ফের স্পুটনিক, এবার আসছে গুগলকে টেক্কা দিতে

টেক শহর ডেস্ক: স্নায়ু যুদ্ধের দিনগুলো এখন ইতিহাস। যা কিছু নতুন তা নিয়ে সাবেক সোভিয়েত ইউনিয়ন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে প্রতিযোগিতা যেন রেওয়াজে পরিণত হয়েছিল সেই সময়। সোভিয়েত ইউনিয়ন ভেঙ্গে যাওয়ার পর সেই দামামা থেমে গিয়েছিল। এবার সেই পুরনো আবহ ফিরিয়ে আনছে রাশিয়া। এ জন্য আবারও স্পুটনিকের দারস্থ হয়েছে তারা।

স্পুটনিক নামটির সঙ্গে দীর্ঘ ইতিহাস জড়িয়ে আছে। এ নামের স্যাটেলাইটের মাধ্যমেই ১৯৫৭ সালে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে মহাকাশ অভিযাত্রায় প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছিল ওই সময়ের রাশিয়া। আবারও ফিরে আসছে সেই স্পুটনিক। তবে মহাকাশ নয়, এবার প্রতিযোগিতার ক্ষেত্র হবে ওয়েব। search engine_techshohorএ নামে সার্চ ইঞ্জিন চালুর ঘোষণা দিয়ে ওয়েব জগতে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে পাল্লা দিতে চায় রাশিয়ার সরকারি টেলিকম গ্রুপ রসটেলিকম।

নতুন স্পুটনিকের লক্ষ্য সার্চ ইঞ্জিনের অধিশ্বর গুগলের সাম্রাজ্যে রাজ্যে হানা দেওয়া। যুক্তরাষ্ট্রভিত্তিক গুগল ওয়েব জগতে এগিয়ে আছে অনেক আগে থাকেই। সম্প্রতি স্পুটনিক নামের সার্চ ইঞ্জিন তৈরির ঘোষণার মাধ্যমে নতুন এ প্রতিযোগিতায় নামার কথা জানায় রসটেলিকম।

২০১৪ সালের শুরুতে চালুর লক্ষ্য নিয়ে রসটেলিকম ইতোমধ্যে প্রায় দুই কোটি ডলার ব্যয় করে ফেলেছে। স্পুটনিকের সম্ভাব্য ওয়েব ঠিকানা হলো-www.Sputnik.ru

তবে গুগলের সঙ্গে প্রতিযোগিতার আগে নিজেদের ঘরেই প্রতিদ্বন্দ্বীতার মুখে পড়তে হবে স্পুটনিককে। রাশিয়ার সর্বাধিক জনপ্রিয় সার্চ ইঞ্জিন ‘ইনডেক্স’-এর সঙ্গে প্রতিযোগিতা করতে হবে তাদের। এখন পর্যন্ত ইনডেক্স এগিয়ে রয়েছে অনেক বেশি। আর ব্যবহারকারীদের মধ্যে প্রায় ২৫ শতাংশ গুগল ব্যবহার করে থাকে। এরপর রয়েছে সধরষ.ৎঁ. বিশ্লেষকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিযোগিতার রাশিয়ান বাজারে জায়গা করে নেওয়া খুব সহজ হবে না।

নতুন ইঞ্জিনের নাম স্পুটনিক রাখার পেছনে বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে বলে মনে করছেন অনেকে। প্রযুক্তি বিশ্বে মার্কিনিদের একাধিপত্য কমিয়ে আনার জন্য এটি হতে পারে রাশিয়ার নতুন উদ্যোগ।

ইউরোপের সবচেয়ে বেশি ইন্টারনেটের গ্রাহক রয়েছে রাশিয়ায়। দেশটির সরকার ইন্টানেটের পাশাপাশি ওয়েব জগতেও রাষ্ট্রের নিয়ন্ত্রণ বাড়াচ্ছে। এর অংশ হিসেবেই এ উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে বলে অনেকের অভিমত।

রয়টার্স ও ম্যাশবলের প্রতিবেদন থেকে শাহরিয়ার হৃদয়

Related posts

*

*

Top