সিটিআইটি কম্পিউটার মেলা শুরু বুধবার

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের অন্যতম কম্পিউটার বাজার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে বুধবার থেকে শুরু হচ্ছে সর্ববৃহৎ একক কম্পিউটার প্রদর্শনী ‘সিটিআইটি ২০১৪’। ‘বিশ্বকাপের খেলা-প্রযুক্তির মেলা’ স্লোগান নিয়ে শুরু হওয়া এ প্রদর্শনী আগামী ৮ মার্চ পর্যন্ত চলবে।

যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের প্রধান অতিথি হিসেবে মেলার উদ্বোধন করবেন। বিশেষ অতিথি থাকবেন ডাক, টেলিযোগাযোগ এবং তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক ও বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের সভাপতি নাজমুল হাসান পাপন।

City IT Fair 2014 Press Conference-TechShohor

প্রতিবারের মতো এবারও মেলায় বিশেষ আকর্ষণ থাকছে বিভিন্ন পণ্যের ওপরে বিশেষ মূল্যছাড়, তথ্যপ্রযুক্তির সর্বাধুনিক পণ্যের সমাহার।

বিসিএস কম্পিউটার সিটির নিচ তলায় সজ্জিত মঞ্চে প্রতিদিন থাকছে সেলিব্রেটি শো। মেলা উপলক্ষে শিশু চিত্রাঙ্কন, গেমিং, ডিজিটাল ফটোগ্রাফি, বিতর্ক ও কুইজ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হবে। রক্তদান কর্মসূচি ছাড়াও বেশ কিছু ভিন্নধর্মী আয়োজন।

মঙ্গলবার বিসিএস কম্পিউটার সিটিতে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে প্রদর্শনীর বিভিন্ন বিষয় তুলে ধরেন মেলার আহবায়ক এএনএম কামরুজ্জামান।

উপস্থিত ছিলেন প্রদর্শনীর অভ্যর্থনা সাব কমিটির মজিবুর রহমান স্বপন, স্পন্সর সাব কমিটির আকতার হোসেন খান, মিডিয়া সাব কমিটির রফিকুল আলম, ডিসিপ্লিন সাব কমিটির মজহারুল ইমাম সিনা, অবকাঠামো/লজিষ্টিক সাব কমিটির নাজমুল আলম ভূইয়া জুয়েল, অর্থ সাব কমিটির মনজুরুল হক মোমিন, প্রোগ্রাম/ম্যানেজমেন্ট সাব কমিটির আল মামুন খান, প্রচার সাব কমিটির রফিকুল ইসলাম, প্রাইজ সাব কমিটির এ.কে.এম. আতিকুর রশীদ, উদ্বোধনী সাব কমিটির মোঃ জিয়াউল হাসান ছিদ্দিক এবং ক্লোজিং সাব কমিটির মোঃ জাহিদুল আলম প্রমুখ।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, বিসিএস কম্পিউটার সিটির নিজস্ব আঙ্গিনায় প্রায় ২ লাখ বর্গফুট জায়গায় শুরু হচ্ছে এ প্রদর্শনী। মেলায় তথ্য প্রযুক্তির অতি পরিচিত ব্র্যান্ডের কম্পিউটার সামগ্রী, প্রায় ১৬০টি স্থায়ী প্রতিষ্ঠানে প্রদর্শনসহ সুলভ মূল্যে বিক্রয় করা হবে।

এসব পণ্যের মধ্যে রয়েছে- কম্পিউটার হার্ডওয়ার সফটওয়ার, নেটওয়ার্ক ডাটা কমিউনিকেশন, মাল্টিমিডিয়া আইসিটি শিক্ষা উপকরণ, ল্যাপটপ, পামটপ, ডিজিটাল জীবনধারা ভিত্তিক প্রযুক্তি ও পণ্য।

মেলায় থাকছে একাধিক আলোচনা অনুষ্ঠান, কম্পিউটার বিষয়ক অনুষ্ঠান, বিনামূল্যে ইন্টারনেট ব্যবহারের সুযোগ থাকবে। মেলা উপলক্ষে গুনীজন সন্মাননাও দেওয়া হবে।

সকাল ১১ টায় মেলা উদ্বোধন শেষে তা দর্শনার্থীদের জন্য খোলা হবে। প্রবেশমূল্য ধরা হয়েছে ১০ টাকা। প্রতিবারের মতো এবারও মেলায় শিক্ষার্থীরা পরিচয়পত্র দেখিয়ে বিনামূল্যে প্রবেশের সুযোগ পাবে।

এ ছাড়া প্রতিবন্ধীরা বিনামূল্যে মেলায় প্রবেশে অগ্রাধিকার পাবেন। প্রতিদিন প্রবেশ টিকেটের ওপর র‍্যাফেল ড্রয়ের মাধ্যমে দেওয়া হবে আকর্ষণীয় সব প্রযুক্তিপণ্যের পুরস্কার।

মেলাার গোল্ড স্পন্সর আসুস, অ্যাভিরা, স্যামসাং, এইচপি এবং পেমেন্ট পার্টনার বিকাশ। মিডিয়া পার্টনার হিসেবে থাকছে এটিএন বাংলা, বাংলাদেশ প্রতিদিন, এবিসি রেডিও এবং বাংলানিউজ২৪.কম।

– তুহিন মাহমুদ 

Related posts

*

*

Top