Maintance

ফিচারে থাকলেও ফোনে থাকে না ডুয়েল ক্যামেরা

প্রকাশঃ ৮:৩৭ পূর্বাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৪:১৩ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২৪, ২০১৭

টেক শহর কন্টেন্ট কাউন্সিলর : ডুয়েল ক্যামেরা নিয়ে প্রতারণা করছে বেশ কিছু মোবাইল নির্মাতা প্রতিষ্ঠান। তারা ফোনে ডুয়েল ক্যামেরা রাখার কথা বললেও সেটি নামে মাত্র।

সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যম ও ইন্টারনেটে বিষয়টি বেশ আলোচিত হচ্ছে। কারণ, অনেক বিশেষ করে চীনা বেশকিছু অখ্যাত ফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ডুয়েল ক্যামেরা তাদের ফোনে ফিচার হিসেবে রাখছে। তবে কাজের সময় সেটি আসলে ডুয়েল হিসেবে কাজ করে না।

ডুয়েল ক্যামেরা ফোনে রাখার বিষয়টির পথিকৃত বলা যায় চীনা স্মার্টফোন নির্মাতা প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। শুরুতে প্রতিষ্ঠানটি তাদের ফোনে একটি সাদাকালো ও অপরটি কালার সেন্সর যুক্ত করে দুটি সেন্সরের ছবি একত্রিত করে উন্নতমানের ছবি তোলার ব্যবস্থা যুক্ত করে।

ডুয়াল ক্যামেরার জনপ্রিয়তার শুরু সেখান থেকেই বলে অনেকেই বলেন। তবে এর আগে এইচটিসি থ্রি-ডি ছবি তোলার জন্য ফোনে দুটি ব্যাক ক্যামেরা যুক্ত করে। এলজি তাদের ফোনে একটি সাধারণ ক্যামেরা অন্যটি ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা যুক্ত করা শুরু করে।

তবে ডুয়াল ক্যামেরা ঠিক কিভাবে প্রায় সকল ফোনেই ব্যবহার হবে সেটি অনেকটা নির্ধারণ করে দেয় অ্যাপল আইফোন ৭+। যার একটি সেন্সর টেলিফটো হবার ফলে পোর্ট্রেইট মোডে ছবি তোলা সম্ভব হয়। অর্থাৎ ছবির মূল সাবজেক্টের পেছনের পুরো ব্যাগ্রাউন্ডে দেয়া হয় বোকেহ।

এই পোর্ট্রেইট মোড ফিচারটিই প্রায় সকল নির্মাতারা আজকাল ফোনে যুক্ত করছে। বলা হচ্ছে স্বল্পমূল্যের ফোনে একটি সেন্সর ২ মেগাপিক্সেল হলেও সেটি বোকেহ এর জন্য ডেপথ সেন্সর হিসেবে কাজ করছে।

তবে দুঃখজনক ব্যাপারটি হচ্ছে, প্রচুর অখ্যাত চীনা নির্মাতারাই ডুয়াল ক্যামেরা শুধু দেয়ার জন্যই ফোনে যুক্ত করছেন, কাজের জন্য নয়।

বেশ কিছু ফোনের ক্ষেত্রে যেমন, ব্লুবু বা ডুজি’র মত ব্র্যান্ডের ফোনের ক্যামেরা অ্যাপে ডুয়াল ক্যামেরা বোকেহ মোড রয়েছে। কিন্তু সেটি ছবির সাবজেক্ট ও ব্যাকগ্রাউন্ড আলাদা করতে একদমই ব্যর্থ। ছবির কেন্দ্রের চারপাশে কিছুটা ব্লার ইফেক্ট দিয়ে তাদের দায়িত্ব শেষ করে।

উপরন্ত এসকল ক্যামেরা সেটাপে বলা হচ্ছে, দ্বিতীয় ক্যামেরাটি ফোকাসিংয়ের কাজ করে। কিন্তু দ্বিতীয় ক্যামেরাটি পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়ার পরও দেখা গেছে সাধারণ ছবি বা বোকেহ মোড কোনোটির ওপরেই কোনো প্রভাব পড়েনি।

এমতাবস্থায় অবশ্যই ফোনটি যাচাই করে নেওয়া উচিত হবে, শুধু মোড়ক আর তার উপরে লেখা ফিচার দেখে নয়।

তবে নামী-দামী ব্র্যান্ডগুলোর ক্ষেত্রে এমন হয় না বলেও জানিয়েছে ওসব ওয়েবসাইট।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এস এম তাহমিদ

*

*

Related posts/