বহুরূপী অ্যান্ড্রয়েডের যত ডিভাইস

শাহরিয়ার হৃদয় ও তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : সার্চ থেকে টেক জায়ান্টে পরিণত হওয়া গুগলের অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেম যেন অদ্ভূত এক উদ্ভাবন। কোথায় নেই অ্যান্ড্রয়েড। শুরুটা হয়েছিল ফোন দিয়ে। তারপর ব্যবহার হলো ট্যাবে। এখানেই শেষ নয়। এরপর নানা আকৃতির ডিভাইসে দেখা মিলেছে এটির। দিন যতো যাচ্ছে জনপ্রিয়তাও বাড়ছে- গুগলের এ সেবার।

একই সঙ্গে অ্যান্ড্রয়েড নিয়ে পরীক্ষা-নিরীক্ষারও যেন শেষ নেই। গুগলের এ অপারেটিং সিস্টেমকে ভেঙে চুরে, নিজেদের মতো করে কাস্টোমাইজ করে সব রকম পণ্যে ব্যবহার করতে কোম্পানিগুলো যেন প্রতিযোগিতা শুরু করেছে।

এর ফলে ফোন ও ট্যাবের বাইরেও পরিচিত অনেক ডিভাইসে এসেছে অ্যান্ড্রয়েড। ঘড়ি থেকে শুরু করে গাড়িতে পর্যন্ত ব্যবহার হচ্ছে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ডিভাইস। হালের আমলে রান্নাঘরেও ঢুকেছে এ গুগল পণ্য। এমনই কিছু ডিভাইসের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দিতে এ প্রতিবেদন।

গাড়িতে অ্যান্ড্রয়েড
বিশ্বের শীর্ষ সব গাড়ি নির্মাতার সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হচ্ছে গুগল- এমন ঘোষণা আসে ফেব্রুয়ারির কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক শোতে। এর প্রধান শর্ত ছিল, ২০১৪ সালের মধ্যেই অ্যান্ড্রয়েডচালিত গাড়ি পুরোদমে রাস্তায় নামবে।

যদিও বর্তমানে অনেক গাড়িতেই অ্যান্ড্রয়েডধর্মী টাচস্ক্রিন কন্ট্রোল সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে, তাতে সব সুবিধা নেই। গুগলের নিজস্ব অ্যান্ড্রয়েডের ফলে গাড়ির নিয়ন্ত্রণ পদ্ধতিতে ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। ইন্টারনেট কার রেডিও, গাড়িভিত্তিক অ্যাপসের প্রসার ঘটবে।

পরিধানযোগ্য গ্যাজেট
অ্যান্ড্রয়েড স্মার্টওয়াচ অনেক আগে বের হলেও এখন তা পূর্ণতা পাচ্ছে। সিইএস ২০১৪ তে স্যামসাংয়ের গ্যালাক্সি গিয়ার অন্তত সে ইঙ্গিত দিয়েছে। আরও এসেছে সনির স্মার্টওয়াচ ২, কোয়ালকমের টক।

im.watches_techshohor

অ্যান্ড্রয়েড ওএস সমৃদ্ধ হাত ঘড়ি দিয়ে ব্লু টুথের মাধ্যমে স্মার্টফোনের সঙ্গে সংযোগ করা যাবে। এটি পড়া থাকা অবস্থায় মোবাইল ফোনের সব ধরনের ইনকামিং কল, এসএমএস রিসিভ ও রিড, ফেইসবুক ও টুইটারের যে কোনো আপডেটও পাওয়া যাবে।

এর বাইরে গুগল গ্লাসের জন্য তো সারা দুনিয়া অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে। মুভি দেখার জন্য এপসন এনেছে মুভেরিও।

অর্থাৎ, সামনের কয়েকটি বছর পরিধানযোগ্য গ্যাজেটের হতে যাচ্ছে। সোশ্যাল নোটিফিকেশন, জিপিএস, ভিডিও দেখা ইত্যাদি এ প্রযুক্তিতে গুরুত্ব পাবে।

গুগল গ্লাস
প্রযুক্তি বিশ্বকে গুগল সবচেয়ে বেশি চমকে দেয় স্মার্টগ্লাসের মাধ্যমে। চোখের চশমাতেও যোগ করে প্রযুক্তির ছোঁয়া। এটি গুগলের পরিধানযোগ্য প্রযুক্তিগুলোর মধ্যে অন্যতম। এখনও বাজারজাত শুরু না হলেও এটি নিয়ে চলছে নানা জল্পনা-কল্পনা।

google_techshohor

এর সাহায্যে ছবি তোলা, ভিডিও ধারণ, ম্যাপ ট্রান্সলেটসহ গুগলের বিভিন্ন সুবিধা উপভোগ করা যাবে।

