Maintance

বেসিস নির্বাচন কবে হবে?

প্রকাশঃ ১০:৪৩ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৯, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৫:১৬ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১০, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : নিজেদের ভিশন আর মিশনে অলোচিত না হলেও বছরজুড়ে নির্বাচন কাণ্ডে সরগরম ছিল দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অন্যতম শীর্ষ বাণিজ্য সংগঠন বেসিস।

অথচ বছর শেষে সেই নির্বাচনই কবে হবে তা এখনও অস্পষ্ট।

বছরের শুরু হতেই নির্বাচন পদ্ধতি নিয়ে নেতাদের মতদ্বৈততা, আপিল-অভিযোগ। এরপর বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ডিটিও শাখার শুনানি, প্রথম দফায় ৮ জুলাই নির্বাচন বাতিল শেষে এই ইস্যুতে সংগঠনটির গঠনতন্ত্র পর্যন্ত সংশোধন। এরপরও দ্বিতীয় দফায় ঘোষিত ২৮ ডিসেম্বরে নির্বাচন হলো না।

বেসিস নির্বাচন বোর্ড সদস্যদের জানিয়ে দিয়েছে, ৩১ অক্টোবরের ইজিএমে সংশোধিত গঠনতন্ত্র ডিটিওর অনুমোদনের আগে নির্বাচন কার্যক্রম এগিয়ে নেয়া সম্ভব নয়। নির্বাচনের পুন : তফসিল ঠিক সময়ে ঘোষণা করা হবে।

কিন্তু এই ঠিক সময় কবে ?

basis-techshohor

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান এস. এম কামাল টেকশহরডটকমকে জানান, নির্বাচন কবে হবে তা এখন বলা যাচ্ছে না। সংশোধিত গঠনতন্ত্র ডিটিওর অনুমোদনের পর নিয়ম-কানুন অনুযায়ী তা ঠিক করা হবে, পুন:তফসিল দেয়া হবে।

বর্তমান কমিটির মেয়াদ সম্পর্কে জানতে চাইলে তিনি বলেন, বর্তমান কমিটির মেয়াদ নতুন গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী হবে কিনা সে বিষয়ে ডিটিওর কাছে ক্লারিফিকেশন চাওয়া হয়েছে।

তবে বেসিস সভাপতি তথ্যপ্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার বলছেন, সংশোধিত নতুন গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বর্তমান কমিটি ২০১৮ সালের ১৫ জুলাই পর্যন্ত বহাল থাকবে।

তিনি টেকশহরডটকমকে বলেন, ‘আমরা যেহেতু ইজিএম করেছি তাই ১৫ জানুয়ারির মধ্যে নির্বাচন করার আর বাধ্যবাধকতা নেই। সংশোধিত নতুন গঠনতন্ত্র অনুযায়ী বর্তমান কমিটি ২০১৮ সালের ১৫ জুলাই পর্যন্ত বহাল থাকবে। এখন এই তারিখের ১৫ দিন আগেও নির্বাচন হতে পারে ।

বেসিস সভাপতি বলেন, আমরা নির্বাচন কমিশনকে দায়িত্ব দিয়ে রেখেছি। তাই এসব সিদ্ধান্ত সবটাই নির্বাচন বোর্ডের। ডিটিও গঠনতন্ত্র অনুমোদনের পর নির্বাচন বোর্ড আইন ও নিয়ম মেনে নির্বাচন ঘোষণা করতে পারে। এখানে আইন ও নিয়মের বাইরে কিছু করার সুযোগ নেই। তবে বেসিস ইসি  ১৫ জুলাইয়ের আগেই নির্বাচন করার জন্য নির্বাচন বোর্ডকে অনুরোধ করেছে।

সংগঠনটির গঠনতন্ত্র অনুয়ায়ী ‘নির্বাচন বোর্ড গঠনের পর তফসিল ঘোষণা পর্যন্ত ৯০ দিন সময় লাগে। আর তফসিল ঘোষণা হতে নির্বাচন পর্যন্ত দিতে হবে ৮০ দিন।

মোস্তাফা জব্বার বলছেন, নতুন নির্বাচন বোর্ড গঠন করা হচ্ছে না। ফলে বোর্ড গঠনের পর তফসিল ঘোষণা পর্যন্ত যে ৯০ দিনের সময় ছিল তা আর লাগছে না।

এখন সংশোধিত গঠনতন্ত্রে ডিটিও’র অনুমোদনের ওপর নির্ভর করছে ২০১৮-১৯ সেশনের বেসিস নির্বাচনের সময়। এই  গঠনতন্ত্রে যদি আবারও সংশোধন দেয় ডিটিও, তখন ?

তাহলে আবার ওই সংশোধনী করে তারপর ইজিএম ডেকে তা পাশ করিয়ে আবারও ডিটিও অনুমোদন নিয়ে তারপর নির্বাচনী তফসিল দিতে হবে ? এমন জিজ্ঞাসায় হেসে দেন নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান এস. এম কামাল। বলেন, দেখা যাক।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/