Maintance

আটলান্টিকে ক্যাবল টানছে মাইক্রোসফট-ফেইসবুক

প্রকাশঃ ১:৩৩ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২৬, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৫৩ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২৭, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডাটার গতি বাড়াতে আটলান্টিক মহাসাগরের মধ্যে দিয়ে ছয় হাজার ৫৯৮ কিলোমিটার দীর্ঘ তারের একটি লাইন টানা হচ্ছে।

সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফট, সামাজিক যোগাযোগ জায়ান্ট ফেইসবুক এবং টেলিযোগাযোগ অবকাঠামো সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান টেলক্সাস দীর্ঘ এই লাইনটি টানছে। লাইনটি টানা হলে প্রতি সেকেন্ডে ১৬০ টেরাবাইট ডাটা স্থানান্তর করা সম্ভব হবে।

একটি ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফট জানিয়েছে, মারিয়ার নামের এই ক্যাবল লাইন টানা হলে ১৬ মিলিয়ন গুণ বেশি গতিতে বাসাবাড়িতে গড় ইন্টারনেট পৌঁছে দিতে সক্ষম হবে।

Submarine_Cable-2

মাইক্রোসফট দাবি করছে, মারিয়া ক্যাবল যে সুপারফ্রাস্ট ইন্টারনেট গতি দেবে সেখানে একসঙ্গে ৭১ মিলিয়ন এইচডি ভিডিও প্রবাহিত করা যাবে।

মারিয়ার একটি ‘ক্রিটিক্যাল’ সময়ে আসলো। ইতোমধ্যেই আটলান্টিকে সাবমেরিন ক্যাবল ট্রান্স-প্যাসিফিক রুটগুলির চেয়ে ৫৫ শতাংশ বেশি তথ্য প্রবাহ নিশ্চিত করছে। অন্যদিকে আমেরিকা ও ল্যাটিন আমেরিকার চেয়ে ৪০ শতাংশ বেশি তথ্য সরবরাহ করে সাবমেরিন ক্যাবল।

ওই ব্লগ পোস্টে মাইক্রোসফটের প্রেসিডেন্ট ব্র্যাড স্মিথ বলেন, এতে কোনো সন্দেহ নেই যে, মারিয়ার মাধ্যমে আটলান্টিক জুড়ে তথ্য প্রবাহের চাহিদা আরো বৃদ্ধি পাবে।

সাগরপৃষ্ঠের ১৭ হাজার ফুট নিচ দিয়ে এই ক্যাবল যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া সমুদ্রসৈকত থেকে স্পেনের বিলবাও পর্যন্ত টানা হবে। আর এর কার্যক্রম শুরু হবে ২০১৮ সালের শুরুর দিকেই।

মাইক্রোসফট বলছে, প্রকল্পটি অন্য সাধারণ প্রকল্পগুলোর চেয়ে তিনগুণ দ্রুত সম্পন্ন করা হবে। এটি সম্পন্ন করা হবে মাত্র দুবছরেই।

সার্চ জায়ান্ট গুগলও দক্ষিণ আমেরিকা এবং বেশ কয়েকটি এশিয়ান দেশগুলির উপর দিয়ে যুক্তরাষ্ট্র থেকে জাপানে এমন দুটি ক্যাবল টানতে বিনিয়োগ করেছে।

মারিয়ার ক্যাবলের মাধ্যমে ডাটাতে আরো বেশি নিয়ন্ত্রণ রাখতে চায় মাইক্রোসফট ও ফেইসবুক। এজন্য তারা সেটি নিয়ে সর্তকাবস্থা রেখেই কাজ করছে বলে এক প্রতিবেদনে জানানো হয়েছে।

টাইমস অব ইন্ডিয়া অবলম্বনে ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/