নির্বাচিত হয়েই সভাপতির পদ ভাগাভাগির ঘোষণা আরিফের

আল আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) নতুন কমিটিতে আবারও সভাপতির পদ ভাগাভাগি করবেন নির্বাচিত নেতারা। ২০১৪-১৫ মেয়াদের এ কমিটিতে প্রথমে কম্পিউটার সোর্সের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এইচএম মাহফুজুল আরিফ এবং পরে আর এম সিস্টেমসের স্বত্ত্বাধিকারী আলী আশফাক সভাপতির দায়িত্ব পালন করবেন।

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্যবসায়ীদের সবচেয়ে বড় এ সংগঠনের সভাপতিসহ অন্যান্য পদ বন্টনের নির্বাচন শেষে রোববার সন্ধ্যায় বিঅ্যান্ডবি প্যানেলের প্রধান আরিফ পদ ভাগাভাগির এ ঘোষণা দেন।

bcs new committee_techshohor

শুধু সভাপতি পদ নয়, ২০১৪-২০১৫ মেয়াদের প্রথম বছর শেষে কার্যনির্বাহী কমিটির অন্যান্য পদেও পরিবর্তন আসবে বলে ঘোষণা দেন নব নির্বাচিত সভাপতি, যিনি নির্বাচনে বিপুল সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়ে  বিজয়ী বেটার বিজনেস অ্যান্ড বিসিএস(বিবিএন্ডবি) প্যানেলের দলনেতা।

২০১২-১৩ মেয়াদের কমিটিতেও সভাপতির পদ ভাগাভাগি করা হয়েছিল। এতে সাধারণ সদস্যদের মধ্যে বেশ সমালোচনা দেখা দিযেছিল। নির্বাচনের আগেও শীর্ষ পদ ভাগাভাগির গুঞ্জণ ছিল। যদিও তখন টেকশহরডটকমের কাঝে গুজবের বিষয়টি অস্বীকার করেছিলেন আরিফ ও আশফাক।

রোববার সন্ধ্যায় বিসিএস কার্যালয়ে নব-নির্বাচিত কার্যনির্বাহী কমিটির সাত সদস্য সর্ব সম্মতিক্রমে আরিফকে সভাপতি হিসাবে নির্বাচন করেন। নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যান স্বদেশ রঞ্জন সাহা কমিটির পদসূমহে নির্বাচিতদের নাম ঘোষণা করেন।

নতুন কমিটিতে সহ-সভাপতি হয়েছেন মুজিবুর রহমান স্বপন (হাইটেক প্রফেশনালস) এবং মহাসচিব নির্বাচিত হয়েছেন নজরুল ইসলাম মিলন (পিসি মার্ট)। এ ছাড়া এসএম ওয়াহিদুজ্জামান(মাইক্রোসান সিস্টেমস) যুগ্ম-মহাসচিব, কাজী শামসুদ্দীন আহমেদ লাভলু (এবিসি কম্পিউটার কর্ণার) কোষাধক্ষ এবং এটি শফিক উদ্দীন আহমেদ (ইন্টারন্যাশনাল কম্পিউটার ভিশন) ও আলী আশফাক (আরএম সিস্টেমস লিমিটেড) পরিচালক নির্বাচিত হয়েছেন।

এর আগে শনিবার রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সিটিউশনে বিসিএসে কার্যনির্বাহী কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে আরিফের নেতৃত্বাধীন বিবিএন্ডবি প্যানেলের ছয় প্রার্থী জয়ী হন। ছয় স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে শুধু নির্বাচিত হন এস এম ওয়াহিদুজ্জামান।

নির্বাচন বোর্ডের চেয়ারম্যানের নাম ঘোষণার পর দায়িত্বপ্রাপ্তদের নিয়ে বিসিএসকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয় ব্যক্ত করেন নতুন সভাপতি।

শুভেচ্ছা বক্তব্যে আরিফ বলেন, ” আমি ২০১৪-২০১৫ মেয়াদে প্রথম বছর সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব পালন করব। এরপর সভাপতি হিসেবে আসবেন আলী আশফাক। মহাসচিব পদেও পরিবর্তন হবে। তখন মহাসচিব হবেন কাজী শামসুদ্দীন আহমেদ লাভলু।

আরিফ বলেন, শুধু সভাপতি বা মহাসচিব নয়, একবছর পর পুরো কমিটির পদ পুন:বন্টন করা হবে।

পদ ভাগাভাগির বিষয়ে জানতে চাইলে কম্পিউটার সোর্সের এই ব্যবস্থাপনা পরিচালক টেকশহরডটকমকে বলেন,সংগঠনের কাজে গতি আনতেই এক বছর পরে পদ পুন:বন্টন করা হবে। যেহেতু বিবিঅ্যান্ডবি প্যানেল ঐক্যবদ্ধ তাই কে কখন কোন পদে থাকছে, তা কোনো বিষয় নয়।

পরের বছরের জন্য ঘোষিত সভাপতি আলী আশফাক টেকশহরডটকমকে বলেন, “আমরা একসঙ্গে কাজ করব। এক বছর পর কমিটি পুনগঠন হলে সংগঠনের ক্ষতি নয়, বরং লাভই হবে।”

bb&b-bcs-TechShohor

নির্বাচনের আগে টেকশহরডটকমে ‘বিসিএসে ভাগাভাগির নেতৃত্ব চান না সদস্যরা’ শীর্ষক সংবাদ প্রকাশের পর বিষয়টি নিয়ে বেশ আলোচনা হয়। তখন সাধারন সদস্যদের অনেকেই ২০১২-২০১৩ মেয়াদের মতো এবারও পদ ভাগাভাগির বিষয়ে নির্বাচনে অংশ নেওয়া একটি অংশের মধ্যে সমঝোতা হয়েছে বলে উল্লেখ করেন।

আর একমাত্র প্যানেল হিসাবে নির্বাচনে অংশগ্রহণকারী বিবিঅ্যান্ডবির দিকেই এ অভিযোগের তীর ছিল সবচেয়ে বেশি।

তখন ভোটারদের এই অভিযোগ ও গুঞ্জণকে নাচক করে দিয়ে প্যানেল প্রধান আরিফ টেকশহরডটকমকে বলেছিলেন,‘নির্ধিদ্বায় বলতে পারি আমদের পদ ভাগাভাগির কোনো পরিকল্পনা নেই।’

Related posts

*

*

Top