ক্যামেরা
ফটোগ্রাফি দুনিয়াতেও জোরেশোরে আসছে অ্যান্ড্রয়েড। ফটো প্রিন্টের দিন তো অনেক আগেই শেষ; ফটো তুলে কতো দ্রুত সামাজিক সাইটে শেয়ার করা যায় তার প্রতিযোগিতা চলছে এখন। এ জন্য অ্যান্ড্রয়েডের চেয়ে ভালো প্ল্যাটফর্ম আর কি হতে পারে?

galaxycamera_techshohor

স্যামসাং গ্যালাক্সি ক্যামেরার মতো অ্যান্ড্রয়েড ও স্মার্ট ফিচার সমৃদ্ধ ক্যামেরার প্রসার তাই বাড়ছে।

ক্যানন ও স্যামসাং এ ধরনের ক্যামেরা ইতোমধ্যে বাজারে ছেড়েছে। এ ডিভাইসগুলোতে সব ধরনের অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ব্যাবহার করা যাবে। ওয়াই-ফাই এবং থ্রিজির দিয়ে ইন্টারনেট ব্যবহার করা যাবে।

স্যামসাং এ ধরনের একটি ক্যামেরার আপডেট বাজারে ছেড়েছে। ১৬ মেগাপিক্সেলের এ ক্যামেরায় তোলা ছবি সঙ্গে সঙ্গে ইনস্টাগ্রাম, পেপার ক্যামেরা বা ফেইসবুকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে আপলোড করা যাবে।

চলতি বছরও এমন বেশ কিছু ক্যামেরা মুক্তি পাবে।

হোম অ্যাপ্লায়েন্স
চলতি বছরের কনজ্যুমার ইলেকট্রনিক্স শোতে (সিইএস) ড্যাকর নামে অ্যান্ড্রয়েডচালিত ওভেন প্রদর্শন করা হয়েছে। ডিসকভার আইকিউ ডুয়াল ফুয়েল এ ওভেনে আছে ৭ ইঞ্চি টাচস্ক্রিন, যেটি অ্যান্ড্রয়েডচালিত।

রেসিপি দেখা, ডাউনলোড করা, রান্নার জন্য দিকনির্দেশনা ইত্যাদি করা যায় এতে। ওভেনটিকে ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে স্মার্টফোন কিংবা ট্যাবলেট ডিভাইস থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যায়।

ওয়াই-ফাই সুবিধা থাকায় রান্নার সর্বশেষ অবস্থা টেক্সট করে জানাতে পারে।

অ্যান্ড্রয়েড ৪.০ আইসক্রিম স্যান্ডউইচ অপারেটিং সিস্টেমে চালিত ওভেনটিতে রয়েছে এক গিগাবাইটের প্রোসেসর, ৫১২ মেগাবাইটের র‍্যাম। এতে রয়েছে ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে যেখানে গুগলের বিভিন্ন অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে। যেগুলোর মাধ্যমে রেসিপি পড়া যাবে।

রেফ্রিজারেটর
স্যামসাং টি৯০০০ রেফ্রিজারেটরই বা কম কিসে! এতে ১০ ইঞ্চি ডিসপ্লে রয়েছে, সাথে অ্যান্ড্রয়েড। গুগলে প্লে থেকে অ্যাপ ইনস্টল করতে পারবেন এখানে।

রেসিপি, আবহাওয়া, খবর, গুগল ক্যালেন্ডার, এমনকি টুইটারও ব্যবহার করতে পারবেন। শপিং লিস্ট, খাবার-দাবারের তালিকা করে রাখতে পারবেন।

ওয়াশিং মেশিন
গৃহস্থালী সামগ্রীর মধ্যে ওয়াশিং মেশিনেও লেগেছে প্রযুক্তির ছোঁয়া। অ্যান্ড্রয়েডচালিত কাপড় ধোয়ার যন্ত্রে গত বছর অ্যান্ড্রয়েড যুক্ত করেছে দক্ষিণ কোরিয়ার প্রযুক্তি নিমার্তা প্রতিষ্ঠান স্যামসাং। এর সামনে রয়েছে স্পর্শকাতর পর্দা।

er_photo_techshohor

১২ কেজি ধারণ ক্ষমতা রয়েছে এ অ্যান্ড্রয়েডচালিত ওয়াশিং মেশিনের। এটি ওয়াই-ফাই নেটওয়ার্কের মাধ্যমে স্মার্টফোন কিংবা ট্যাবলেট ডিভাইস থেকে নিয়ন্ত্রণ করা যাবে।

