শিগগির ১০০ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে ওয়াই-ফাই

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেছেন ‘সারাদেশে এক লাখ হটস্পট তৈরি হবে। সেখানে সাধারণ জনগন বিনামূল্যে দ্রুতগতির ইন্টারনেট সুবিধা পাবেন। আগামী ১ বছরের মধ্যে জেলা, ২ বছরের মধ্যে উপজেলা, ৪ বছরের মধ্যে ইউনিয়ন পর্যায়ে অপটিক্যাল ফাইবার সংযোগ ও দ্রুত গতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করা হবে। এছাড়াও তথ্য প্রযুক্তির উন্নয়নে আগামী এক বছরের মধ্যে সারা দেশে থ্রি-জি সংযোগ এবং ২০১৬ সালের মধ্যে দ্বিতীয় সাবমেরিন কেবল সংযুক্ত করা হবে।

এছাড়া ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো দেশের আরও ১০০ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শিগগির ওয়াই-ফাই স্থাপন করা হবে। শিক্ষার্থীরা যাতে কম খরচে মোবাইল ইন্টারনেট সেবা পেতে পারে এবিষয়ে টেলিটকসহ বেসরকারি টেলিকম অপারটেরদের সঙ্গে আলোচনা চলছে। আগামী মার্চ থেকেই বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে শিক্ষার্থীদের প্রতি মাসে ৫০০ বা এক হাজার টাকা কিস্তিতে ল্যাপটপ দেওয়ার কার্যক্রম ‘ওয়ান স্টুডেন্ট ওয়ান ল্যাপটপ’ শুরু হবে।

CRI meeting-TechShohor

প্রতিমন্ত্রী মঙ্গলবার বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল মিলনায়তনে (বিসিসি) সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশনের (সিআরআই) পলিসি ক্যাফের উদ্যোগে আয়োজিত এক সভায় এসব কথা বলেন।

‘তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি, শিক্ষা এবং কর্মসংস্থান’ শীর্ষক এই সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান। বক্তব্য রাখেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক ড. মামুনূর রশীদ, আমার দেশ আমার গ্রামের পরিচালক সাদেকা হাসান সেজুতি। সঞ্চালনা করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় আইটি সোসাইটির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি আবদুল্লাহ আল ইমরান।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা বিষয়ক মন্ত্রী মোস্তাফিজুর রহমান বলেন, আধুনিক শিক্ষায় শিক্ষিত হলেও আমরা সুনাগরিক তারুণ্য পাবো। সোনার বাংলা গড়ার লক্ষ্যে বর্তমান সরকার নতুন শিক্ষানীতি প্রণয়ন করেছে।

সভায় ‘তথ্য যোগাযোগ প্রযুক্তি নীতিমালা’ এবং ‘শিক্ষা নীতিমালা’ নিয়ে মন্ত্রীদের সাথে দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় অংশ নিয়ে সরাসরি মতামত প্রদান করেন বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের শতাধিক শিক্ষার্থী। এসময় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন অতিথিরা।

আয়োজক সূত্র জানিয়েছে, বাংলাদেশের গণতান্ত্রিক চর্চাকে আরও বেশি শক্তিশালী করার প্রয়াসে ‘সিআরআই’ এর একটি উদ্যোগের নাম ‘পলিসি ক্যাফে’। পলিসি ক্যাফে মূলত: তারুণদের জন্য একটি মঞ্চ। যার মাধ্যমে দেশের বিভিন্ন নীতিমালা প্রণয়ণের বিভিন্ন পর্যায়ে তারুণ্যের বক্তব্যকে সম্পৃক্ত করার কাজ করা হয়। এর অংশ হিসেবেই এই সভার আয়োজন করে সিআরআই।

– তুহিন মাহমুদ

Related posts

*

*

Top