Maintance

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে তরুণদের আগ্রহ বাড়ছে

প্রকাশঃ ৪:০২ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৯, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৪:০২ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৯, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : আগামী দিনে অনলাইন আয়ের অন্যতম খাত হবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং। ই-কমার্স ওয়েবসাইটের পণ‌্যের প্রচার করেই শিক্ষার্থীরা ঘরে বসে বাড়তি আয় করতে পারবেন।

বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) আয়োজিত ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডের শেষ দিনে ‘ডিজিটাল মার্কেটিং ফর ফিউচার’ শীর্ষক এক সেমিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন।

সেমিনারে প্রধান অতিথি ছিলেন তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের অতিরিক্ত সচিব মো. রাশেদুল ইসলাম। তিনি তার বক্তৃায় বলেন, আমরা নিজে থেকে চেষ্টা না করলে সফলতার মুখ দেখবো না। সরকারের ৫ বিলিয়ন ডলার আইসিটি এক্সপোর্টের জন‌্য তরুণরাই কাজ করবে। এই লক্ষ‌্যমাত্রা অর্জনের জন‌্য তরুণদের সব ধরনের সহযোগিতা দেবে আইসিটি ডিভিশন।

মার্কেটেভার বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা আল-আমিন কবির সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। আলোচনায় অংশ নেন, ডেভসটিম লিমিটেডের সহ-প্রতিষ্ঠাতা নাসির উদ্দিন শামীম, বিজস্কোপের প্রতিষ্ঠাতা নাহিদ হাসান।

নাসির উদ্দিন শামীম তার বক্তৃতায় বলেন, কেউ অ‌্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কাজ করতে গেলে প্রথমেই হীণমন‌্যতায় ভুগি। কেননা, অনেকেরই জানা নেই আমরা কোন বিষয়ে কাজ করবো। এজন‌্য আমার পরাশর্ম হলো নতুন বিষয়ে কাজ করতে হবে। কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা সম্পর্ক ভালো ধারণা থাকতে পারে।

জাহিদ হাসান বলেন, যোকোনো একটি বিষয়ে কাজ করতে হবে। সেই একটা কাজ ভালো শিখে সেটার উপর নিজের দক্ষতা বাড়াতে হবে। সারা বছর কাজ করা যাবে এমন বিষয়ে কাজ করতে হবে। লক্ষ‌্য ঠিক থাকলে এবং নিয়মিত কনটেন্ট দিলে সফলতা অবশ‌্যই আসবে।

কে এম রফিকুল ইসলাম জানান, চলতি বছরে তিন এক মিলিয়ন ডলার আয় করেছেন। এজন‌্য তিনি অ‌্যাফিলিয়েটে মার্কেটিংয়ে বাংলাদেশে তরুণদের আইকনে পরিণত হয়েছে।

তরুণদের উদ্দেশ‌্য করে রফিকুল বলেন, কম সময়ে ভালো কিছু শেখা যায় না। ভালো কিছু শিখতে হলে সময় দিতে হবে। আমার সফলতার মূল কারণ দীর্ঘ নয় মাস এ বিষয়ে আমি হাতে কলমে শিখেছি। এজন‌্য এখাতে যারা আগে থেকেই কাজ করছেন তাদের পরামর্শ নিয়েছি।

বক্তারা জানান, অ্যামাজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং বর্তমান সময়ে তরুণদের মাঝে বেশ সাড়া ফেলেছে। অনেকেই আগ্রহী হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে। তবে সঠিক গাইডলাইনের অভাবে শুরু করতে পারছে না অনেকেই। এজন‌্য এখাতে কাজ করে সফল হয়েছে তাদের কাছ থেকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ নেয়া যেতে পারে।

বাংলাদেশ বাইমোবাইল নামের একটি প্রতিষ্ঠান তাদের পণ‌্যের প্রচার করে বাড়তি আয়ের সুযোগ করে দিয়েছে। ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডে অংশ নিয়ে প্রতিষ্ঠানটি একাজে তরুণদেরকে উৎসাহিত করছে।

বাইমোবাইল প্রধান মো. ইউসুফ আলী বলেন, দেশে আমরাই প্রথম অ‌্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের সুবিধা চালু করেছি। যারা ঘরে বসে অর্থ উপার্জন করতে চান তারা খুব সহজেই এখন আয় করতে পারবেন।

*

*

Related posts/