Maintance

হ্যাকিংয়ের ঘটনা গোপন করতে অর্থ দেয় উবার!

প্রকাশঃ ১১:২৩ পূর্বাহ্ন, নভেম্বর ২২, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:৪১ অপরাহ্ন, নভেম্বর ২২, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : হ্যাকাররা উবারের ৫৭ মিলিয়ন গ্রাহক ও চালকের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করেছিল বলে নিশ্চিত করেছে উবার।

ঘটনাটি এক বছর আগে ঘটলেও এতোদিন বিষয়টি তারা গোপন রেখেছিলো। হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে চুরি করা তথ্যগুলো ডিলিট করার জন্য হ্যাকারদেরকে তারা এক লাখ ডলার প্রদান করেছিলো।

সংবাদ মাধ্যম ব্লুমবার্গ জানিয়েছে, কোম্পানিটির সাবেক সিইও ট্রাভিস কালানিক হ্যাকিংয়ের ঘটনাটি শুরু থেকেই জানতেন।

হ্যাকাররা ৫৭ মিলিয়ন (৫ কোটি ৭০ লাখ) গ্রাহকের নাম, ইমেইল ঠিকানা ও ফোন নম্বর চুরি করেছিলো। আর ৭ লাখের মধ্যে ৬ লাখ চালকের নাম ঠিকানার পাশাপাশি লাইসেন্স সংক্রান্ত তথ্যও হস্তগত করে হ্যাকাররা।

কোম্পানিটির নতুন সিইও দারা খশরুশাহী জানিয়েছেন, ঘটনাটি তিনি আগে থেকে জানতেন না।

হ্যাকিংয়ের বিষয়ে তিনি বলেন, হ্যাকিংয়ের কারণে এখন পর্যন্ত কোনো প্রতারণামূলক ঘটনা ঘটার খবর পাওয়া যায়নি। ক্ষতিগ্রস্ত অ্যাকাউন্টগুলো আমাদের নজরদারিতে রয়েছে।এরকম কোনো কিছু ঘটা উচিত হয়নি এবং আমি এই ঘটনার জন্য কোনো অজুহাত খাঁড়া করবো না।

Hacker

উবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, দুজন হ্যাকার সফটওয়্যার কোড ব্যবহার করে গিটহাবে জমা করা তথ্য ভাণ্ডারে প্রবেশ করে। এরপরে পৃথিবীজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা বিপুল সংখ্যক গ্রাহক ও চালকদের ব্যক্তিগত তথ্য সম্বলিত তালিকাগুলো ডাউনলোড করে।

হ্যাকিংয়ের ঘটনাটি গোপন রাখার দায়ে চলতি সপ্তাহে কোম্পানিটির চিফ সিকিউরিটি অফিসার ও তার সহকারীকে বরখাস্ত করে উবার।

তথ্য চুরির বিষয়টি মঙ্গলবার প্রকাশ পেলে নিউইয়র্কের অ্যাটর্নি জেনারেল এরিক স্ক্যানেইডারম্যান ঘটনাটি তদন্তের নির্দেশ দেন।

এদিকে, গ্রাহকদের কাছে ঘটনাটি গোপন রাখার জন্য এবং তথ্যের নিরাপত্তা রক্ষায় গাফিলতির জন্য উবারের বিরুদ্ধে এক গ্রাহক মামলাও দায়ের করেন।

রয়েটার্স, বিবিসি ও ব্লুমবার্গ অবলম্বনে আনিকা জীনাত

*

*

Related posts/