Maintance

ড্রোনের জন্য থার্মাল ক্যামেরা

প্রকাশঃ ৭:০০ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১০, ২০১৭ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:১৬ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১০, ২০১৭

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : মার্কিন ক্যামেরা প্রতিষ্ঠান ফ্লির ড্রোনের জন্য ব্যবহার উপযোগী থার্মাল ইমেজিং ক্যামেরা উন্মোচন করেছে। লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত কনজিউমার ইলেক্ট্রনিকস শো (সিইএস) ২০১৭-তে ‘ডুয়ো’ নামে এই ক্যামেরা উন্মোচন করে প্রতিষ্ঠানটি।

৭০-এর দশক থেকেই থার্মাল ইমেজিং ডিভাইস তৈরি করে আসছে ফ্লির। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে স্মার্টফোন এবং স্মার্টফোনের আনুষঙ্গিক ডিভাইসে এই প্রযুক্তি যোগ করে আসছে প্রতিষ্ঠানটি, জানিয়েছে প্রযুক্তিবিষয়ক সাইট সিনেট।

Flir+debuts+its+Duo+thermal+camera+for+drones+at+CES+2017
এ ধরনের থার্মাল ক্যামেরাগুলো বিভিন্ন পরিবেশের হটস্পট চিহ্নিত করতে পারে। কোনো বস্তু উষ্ণ কিনা তাও বলে দিতে পারে এই প্রযুক্তি। বিভিন্ন বস্তুর তাপমাত্রা দেখাতে এটি ভিন্ন ভিন্ন রঙ ব্যবহার করে থাকে। এক্ষেত্রে উষ্ণতা বোঝাতে কমলা আর শীতল বস্তু বোঝাতে নীল রঙ ব্যবহার করা হয়।

ড্রোনের সঙ্গে যুক্ত করে ডুয়ো থার্মাল ক্যামেরাটি দিয়ে কৃষি ক্ষেতের সেচ ব্যবস্থা, কোনো নির্দিষ্ট স্থানে কোনো পশু হারিয়ে গেলে তা খুঁজে বের করা যেতে পারে।

নতুন ক্যামেরাটি অ্যাকশন ক্যামেরা গোপ্রো-এর সমান। এতে দুইটি ১০৮০ পিক্সেলের এইচডি ক্যামেরা ব্যবহার করা হয়েছে।

থার্মাল ক্যামেরাগুলো চাইলেই সাধারণ ক্যামেরা হিসেবে ব্যবহার করা যায়। কিন্ত দুইটি মোড একসঙ্গে ব্যবহার করলে ‘আসল মজাটা’ দেখা যায়। এক্ষেত্রে এইচডি ক্যামেরাকে থার্মাল ফটো দিয়ে প্রতিস্থাপন করা হয়। যার ফলে খুব তীক্ষ্ণ থার্মাল ছবি পাওয়া যায়।

ব্যবসায়িক কাজে ব্যবহারের লক্ষ্যেই ‘ডুয়ো’ ক্যামেরাটি বাজারে আনছে ফ্লির। আর পেশাদার কাজের জন্য ‘ডুয়ো আর’ নামে আরেকটি ক্যামেরা আনছে এই প্রতিষ্ঠান। ক্যামেরাগুলো যেকোনো ড্রোনের সঙ্গেই ব্যবহার করা যাবে বলে জানানো হয়েছে।

উভয় ক্যামেরাই এখন বাজারে পাওয়া যাচ্ছে। ‘ডুয়ো’ ক্যামেরার দাম রাখা হয়েছে ৯৯৯ মার্কিন ডলার এবং ‘ডুয়ো আর’-এর মূল্য ১২৯৯ মার্কিন ডলার।

বিডিনিউজ২৪.কম থেকে

*

*

Related posts/