Maintance

জিপির আউটসোর্সে নির্ভর করেই বাংলাদেশে আসছে উইপ্রো

প্রকাশঃ ৪:৪১ অপরাহ্ন, জুলাই ১৯, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৪:৫৬ অপরাহ্ন, জুলাই ২০, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : গ্রামীণফোনের কাজের ওপর নির্ভর করেই বাংলাদেশে আসছে ভারতের অন্যতম তথ্যপ্রযুক্তি, কনসাল্টিং এবং আউটসোর্সিং কোম্পানি উইপ্রো।

সম্প্রতি বাংলাদেশে কার্যক্রম বন্ধের ঘোষণা দেয়া বিশ্বখ্যাত আরেক আউটসোর্সিং কোম্পানি অ্যাকসেঞ্চার গ্রামীণফোনকে যেসব আইটি সাপোর্ট দিয়ে থাকে সেসব কাজই করবে উইপ্রো।

প্রতি প্রান্তিকে গ্রামীণফোনের ৯৭ কোটি টাকার কাজ করত অ্যাকসেঞ্চার। যেটা এখন ৭৬ কোটি টাকায় রয়েছে।

গ্রামীণফোনের সঙ্গে অ্যাকসেঞ্চারের সঙ্গে চুক্তি নবায়ন না হওয়া এবং উইপ্রোর সঙ্গে চুক্তি হওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে অ্যাকসেঞ্চারের উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ ও সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সূত্র।

প্রাথমিকভাবে প্রায় দুইশত কর্মী নিয়ে বাংলাদেশে যাত্রা শুরু করতে চায় উইপ্রো। ইতোমধ্যে তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে বাংলাদেশে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করেছে প্রতিষ্ঠানটি। তবে বাংলাদেশে কাজ করার কোনো ঘোষণা এখনও দেয়নি উইপ্রো।

অ্যাকসেঞ্চারের প্রায় ২৫০ কর্মী গ্রামীণফোনকে আইটি সাপোর্ট দিয়ে থাকে। আর এখান হতেই কর্মীদের নিতে চায় উইপ্রো।

ছাঁটায়ের নোটিশে থাকা অ্যাকসেঞ্চার বাংলাদেশ কার্যালয়ের ৫৫৬ কর্মীর অনেকেই তৃতীয় পক্ষের মাধ্যমে উইপ্রোতে চাকরির ইন্টারভিউ দিয়েছেন।

তবে সেখানে বর্তমান চাকরির চেয়ে কম বেতন অফার করা হচ্ছে বলে জানান তারা। কেউ কেউ একই বেতনে অফার পেলেও কর্মপরিবেশ বিবেচনায় উইপ্রোকে ভাল ভাবছেন না।

উইপ্রোর বাংলাদেশে কার্যক্রম চালুর পরিকল্পনা নিয়ে আলোচনা সেই ২০০৫ সাল হতে। তখন শুরুতে ৫০ মিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করে বাংলাদেশে স্থানীয় কোনো কোম্পানির সঙ্গে যৌথভাবে ব্রাঞ্চ চালু করবে এমন কথা চলছিল।

কোম্পানিটির তখনকার স্ট্রাটেজিক সেলসের ভাইস-প্রেসিডেন্ট বিশ্বনাথান কেএস জানিয়েছিলেন, উইপ্রোর নিকট ভবিষ্যতের লক্ষ্য বাংলাদেশের বাজার, যা গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠছে। সেই সময়ে তিনি বাংলাদেশের বাজার গবেষণা করারও বলেছিলেন।

কিন্তু শেষ পর্যন্ত সেই পরিকল্পনা এক যুগেও বাস্তবায়ন করতে পারেনি উইপ্রো।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/