Maintance

নিন্দা ও বর্জনের মুখে বেসিসের নারী দিবস উদযাপন অনুষ্ঠান

প্রকাশঃ ৭:২৮ পূর্বাহ্ন, মার্চ ১৫, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:২০ অপরাহ্ন, মার্চ ১৮, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : রঙ ‘ফর্সা’ করার ক্রিম ফেয়ার অ্যান্ড লাভলির সঙ্গে নারী দিবস উদযাপন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে নিন্দার মুখে পড়েছে দেশের সফটওয়্যার খাতের শীর্ষ সংগঠন বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)।

টেকশহরডটকমে ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলির সঙ্গে নারী দিবস উদযাপন নিয়ে বেসিসে বিতর্ক’ শিরোণামে সংবাদ প্রকাশিত হওয়ার পর সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে অনেকে সমালোচনা ও বর্জনের প্রকাশ্য মতামতও জানিয়েছেন।

অনুষ্ঠান আয়োজনে এই ‘বিতর্কিত’ স্পন্সর জোগাড়ের পেছনে বেসিস পরিচালনা কমিটির অথবা সংগঠনের কে বা কারা উদ্যোগী হয়েছেন তাদের উদ্দেশ্য ও নারীর প্রতি মানসিকতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন কেউ কেউ।

basis-womanday-techshohor

নিন্দা জানানোর সঙ্গে সঙ্গে আমন্ত্রিত গণ্যমান্য অতিথি ও তথ্যপ্রযুক্তি খাত সংশ্লিষ্ট নারী উদ্যোক্তা, ফ্রিল্যান্সার ও সাধারণ মানুষের অনেকেই অনুষ্ঠান বর্জন করার অভিমত জানিয়েছেন। বেসিস সদস্যদের অনেকেই ওই অনুষ্ঠানে যেতে চান না বলে জানা গেছে।

বাংলাদেশে গণিত অলিম্পিয়াড কমিটির অন্যতম প্রতিষ্ঠাতা ও বর্তমান সাধারণ সম্পাদক, বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এর সাধারণ সম্পাদক মুনির হাসান বেসিসের এই অনুষ্ঠান বর্জন করেছেন।

দেশে বিজ্ঞান জনপ্রিয়করণ ও প্রোগ্রামিং প্রসারের অন্যতম এই অগ্রপথিক সরাসরি নিন্দা জানিয়েছেন, ‘আমার শুধু অবাক লাগছে বেসিসের দীনতা দেখে।’

তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক পাঠ্যপুস্তক রচয়িতা ও এক সময়ের তথ্য ও যোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের (আইসিটি) পরামর্শক মুনির হাসান আরও বলেছেন, ‘বেসিসের অনুষ্ঠানে আমি সচরাচর দাওয়াত পাই। তবে, এটার পাইনি। বিকেলে ফারহানা এ রহমানকে বলাতে তিনি আমাকে ই-মেইলে একটা দাওয়াত পত্র পাঠিয়েছেন। সেটা দেখে আমি বুঝেছি কেন দাওয়াত দেনেওয়ালারা আমাকে এই অনুষ্ঠানে দাওয়াত দেয়নি।’

basis-womanday-techshohor-(2)

‘একটি বর্ণবাদী প্রোডাক্টের অনুষ্ঠানে যে আমি যাবো না এটা তো জানা কথা। সেজন্য ওরা একটা কার্ড বাঁচিয়েছে মনে হয়।’

বেসিসের অনেক সদস্যরাও মনে করছেন, কর্মক্ষেত্রে নারীদের অবস্থানকে তুলে ধরাই যেখানে বেসিসের ওই আয়োজনের মূল উদ্দেশ্য, সেখানে নারীদের রঙকে পুঁজি করে তৈরি পণ্য ফেয়ার অ্যান্ড লাভলির পৃষ্ঠপোষকতা মোটেও সম্মানজনক নয়।

তাদের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপনের অংশ হিসেবে আয়োজিত এ ভালো উদ্যোগে বিশ্বজুড়ে সমালোচিত এ ব্র্যান্ডকে যুক্ত করে আত্মপ্রত্যয়ী নারীদের খাটো করা হয়েছে। তাদের মতে এ আয়োজনে কালিমা ছড়িয়েছে এটি।

