গেটস ফাউন্ডেশনের বড় অংকের অনুদান পাচ্ছে বাংলাদেশ

আল আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডিজিটাল লাইব্রেরি ও তথ্যপ্রযুক্তি কেন্দ্র স্থাপনে গেটস ফাউন্ডেশনের কাছ থেকে বড় অংকের অনুদান পাচ্ছে বাংলাদেশ।

সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের সামাজিক কল্যাণমূলক সংগঠন গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে এ বিষয়ে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের আলোচনা চলছে বলে জানা গেছে।

অনুদানের অর্থের পরিমান দেড় থেকে দুই কোটি ডলার হতে পারে বলে জানিয়েছেন আইসিটি বিভাগের সচিব নজরুল ইসলাম খান।

palak_gates foundation_techshohor

লাইব্রেরি স্থাপন প্রকল্পে অনুদান পেতে শিগগির গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে সমঝোতা স্মারক (এমওইউ) সই হতে পারে বলে জানা গেছে। আগামী ১৪ এপ্রিল গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে প্রকল্প গ্রহনের বিষয়ে বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে।

ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করা হবে। এতে সরকারের আইসিটি বিভাগ, শিক্ষা মন্ত্রণালয়, সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, ব্রাক ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশন সহযোগী হিসেবে সম্পৃক্ত থাকবে।

আইসিটি সচিব জানান, আইসিটি বিভাগ থেকে ব্রিটিশ কাউন্সিলের মাধ্যমে প্রস্তাব পাঠানোর পর গেটস ফাউন্ডেশন প্রকল্পটিতে অর্থায়ন করতে আগ্রহ দেখিয়েছে। পরে ফাউন্ডেশনের কর্মকর্তাদের চাহিদা অনুযায়ী আরও বেশ কিছু তথ্য সরবরাহ করা হয়েছে।

ফাউন্ডেশনের অনুদানের পরিমাণ বিষয়ে জানতে চাইলে সচিব বলেন, আইসিটি বিভাগের পক্ষ থেকে ১ বিলিয়ন ডলার চাওয়া হয়েছে। প্রকল্পের প্রথম পর্যায়ে এর পরিমাণ কিছুটা কম হতে পারে। ফাউন্ডেশনের সঙ্গে এমওইউ সইয়ের প্রস্তুতি চলছে। তখন অর্থের বিষয়টি সুস্পষ্ট হবে।

আইসিটি বিভাগের কর্মকর্তা আকতার হোসেন টেকশহরডটকমকে বলেন, ব্রিটিশ কাউন্সিলের সঙ্গে ইতোমধ্যে কয়েকটি সভা হয়েছে। গেটস ফাউন্ডেশন বাংলাদেশে ডিজিটাল লাইব্রেরি ও আইটি সেন্টার স্থাপনে আর্থিক সহায়তা দিতে ইচ্ছুক। এ জন্য আইসিটি বিভাগ কাজ করছে।

এ বিষয়ে গত ৩ ও ৪ মার্চ রাজধানীর মহাখালীতে ব্রাক ইন্টারন্যাশনাল সেন্টারে ‘গেটস ফাউন্ডেশন লাইব্রেরিজ প্রোগ্রাম ইন বাংলাদেশ’ শীর্ষক এক যৌথ পরিকল্পনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।

বৈঠকে ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্য ও যোগাযাগ প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকসহ আইসিটি বিভাগ, শিক্ষা ও সংস্কৃতি মন্ত্রনালয়, ব্রিটিশ কাউন্সিল, ব্রাক ও বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের প্রতিনিধিরা অংশ নেন।

সভায় প্রকল্প বাস্তবায়নের প্রাথমিক পরিকল্পনা, পরবর্তী পদক্ষেপ গ্রহণ এবং আগামী ১৪ এপ্রিল গেটস ফাউন্ডেশনের সঙ্গে সভার প্রস্তুতি নিয়ে আলোচনা হয়েছে।

পলক বলেন, দেশে ডিজিটাল লাইব্রেরি স্থাপন, বিদ্যমান লাইব্রেরি আধুনিকায়ন ও আইটি সেন্টার স্থাপনের জন্য গেটস ফাউন্ডেশনের কাছে অনুদানের বিষয়ে পরবর্তী পদক্ষেপ নিতে বৈঠকে আলোচনা হয়েছে।

সভায় ব্রিটিশ কাউন্সিলের ওয়েস্ট কোস্ট, ইউএসএ এর ডিরেক্টর সিমন গ্যামেল, সাউথ এশিয়ান রিজিওনাল ডিরেক্টর অব পার্টনারশীপস আনুজ ভাদেরা, বাংলাদেশ বিভাগের ডিরেক্টর প্রোগামস এন্ড পার্টনারশিপস রবিন ডেভিসসহ আরও চার প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।

Related posts

*

*

Top