Maintance

বাংলাদেশের সফটওয়্যার প্রকৌশলীদের সপরিবারে নরওয়ে নিচ্ছে ভিজার্টি

প্রকাশঃ ২:৫৯ অপরাহ্ন, জুলাই ২৯, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৫:৪৫ অপরাহ্ন, জুলাই ৩০, ২০১৭

আল-আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশ হতে রিসার্চ সেন্টার গুটিয়ে নিলেও এখানকার সফটওয়্যার প্রকৌশলীদের সপরিবারে নরওয়ে নিয়ে যাচ্ছে ভিজার্টি।

ভার্চুয়াল স্টুডিও, ব্রডকাস্ট মিডিয়া ও অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট সফটওয়্যার তৈরিতে বিশ্বের শীর্ষ কোম্পানিটি এই বাংলাদেশি কর্মীদের চাকরিসহ ওই দেশে বসবাসে পুরো পরিবারের স্পন্সরশিপ অফার করেছে।

ভিজার্টি বাংলাদেশের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মাহমুদুল হক আজাদ টেকশহরডটকমকে জানান, ভির্জাটি ১৫ জনকে অফার দিয়েছে সপরিবারে নরওয়েতে নিয়ে যাওয়ার জন্য। এটা বাংলাদেশের রিসার্চ সেন্টারের ৩০ শতাংশ জনবল। যারা পুরো স্পন্সরশিপে চাইলে নরওয়ে যেতে পারেন।

এটা বাংলাদেশের প্রকৌশলীদের যোগ্যতা ও সুনামের জন্যই হয়েছে, বিনা কারণে নয় উল্লেখ করে তিনি বলেন, কোম্পানিগুলো কৌশলগত কারণে হয়তো চলে যেতে পারে কিন্তু এই ঘটনা এটাই প্রমাণ করে যে আমাদের কর্মীরা কম দক্ষ নন।

তিনি জানান, দেশে কোম্পানিটির ৪৫ জন কর্মীর দল আছে। এখান হতে এই ১৫ জনকে নিয়ে নরওয়েতে যে ব্যয় করবে কোম্পানিটি তা দিয়ে ঢাকায় ১০০ জনের অফিস চালানো যায়।

চলতি বছরের মার্চে ভিজার্টি বাংলাদেশ হতে রিসার্চ সেন্টার গুটিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয়।

কোম্পানিটির সবচেয়ে বড় রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট সেন্টারটিই (আরএন্ডডি) বাংলাদেশের। আরও মাসখানেকের মধ্যে সব প্রক্রিয়া শেষে সেন্টারটি বন্ধ হয়ে যাবে।

বিবিসি, সিএনএন, আল জাজিরা, ফক্স, স্কাই নিউজসহ দেশি চ্যানেল এনটিভি, একাত্তর, ইন্ডিপেনডেন্ট টেলিভিশনেও ব্যবহার হয় এ কোম্পানির সফটওয়্যার। বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমেও ব্যবহৃত ভিজার্টির সফটওয়্যার।

ভিজার্টির সফটওয়্যার দিয়ে খেলা বিশ্লেষণ করে থাকে বিশ্ব ফুটবলের সবচেয়ে বড় সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল ফেডারেশন অব অ্যাসোসিয়েশন ফুটবল (ফিফা)। ২০১৪ সালের বিশ্বকাপে ফিফার অফিসিয়াল অ্যানালিসিস পার্টনার ছিল ভিজার্টি। যেখানে গোল হয়েছে কি না, অফসাইড দেখা ও অন্যান্য কিছু বিশ্লেষণ করা হয় এ কোম্পানির তৈরি সফটওয়্যার দিয়ে।

আমেরিকার নির্বাচনেও রিয়েল টাইম অ্যানালিসিসে বহুল ব্যবহৃত এর সফটওয়্যার। আর এসব সফটওয়্যার তৈরির পেছনে মেধা ও শ্রম রয়েছে বাংলাদেশ আরএন্ডডির, বাংলাদেশি কর্মীদের।

*

*

Related posts/