Maintance

নায়ক রাজ এখন স্মৃতি, ফেইসবুকে শোকগাঁথা

প্রকাশঃ ৭:৩৭ অপরাহ্ন, আগস্ট ২১, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:৪৬ পূর্বাহ্ন, আগস্ট ২২, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সোমবার  সন্ধ্যায় বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের অন্যতম অভিনেতা, নায়করাজ-রাজ্জাকের মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়ে। সঙ্গে সঙ্গে সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুকের টাইমলাইন হয়ে ওঠে শোকের মাধ্যম। ছেয়ে যেতে থাকে কালোর ছায়ায়। শোকের মাতমে ফেইসবুক ব্যবহারকারীরা।

শোক প্রকাশ করে বিভিন্ন জনের পোস্টে তাই ভারী হয়ে ওঠেছে ফেইসবুকের ওয়াল। লিখছেন রাজ্জাকের চলচ্চিত্রের কথা, তার অবদানের কথা।

ছোট কথায় তার গুরুত্ব বুঝিয়ে শাহরিমা নামের এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী লিখেন, শুধু মনে হচ্ছে বাংলা চলচ্চিত্রে আর কোনো নায়ক এখন নেই। তুমি যে পুরোটাই জুড়ে ছিলে। ওপারে ভালো থেকো।

Razzak-Techshohor

চলচ্চিত্রে রাজ্জাকের হাতেখড়ি হয় ১৯৬৬ সালে। সে বছর আখেরী স্টেশন নামেন চলচ্চিত্রের মাধ্যমে। তবে এর আগেই নিজের অভিনয় দক্ষতার পরিচয় দিয়েছিলেন ধারাবাহিক নাটকে অভিনয় করে।

রমেন দাশ গুপ্ত  নামের একজন শোক জানিয়ে লিখেছেন, আমাদের শৈশব-কৈশোরের স্বপ্নের নায়ক রাজ্জাকের বিদায়। নায়করাজ, আপনি আমাদের হৃদয়ে থাকবেন।

শুধু রমেন দাশ গপ্তের হৃদয়ে নয়। নায়ক রাজ রাজ্জাক জায়গা করে নিয়েছেন কোটি বাঙালির হৃদয়ে। তাইতো তার চিরবিদায় অনেকের কাছেই অবিশ্বাস্য। কিন্তু মৃত্যুকে মেনে নিতে হয়। তাই নেওয়া।

আকলিমা জান্নাত নামের একজন লিখেছেন, নীল আকাশের নিচে আমি রাস্তা চলেছি একা…। তিনি আজ একা চলে গেলেন। আমরা একজন গুণী চিত্রশিল্পীকে হারালাম। আপনি বেঁচে থাকবেন আমাদের হৃদয়ের মনিকোঠায়।

১৯৪২ সালের ২৩ জানুয়ারি রাজ্জাক জন্মগ্রহণ করেন তৎকালীন ব্রিটিশ ভারতের কলকাতায়। পরে অনেকটা শরনার্থী হয়েই ৬০ এর দশকে আসেন বাংলাদেশে। ঘটনাটিকে ধরে  পীর হাবিবুবর রহমান লিখেছেন, শরণার্থী হয়ে এসে তিনশো ছবিতে অভিনয় করে ভূবন জয় করে নায়করাজ হয়েই তিনি চলে গেলেন। এ জীবন সফলতার ইতিহাস।
তিনি যে এখনো নায়ক ছিলেন তেমনটিই লিখেছেন এক ফেইসবুক ব্যবহারকারী। পোস্টে তিনি লিখেন, আজকাল যারা নায়ক হিসেবে সিনেমা করছেন, এদের কথা মানুষ দুই দিন পরেই ভুলে যাবে। নায়করাজ হতে গেলে রাজকীয় রুচি লাগে! অভিনয় ধারণ করতে হয় মৌলিক অনুরাগে!

বর্তমান সময়ে চলচ্চিত্রে খুব কমই অভিনয় করছেন নায়করাজ রাজ্জাক। শুধু নায়ক হিসেবেই নয়, পরিচালক হিসেবেও বেশ সফল। ‘আয়না কাহিনী’ ছবিটি নির্মাণ করেন রাজ্জাক। নায়ক হিসেবে নায়করাজ প্রথম অভিনয় করেন জহির রায়হান পরিচালিত ‘বেহুলা’ ছবিতে। এতে তার বিপরীতে ছিলেন সুচন্দা।

‘ছুটির ঘন্টা’, ‘রংবাজ’, ‘বাবা কেন চাকর’, ‘নীল আকাশের নিচে’, ‘জীবন থেকে নেওয়া’ ‘পিচ ঢালা পথ’, ‘অশিক্ষিত’, ‘বড় ভালো লোক ছিল’সহ অসংখ্য ছবিতে অভিনয় করা রাজ্জাক সর্বশেষ অভিনয় করেছেন ছেলে বাপ্পারাজ পরিচালিত ‘কার্তুজ’ ছবিতে।

২১ আগস্ট বিকেলে রাজ্জাক হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হোন। পরে তাকে রাজধানীল ইউনাইটেড হসপিটালে নেওয়া হলে ডাক্তাররা অনেক চেষ্টার পর মৃত ঘোষণা করেন।

শুধু সাধারণ মানুষ নয়, ফেইসবুকে চলচ্চিত্র তারকারাও সমানে শোক জানাচ্ছেন।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/