Maintance

গুগল ছেড়ে সমুচা ব্যবসায়ী

প্রকাশঃ ১:০৯ অপরাহ্ন, জুলাই ১৬, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:১৮ অপরাহ্ন, জুলাই ১৬, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মুম্বাইয়ের ছেলে মুনাফ কাপাডিয়া এমবিএ শেষে গুগলে যোগ দেন। তবে টেক জায়ান্টটিতে অ্যানালিটিকাল লিড হিসেবে কাজ করে তার মন ভরেনি। তাই লাখ টাকার চাকরি ছেড়ে দেওয়ার ঝুঁকি নিলেন। নিজের পছন্দমত কাজ করতে নেমে পড়েন খাবারের ব্যবসায়।

তার ব্যবসায় নামার শুরুটাও হয়েছিল খুব অদ্ভুতভাবে। মা নাফিসা প্রতিদিন সিরিয়াল দেখে সময় কাটান। এটা মুনাফের পছন্দ হয়নি। মাকে সিরিয়াল থেকে দূরে রাখতে মানুষকে ঘরে এনে খাওয়ানোর চিন্তা করেন।

তার ব্যবসায়িক বুদ্ধির কারণেই মুম্বাইয়ের দ্য বোহরি কিচেন সবার কাছে আজ বিশেষভাবে পরিচিত। ভারতের বোহরি কমিউনিটির লোক থালিতে বসে খাবার খান। তিনিও বোহরি কমিউনিটির সদস্য বলেই ফেইসবুক পেইজে তার রান্না ঘরের নাম দিয়েছেন বোহরি কিচেন।

mommy-the-brand-ambassador-techshohor

ব্যবসা শুরু করার জন্য প্রথমবার পরীক্ষামূলকভাবে কয়েক জন মেয়ের একটি দলকে মুনাফ ইমেইলের মাধ্যমে আমন্ত্রণ জানান। খাবার খাওয়ার পর তাদের বিল আসে ৭শ’ রুপি। মেয়েদের দলটি খাবারের বেশ প্রশংসাও করেন।

এরপর থেকেই মায়ের হাতের খাবার সবার কাছে পৌঁছে দিতে মুনাফ কিচেন বিজনেস নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পরেন। সময় কুলাতে না পেরে ছেড়েই দেন গুগলের চাকরি।

যখন তার কিচেন পেইজ চালাতে লাইকের প্রয়োজন পড়লো, তখন এ উদ্যোক্তা লাইক কেনার সিদ্ধান্ত নিলেন। কিন্তু এতে তার কোনো উপকার হয়নি। তাই ফেইসবুকের টার্গেটেট অ্যাডভার্টাইজিংয়ের কোড ভেঙ্গে ফেলেন। প্রত্যেক সপ্তাহে এখন শুধু ফেইসবুকের পেছনেই তার ব্যয় হয় ৭০০ রুপি।

তবে এই ব্যয় আয়ের তুলনায় কিছুই না। এখন তার বছরে টার্নওভার হয় ৫০ লাখ রুপি বলে জানান তিনি। যা আগামী কয়েকবছরের মধ্যে পাঁচ কোটি রুপিতে যাওয়ার প্রত্যাশা করেন তিনি।

তার বোহরা কিচেনের থালে থাকে মাটন সমুচা, নার্গিস কাবাব, কারি চাল, ডাব্বা মাংসসহ আরও অনেক কিছু।

বোহরা কিচেনে এখন খেতে চাইলে হয় মুনাফের মিউচুয়াল ফ্রেন্ড হতে হবে নয়তো বিশেষ কোনো ব্যক্তি হতে হবে। কারণ কাদেরকে বাসায় আমন্ত্রণ জানিয়ে খাওয়ানো হবে সেই সিদ্ধান্ত মুনাফের পরিবারই নিয়ে থাকে।

দ্য ইকোনোমিক টাইমস অবলম্বনে আনিকা জীনাত

*

*

Related posts/