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে কাজ করেন নোভা আহমেদ। তিনি বিষয়টি নিয়ে এক মন্তব্যে বলেছেন, ‘অনুষ্ঠান আয়োজন অর্থ যোগাড়ের ক্ষেত্রে তাদের আরও সতর্ক হওয়া উচিত ছিল। আমাদের মেয়েরা ইতোমধ্যে তারা দেখতে কেমন, ত্বকের রং ইত্যাদি নিয়ে দূর্দশায় রয়েছে। আমারা একে প্রমোট করতে পারি না, কোনোভাবেই নয়।’

তরুণদের নিয়ে কাজ করেন, বিকজ আই এম এ গার্ল এর ফেলো মাকসুদা আজীজ (Maksuda Aziz) নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন একটু দীর্ঘ স্ট্যাটাস দিয়ে। সংবাদটি শেয়ার করে সেই স্ট্যাটাসের একটি অংশে তিনি লিখেছেন, ‘ফেয়ার অ্যান্ড লাভলিকে পাশে নিয়ে বেসিস উদযাপন করবে নারী দিবস। আমি শুধু জানতে চাই বেসিস আসলে উদযাপন করতে চাইছে কী? নারীর অগ্রগামীতা নাকি নারীর প্রতি বৈষম্য?’

basis-womanday-techshohor (1)

মাকসুদা আজীজ (Maksuda Aziz) জড়িত রয়েছেন সাংবাদিকতার সঙ্গেও। বেসিসের এই অনুষ্ঠান আয়োজন সম্পর্কে তিনি ব্যঙ্গ করে বলেছে, ‘তা সেটা উদযাপনের বিষয়ই বটে। কালা বেটিদের এমনিও হাইফাই অনুষ্ঠানে মানায় না। সব বেটিদের জানিয়ে দাও একে তুমি বেটি তার উপ্রে কালা, তুমি করবে জয়, একি ছেলেখেলা? বেসিসের এই মহান কর্মের সংবাদ পড়ে দয়া করে কেউ সাদা দেবীদের সামনে মাথা না ঠুকে যাবেন না। কে জানে আপনার উপর কোন গজব নেমে আসে।’

তিনি লিখেছেন, ‘তবে যারা জীবনের সব বাধা অতিক্রম করে সামনে যায়, যার দিন শেষে নিজের শক্তিশালী বাহু, রোদে পোড়া রঙ দেখে নিজেদের উপর গর্ব করে তাদের জন্য বেসিস ভালো থাপ্পরের ব্যাবস্থা করেছে।’

বেসিসের উদ্যোক্তা বিষয়ক স্ট্যান্ডিং কমিটি, উইমেন ইন আইটি এবং পিআর ও পাবলিকেশন কমিটির সদস্য সাবিলা ইনুন ফেইসবুকে এক মন্তব্যে নিজের মতামত জানাতে গিয়ে বলেন, ‘ইতোমধ্যে বিরোধীতা জানিয়েছি।’

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে কাজ করেন আরাফাতের রহমান ফেইসবুক মন্তব্যে লিখেছেন, ‘আমার শুধু অবাক লাগছে বেসিসের দীনতা দেখে।’

womansday-basis-techshohor

তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তা তাসলিমা মিজি ফেইসবুক মন্তব্যে লিখেছেন, ‘সাবাশ। বেসিসের সেসব সদস্যদের অভিবাদন।’

ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি ফাউন্ডেশন যৌথভাবে বুধবার ‘সেলিব্রেটিং ওমেন অ্যাট ওয়ার্ক’ শীর্ষক এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছে তথ্যপ্রযুক্তি খাতের এ সংগঠনটি। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তুর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের সেলিব্রেটি হলে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ টায় এ অনুষ্ঠান হওয়ার কথা রয়েছে।

আমন্ত্রণপত্রে জানানো হয়, ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি ফাউন্ডেশন ও বেসিস উইমেন ফোরাম যৌথভাবে আন্তর্জাতিক নারী দিবস উদযাপন উপলক্ষে এ আয়োজন করেছে।

এতে থাকবে নেটওয়ার্কিং, আলোচনা, নারী পেশাজীবিদের স্বীকৃতি প্রদান ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানে ঢাকায় নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত মার্শা বার্নিকাট এর অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা রয়েছে। এছাড়া টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিমকে দাওয়াত করা হলেও তিনি আসছেন না সূত্রে জানা গেছে।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*