি আইপ্যাডটির ওজন ২.১ কেজি। এতে অ্যাপলের লোগোতে ব্যবহার করা হয়েছে হীরা।

8.Gold-ipad_techshohorjpg

স্বর্ণের এক্সবক্স ওয়ান
মাইক্রোসফটের এক্সবক্স ওয়ান কনসোলটির একটি স্বর্ণের সংস্করণ রয়েছে। যার মূল্য ধরা হয়েছে ছয় হাজার পাউন্ড।

স্বর্ণের তৈরি এক্সবক্স ওয়ানের কনফিগারেশন অন্যান্য আন্তর্জাতিক সংস্করণের মতো। যা এএমডির তৈরি ৮ কোর সিপিইড সমৃদ্ধ। এতে রয়েছে ৫০০ গিগাবাইট হাইড্রাইভ, ৮ গিগাবাইট র‍্যাম এবং ব্লু রে ড্রাইভ।

Related posts

*

*

Top