Maintance

ভয়েস অ্যাপে নিষেধাজ্ঞা উঠছে, সেন্সর রাখছে সৌদি সরকার

প্রকাশঃ ৭:৪৬ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২১, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৩:৪৯ পূর্বাহ্ন, সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অনলাইনে যোগাযোগের বেশ কয়েকটি অ্যাপের উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেওয়ার কথা জানিয়েছে সৌদি সরকার।

নিষেধাজ্ঞা তুলে নিলেও অ্যাপগুলোতে নজরদারি ও সেন্সর অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সরকারি এক মুখপাত্র।

বৃহস্পতিবার দেশটির কর্তৃপক্ষ জানায়, সব শর্ত মেনে কাজ করে এমন সব ভয়েজ ও ভিডিও কলের মতো সেবাগুলো খুলে দেওয়া হবে।

Soudi-Techshohor

খুলে দিতে যাওয়া এসব সেবার মধ্যে রয়েছে মাইক্রোসফটের স্কাইপ, ফেইসবুকের হোয়াটসঅ্যাপ ও মেসেঞ্জার, এবং রাকটুনের ভাইবার।

সংবাদ মাধ্যম রয়টার্স জানিয়েছে, এসব সেবা খুলে দেওয়া হয়েছে বলা হলেও বৃহস্পতিবার সেগুলোর মধ্যে দেখা যায় ভাইবার এখনো বন্ধ রয়েছে।

নতুন নীতিমালা ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য সুরক্ষা ও দেশের আইন লঙ্ঘন করে এমন কনটেন্ট ব্লক করার দিকে লক্ষ্য রেখে বানানো হয়েছে বলে বুধবার এক টেলিভিশন সাক্ষাৎকারে বলেছেন সৌদি আরবের টেলিযোগাযোগ নীতিনির্ধারক প্রতিষ্ঠান সিআইটিসি’র মুখপাত্র আদেল আবু হামিদ।

এই অ্যাপগুলো সরকারি বা প্রতিষ্ঠানগুলো কর্তৃক পর্যবেক্ষণ করা হবে কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, কোনো পরিস্থতিতেই ব্যবহারকারীরা কমিউনিকেশনস অ্যান্ড টেকনোলজি কমিশন-এর পর্যবেক্ষণ বা সেন্সরশিপ এড়িয়ে ভিডিও বা ভয়েস কলিংয়ের জন্য অ্যাপ ব্যবহার করতে পারবেন না।

এমন ধরনের অ্যাপ বিভিন্ন প্রচারণাকর্মী এবং উগ্রপন্থিরা ব্যবহার করতে পারে এমন আশঙ্কা থেকেই বন্ধ করা হয়েছে। ২০১৩ সাল থেকে সৌদি সরকার ইন্টারনেট যোগাযোগের উপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করে রেখেছে।

রয়টার্স অবলম্বনে ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/