Maintance

'প্রোগ্রামিং শেখাতে হবে ছোটবেলা থেকেই'

প্রকাশঃ ৬:২৬ অপরাহ্ন, মার্চ ১৮, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৬:২৬ অপরাহ্ন, মার্চ ১৮, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বজুড়ে স্বয়ংক্রিয়করণ কার্যক্রমের মাত্রা ক্রমাগত বেড়ে চলায় কম্পিউটার প্রোগ্রামারদের চাহিদা বেড়ে চলেছে। এখন বিশ্বে কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে সবাই নজর দিচ্ছে। তরুণ প্রধান দেশ হওয়ায় বাংলাদেশের রয়েছে বাড়তি সুবিধা। এখন থেকে উদ্যোগ নিলে কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ে বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম সেরা দেশে পরিণত হতে পারে।

তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ আয়োজিত জাতীয় হাইস্কুল প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার চট্টগ্রাম ও বরিশাল পর্বে উপস্থিত অতিথিরা এ আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

শনিবার চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) এবং বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ে ওই অঞ্চল দুটির প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

NHSPC-CTG-BARISHAL_TECHSHOHOR

প্রতিযোগিতায় প্রায় দুই সহস্রাধিক শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করে। সকালে চুয়েটের উপাচার্য প্রফেসর ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম ও বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর ড. এস এম ইমামুল হক নিজ নিজ অঞ্চলের প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন।

তথ্যপ্রযুক্তি কুইজ ও প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতার অন্যান্য পর্বে আরও উপস্থিত ছিলেন চুয়েটের রেজিস্ট্রার প্রফেসর ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী, সিএসই অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মাহমুদ ‍আব্দুল মতিন ভূইয়া, সিএসই বিভাগের প্রধান প্রফেসর ড. এম. মশিউল হক, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. এ কে এম মাহবুব হাসান, সিএসই বিভাগের প্রধান  রাহাত হোসাইন ফয়সালসহ আরও অনেকেই।

প্রতিযোগিতায় দুই পর্বে মোট ১৫০ জনকে ঢাকার জাতীয় উৎসবের জন্য নির্বাচিত করা হয়েছে।

দেশের হাইস্কুলের শিক্ষার্থীদের মধ্যে কম্পিউটার প্রোগ্রামিংকে জনপ্রিয় ও তাদের দক্ষতা বাড়ানোর জন্য সরকারের তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগ তৃতীয়বারের মতো জাতীয় হাইস্কুল তথ্যপ্রযুক্তি কুইজ ও প্রোগ্রমিং প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে।

১৬টি আঞ্চলিক ও তিনটি উপজেলা পর্যায়ের বিজয়ীরা ঢাকায় জাতীয় পর্যায়ে অংশ নেবে। এরপর ধারাবাহিক নির্বাচনের মাধ্যমে ইরানের তেহরানে অনুষ্ঠেয় আন্তর্জাতিক ইনফরমেটিক্স অলিম্পিয়াডের জন্য বাংলাদেশের সদস্যদের নির্বাচন করা হবে।

বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) প্রতিযোগিতার বাস্তবায়ন সহযোগী এবং কোড মার্শাল  জাজিং প্ল্যাটফর্ম হিসাবে কাজ করছে। সংশ্লিষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিজ্ঞান বিভাগ স্থানীয় আয়োজক হিসাবে সম্পৃক্ত রয়েছে।

আগামীকাল নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় ও পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে লোয়াখালী ও পটুয়াখালী অঞ্চলের  প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে।

প্রতিযোগিতার সময়সূচী এই ওয়েবসাইট ও ইভেন্টের খবর ফেইসবুক পেইজ থেকে পাওয়া যাবে।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*