Maintance

গুগল ফেইসবুক টুইটারে বিদ্বেষপূর্ণ বিজ্ঞাপন

প্রকাশঃ ৪:৫৯ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৭:৩৮ অপরাহ্ন, সেপ্টেম্বর ১৬, ২০১৭

টেক শহর কন্টেন্ট কাউন্সিলর : সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুক, টুইটার এবং সার্চ জায়ান্ট গুগলে উদ্দেশ্যমূলক ও বিদ্বেষপূর্ণ বিজ্ঞাপন এখনো দেওয়া হয়। একইসঙ্গে এগুলো সেসব ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের কাছে পৌঁছেও দেয় মাধ্যমগুলো।

তবে বিষয়টি স্পর্শকাতর হলেও মাধ্যমগুরো এখনো এর বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা না নিয়ে বরং এটিকে আরও প্রসারে কাজ করে যাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

বেশিরভাগ সময়ই কিছু কিছু বিষয়বস্তু যেমন, নাৎসিবাদ, বর্ণবাদ ও নির্দিষ্ট ধর্ম বা জাতীগোষ্ঠির বিরুদ্ধে প্ররোচণা দেয়া আইন করে নিষিদ্ধ করার ফলে সার্চ ইঞ্জিন ও সামাজিক মাধ্যমগুলো সেসব গ্রুপ বা ওয়েবসাইট ব্ল্যাকলিস্ট করে থাকে। কিন্তু এর পরেও সেগুলো ছড়িয়ে পড়ে মাধ্যমগুলো ব্যবহার করে।

সম্প্রতি বেশ কিছু রিপোর্টে উঠে এসেছে, এসব  ব্যবহারকারীদের গুগল, টুইটার ও ফেইসবুকের মত প্ল্যাটফর্মগুলো শুধু যে কঠোরভাবে দমন করছে না তাই নয়, তাদের লক্ষ্য করে বিজ্ঞাপণ দেয়ার জন্য কিওয়ার্ডসমূহ ও বহাল রেখেছে।

ঘটনাটি প্রথম খবরে আসে কিছুদিন আগে প্রো-পাবলিকার রিপোর্টের মাধ্যমে। সেখানে দেখা গিয়েছিল, ইহুদি বিদ্বেষী’ বা ‘যেভাবে ইহুদি হত্যা করবেন’ ঘরানার কি-ওয়ার্ড ব্যবহার করে বিশেষায়িত বিজ্ঞাপণ সহজেই ফেইসবুকে দেয়া যায়।

ঘটনাটির ব্যাখ্যা হিসেবে ফেইসবুক কর্তৃপক্ষ  দাবি করেছে, ব্যবহারকারীরা এসকল শব্দ তাদের প্রোফাইলের পেশা, শিক্ষাগত যোগ্যতা, বায়ো ও ইন্টারেস্ট হিসেবে ব্যবহার করায় ফেইসবুকের অ্যালগোরিদম সেটি অ্যাড কি-ওয়ার্ড হিসেবে স্বয়ংক্রিয়ভাবে যুক্ত করে নেয়।

ফেইসবুকের ঘটনাটির সতত্যা প্রমাণের পর গুগলের ক্ষেত্রেও একই পরীক্ষা চালানোর পর দেখা যায়, একই প্রকার কি-ওয়ার্ড গুগলের বিজ্ঞাপণ সেবায়ও কাজ করছে, টুইটারের ক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম ঘটেনি।

গুগলের ক্ষেত্রে অবশ্য ঘটনাটি অস্বাভাবিক নয়, কেননা গুগল অ্যাডসেন্সের কি-ওয়ার্ড যুক্ত করা হয় সার্চ করা প্রশ্ন ও শব্দ অনুযায়ী।

টুইটারের ক্ষেত্রে ‘নাৎসি’ বা ‘ওয়েটব্যাক’ এর মত বিদ্বেষী শব্দ শুধু বিজ্ঞাপনের লক্ষ্য নির্ধারনেই ব্যবহার করা সম্ভব নয়। কি-ওয়ার্ডগুলো ঠিক কি পরিমাণ ব্যবহারকারীর দৃষ্টি আকর্ষন করতে সক্ষম সেটিও পাওয়া যাবে। যেমন, নাৎসি টার্মযুক্ত বিজ্ঞাপনটি টুইটারের এক কোটি ৬৮ লাখ ব্যবহারকারীর নজর কাড়তে সক্ষম বলে জানানো হচ্ছে। 

এ সকল টার্মগুলো দ্রুত সরিয়ে নেয়ার ব্যাপারে তেমন কোনো মন্তব্য কোম্পানিগুলোর কাছ থেকে পাওয়া যায়নি। তবে তিনটি কোম্পানির ক্ষেত্রেই এগুলো বিজ্ঞাপন দেয়ার শর্তাবলী ভঙ্গ করেছে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে এস এম তাহমিদ

*

*

Related posts/