Maintance

এসিএম-আইসিপিসিতে ঢাকার চ্যাম্পিয়ন 'বুয়েট রেও'

প্রকাশঃ ৮:১৬ অপরাহ্ন, নভেম্বর ১৯, ২০১৬ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:১৬ অপরাহ্ন, নভেম্বর ১৯, ২০১৬

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিশ্বের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ প্রোগ্রামিং প্রতিযোগিতা আন্তর্জাতিক কলেজিয়েট প্রোগ্রামিং বা এসিএম-আইসিপিসিতে ঢাকা অঞ্চলের চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বুয়েটের একটি দল ‘বুয়েট রেও’। ১০টি সমস্যার মধ্যে সবগুলোর সমাধান করে দলটি চ্যাম্পিয়ন হয়েছে।

এছাড়াও ৯টি সমস্যা সমাধান করে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে বুয়েটের আরেকটি দল বুয়েট অমনিট্রিক্স, তৃতীয় অবস্থানে রয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল ডিইউ_সেন্সরড। তারা করেছে আটটি সমস্যার সমাধান।

শনিবার রাজধানীর ফার্মগেটের ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকে আন্তর্জাতিক প্রতিযোগিতাটির ঢাকা পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

ACM_ICPC_DHAKA_TECHSHOHOR-2

এবার মোট ১২৫টি দল চূড়ান্ত প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়। আর মোট এক হাজার ৬৬৫টি দল প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে অনলাইনে নিবন্ধন করে। সেখান থেকে প্রাথমিক বাছাইয়ের পর ১২৫ দল চূড়ান্ত পর্বে অংশ নিতে পারে।

আর প্রথমবারের মতো মেয়েদের ১২৯টি দল প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে নিবন্ধন করেছিল। সেখান থেকে চূড়ান্ত পর্বে সুযোগ পেয়েছে চারটি দল।

এই ঠিকানায় ঢাকা পর্বের চূড়ান্তদের তালিকা পাওয়া যাবে।

শুক্রবার রাজধানীর ফার্মগেটের এশিয়া প্যাসিফিক ইউনিভার্সিটিতে দুই দিনের এই প্রতিযোগিতার শুরু হয়। যার আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়টির কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগ।

ঢাকা অঞ্চলের প্রতিযোগিতা আয়োজনে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন এসিএম-আইসিপিসির এশিয়া অঞ্চলের পরিচালক অধ্যাপক সি জে হুয়াং। বাংলাদেশে ভবিষ্যতে প্রতিযোগিতাটির চূড়ান্ত পর্ব আয়োজনে সামনের বছরেই প্রতিনিধি দল আসবে। এবং আয়োজন করা যায় কিনা তার সম্ভাব্যতা দেখবেন বলেও জানান তিনি।

Result-ACM_ICPC
দুই দিনের প্রতিযোগিতার মূল পর্ব শনিবার হলেও শুক্রবার বিভিন্ন স্কুল কলেজের শিক্ষার্থীরা প্রোগ্রামিংয়ে অংশ নেন।

বাংলাদেশ থেকে নির্বাচিত তিন থেকে চারটি দল আগামী বছরের ২০ থেকে ২৫ মে যুক্তরাষ্ট্রের সাউথ ডাকোটায় এসিএম-আইসিপিসির বিশ্ব আসরের চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেবে।

ঢাকা অঞ্চলের সমাপনীতে বিভিন্ন ক্যাটাগরিতে বিজয়ীদের মধ্যে সর্বমোট চার লাখ টাকা পুরস্কার দেওয়া হয়। এছাড়াও মেয়েদের জন্য আলাদা করে বেশ কয়েকটি ক্যাটাগরিতে পুরস্কার দেওয়া হয়।

১৯৯৮ সাল থেকে এসিএম-আইসিপিসির মূল পর্বে বাংলাদেশ নিয়মিত অংশ নিয়ে আসছে। গত বছরের প্রতিযোগিতায়ও বাংলাদেশ থেকে তিনটি বিশ্ববিদ্যালয় চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয় এবং দক্ষিণ এশিয়ার মধ্যে অনেক ভালো ফল করে।

সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। এছাড়াও তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, বুয়েটের অধ্যাপক মোহাম্মাদ কায়কোবাদ, জে সি হুয়াং, এশিয়া প্যাসিফিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য জামিলুর রেজা চৌধুরীসহ আরও অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/