এলজি ও প্যানাসনিকও এ ধরণের ওয়াশিং মেশিন নিয়ে কাজ করলেও এখনও এগুলো বাজারে আলোর মুখ দেখেনি।

টিভি, মনিটর, প্রজেক্টর
সিইএসে ফিলিপস একটি টিভি প্রদর্শন করেছে, যা সম্পূর্ণ অ্যান্ড্রয়েডভিত্তিক। এতে সরাসরি প্লে স্টোর থেকে অ্যাপ ইনস্টল করা যায়।

android-lenovo_techshohor

অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমচালিত নতুন প্রযুক্তির টিভিগুলোতে কি-বোর্ড ও মাউস যুক্ত করে ফেইসবুক, টুইটার বা জিটক এর মাধ্যমে চ্যাট করার পাশাপাশি স্কাইপতে কথাও বলা যাবে। এর  সাহায্যে গেইমস খেলা যাবে।

ফিলিপস ছাড়াও এ ধরনের টিভি বাজারে ছেড়েছে সনি, লেনোভো এবং টিসিএল। আরও বেশ কয়েকটি কোম্পানি টিভি তৈরির ঘোষণা দিয়েছে।

আরেক কোম্পানি ভিউসনিক ২২ ইঞ্চি ফুল এইচডি মনিটর নিয়ে এসেছে অ্যান্ড্রয়েডচালিত। জেডটিই ও ফিলিপস এনেছে অ্যান্ড্রয়েড প্রোজেক্টর। এই প্রজেক্টরে বিল্ট-ইন ওয়াইফাই আছে, তাই সরাসরি ইন্টারনেট থেকে স্ট্রিমিং করে প্রোজেক্টরের পর্দায় দেখা যাবে।

ল্যাপটপ
স্মার্টফোন ও ট্যাবলেট ছাড়া অ্যান্ড্রয়েড ব্যবহার করা হচ্ছে ল্যাপটপে। এইচপি ও তোশিবা ইতোমধ্যে বাজারে এ ধরনের ল্যাপটপ বাজারে এনেছে। এগুলোতে রয়েছে কিবোর্ড, মাউস এবং টাচ স্ক্রিন।

Android-laptop_techshohor

অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস স্টোরে থাকা সকল অ্যাপস সাপোর্ট করবে এসব ল্যাপটপে।

মিডিয়া প্লেয়ার
মাল্টিমিডিয়া প্লেব্যাকের জন্য অ্যান্ড্রয়েডভিত্তিক মিডিয়া প্লেয়ার খুবই কাজের। বিশেষ করে স্মার্ট টিভিতে। গেইমিং, ভিডিও কলের মতো অনেক কাজ সহজ করে দেয় এসব ডিভাইস। গুগলের ক্রোমকাস্ট, অ্যামকেট ইভোটিভি, পোর্ট্রোনিক্স লাইমবক্স এমনই কিছু মিডিয়া প্লেয়ার।

সেট টপবক্স
অ্যান্ড্রয়েডচালিত স্মার্টফোনের সাহায্যে এ সেট টপবক্স নিয়ন্ত্রণ করা যাবে। টিভির প্রযুক্তি উন্নয়নের যুগে এটি নতুন সংযোজন।

geniatechandroidtv

এ সেট টপবক্সের সাহায্যে সাধারণ এইচডি টিভিতে অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপস ব্যবহার করা যাবে। ওয়াই-ফাইয়ের সাহায্যে এতে ইন্টারনেটও ব্যবহার করা যাবে।

গেমিং কনসোল
গেমিং কনসোলের জগতে অনেক আগে থেকেই রাজত্ব করছে অ্যান্ড্রয়েড। বাজারে এখন পর্যন্ত তিনটি মডেল রয়েছে। উইকিপ্যাড, ওউয়া, প্লে এমজি মডেলের কনসোলগুলো টিভির সঙ্গে যুক্ত করে টিভিতেও গেম খেলা যাবে।

project_shield_techshohor

ওউয়া কনসোলটি অ্যান্ড্রয়েড ৪.০ অপারেটিং সিস্টেমে চলে। এটিতে বিনামূল্যে খেলা যাবে এমন ১৭০টিরও বেশি গেইম। এ ছাড়া  স্ট্রিমিং সেবা পাওয়া যাবে কনসোলে। পাশাপাশি গেম ডেভেলপাররাও গেম তৈরি ও টেস্ট করতে পারবেন এ কনসোলের মাধ্যমে। অন্যগুলোতেও রয়েছে প্রায় একই ধরণের সুবিধা।

Related posts

*

*

Top