Maintance

ব্যক্তিস্বাধীনতা নিশ্চিত করেই সাইবার আইন আসছে

প্রকাশঃ ৯:৪৮ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৫, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৯:৪৮ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৫, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যক্তিস্বাধীনতা নিশ্চিত করেই অল্প কয়েক দিনের মধ্যে সাইবার আইন তৈরির কাজ শেষ হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

সোমবার রাজধানীর বাংলাদেশ প্রেস ইন্সটিটিউটের সেমিনার হলে ‘বাংলাদেশ কনসালটেশন অন এপিআরআইজিএফ ২০১৭’ শীর্ষক এক মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ কথা বলেন ইনু্।

চলতি বছরের ২৬-২৯ জুলাই ব্যাংককে অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘এশিয়া-প্যাসিফিক রিজিওনাল ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ফোরাম (এপিআরআইজিএফ)’ তে অংশগ্রহণের প্রস্তুতি হিসেবে বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ন্যান্স ফোরাম (বিআইজিএফ) এই সভার আয়োজন করে।

অংশীজনের অংশগ্রহণের মধ্য দিয়ে দেশে সাইবার আইন, সাইবার পুলিশ ও সাইবার আইন বিষেশজ্ঞ তৈরিতে প্রশিক্ষণ কর্মসূচি হাতের নেয়ার গুরুত্ব তুলে ধরে তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘ব্যক্তিগত স্বাধীনতা নিশ্চিত করেই অল্প দিনের মধ্যেই সাইবার আইন তৈরির কাজ শেষ হবে। আর আগামী ২ মাসের মধ্যে আসবে সম্প্রচার আইন।’

BIJF.techshohor

সভায় দেশে ইন্টারনেটের দক্ষ ব্যবস্থাপনায় তথ্য মন্ত্রণালয়, টেলিযোগাযোগ বিভাগ, তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগসহ সংশ্লিষ্টদের নিয়ে জাতীয় কমিটি গঠনের পরামর্শ দেন তিনি। ইনু বাংলাদেশ ইন্টারনেট গভর্ণেন্স ফোরাম (বিআইজিএফ) চেয়ারপার্সনও।

বাক-স্বাধীনতার মতো ইন্টারনেটকে মৌলিক অধিকার হিসেবে সংবিধানে অন্তর্ভূক্তির দাবি জানিয়ে তথ্যমন্ত্রী বলেন, টেকসই উন্নয়নের জন্য নিরাপদ ও বিনামূল্যে ইন্টারনেট জরুরি। কারণ, এটি জনগণের সক্ষমতা বৃদ্ধিমূলক প্রযুক্তি। একইসঙ্গে সবুজ, টেকসই, ডিজিটাল এ ত্রিমাত্রিক উন্নয়নের জন্য ইন্টারনেটকে আরও জনমুখী করতে হবে।

সভায় বিআইজিএফ মহাসচিব আব্দুল হক অনু ভিডিও প্রেজেন্টেশনের মাধ্যমে ডটবাংলার স্বীকৃতিতে সংগঠনটির দীর্ঘ মেয়াদী আন্দোলনের কথা তুলে ধরেন।

তিনি ডটবিডি ও ডটবাংলা সহজলভ্য ও সহজপ্রাপ্য করার দাবি জানিয়ে বলেন, ইন্টারনেটের উপযোগিতা বাড়াতে না পারলে বাংলাদেশ পিছিয়ে পড়বে। এ কারণে সবাইকে সমন্বিতভাবে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান সংগঠনটির মহাসচিব।

বাংলাদেশ এনজিওস নেটওয়ার্ক ফর রেডিও অ্যান্ড কমিউনিকেশন (বিএনএনআরসি)-এর প্রধান নির্বাহী এএইচএম বজলুর রহমানের সঞ্চালনায় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ কম্পিউটার সোসাইটির সভাপতি অধ্যাপক ড: এম মাহফুজুল ইসলাম, জাতিসংঘের ইন্টারনেট গর্ভনেন্স ফোরামে (আইজিএফ) মাল্টি স্টেকহোল্ডার অ্যাডভাইজারি গ্রুপের সদস্য ও বাংলাদেশ নেটওয়ার্ক অপারেটরস গ্রুপের (বিডিনগ) ট্রাস্টি চেয়ারম্যান সুমন আহমেদ সাবির, মেট্রোনেট লিমিটেডের সৈয়দ আলমাস কবির, ইন্টারনেট সোসাইটির সদস্য মোঃ জাহাঙ্গীর হোসেন, আইএসপিএবি’র সাধারণ সম্পাদক এমদাদুল হক, বিআইজিএফের নির্বাহী সদস্য মোঃ সাজ্জাদ হোসেন, সুশীল প্রতিনিধি খান মোহাম্মদ কায়সার, বাংলা উইকিপিডিয়া’র প্রশাসক নূরুন্নবী চৌধুরী, বিটিআরসির প্রতিনিধি ইশতিয়াক আরিফ।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/