শিশুদের দেওয়া হল ডিজিটাল ‘হাতেখড়ি’

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ‘অ-তে অজগর ঐ আসছে তেড়ে’। ‘আ-তে আমটি আমি খাবো পেড়ে।’ এখনো বাংলার ৬৮ হাজার গ্রামের পাঠশালার পাশ দিয়ে গেলে কানে আসে বর্ণমালা শিখতে আশা শিশুদের এরকম তারস্বর। তবে শহুরে জীবনে এ দিন হারিয়ে গেছে। ডিজিটাল বৈষম্যে এ শিশুরা আদর্শলীপি চোখেই দেখে নি। স্কুলে যাবার আগেই তাদের অ-আ শেখা শেষ। আভিভাবকদের নজর এ,বি,সি,ডি’র দিকেই বেশি। তবে আর কতই বা পিছিয়ে থাকবে ৬৮ হাজারের শিশুরা। অন্ততঃ ডিজিটাল বাংলাদেশের এই যুগে এটা মেনে নেওয়া যায় না। মানতে পারছেন না ‘সূর্যমূখী’র অ্যাপ নির্মাতা দলও। তাইতো প্রধান নির্বাহী ফিদা হকের নেতৃত্বে দীর্ঘ ১ বছর সময় নিয়ে তারা তৈরি করেছে ডিজিটাল আদর্শলীপি ‘হাতেখড়ি’।

বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল মিলনায়তনে আজ অনেক আয়োজন করেই শতাধিক শিশুকে দেওয়া হলো ডিজিটাল ‘হাতেখড়ি’। শুধু ‘সূর্যমূখী’ টিম নয়, হাতেখড়ি অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী আব্দুল লতিফ সিদ্দিকী, প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, সাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, আইসিটি সচিব এন আই খান, এটুআই প্রকল্প পরিচালক কবির বিন আনোয়ার, বেসিস সভাপতি শামীম আহসান, প্রথম বাংলাদেশী এভারেস্ট জয়ী মুসা ইব্রাহিম, সিম্ফনির পরিচালক রেজওয়ান হক এবং বাংলাদেশ আইসিটি জার্নালিস্ট ফোরামের (বিআইজেএফ) সভাপতি মুহম্মদ খান।

Hatekhori_App-TechShohor

ফিদা হক জানালেন, ‘অ্যাপটিতে বর্ণমালা শেখার পাশাপাশি রয়েছে হাতে লেখা অনুশীলনের উপায়। শিশুরা বর্ণ দিয়ে শব্দ ও বাক্যও তৈরি করতে পারবে এখানে। আসলে তারা খেলতে খেলতে শিখতে পারবে বাংলা ভাষা। আর ভাষার মাস ফেব্রুয়ারিতে তাই শিশুদের জন্য এই উপহার। গুগল প্লে স্টোর থেকে বিনা মূল্যে ডাউনলোড করে স্মার্টফোনে ব্যবহার করা যাবে অ্যাপটি।’

লতিফ সিদ্দিকী বললেন, ‘সবার হাতে হাতে যেদিন স্মার্টফোন থাকবে, সেদিনই দূর হবে ডিজিটাল বৈষম্য। আর সেই লক্ষেই কাজ করছে সরকার তথা আইসিটি মন্ত্রণালয়।’

জুনাইদ আহমেদ পলক হাতেখড়ির প্রশংসা করে বললেন, ‘খেলার ছলে বাংলা বর্ণমালা শেখানোর এই উদ্যোগ সত্যিই আভিবাদনযোগ্য। আমরা যদি ক্ষুধা, দারিদ্র এবং দূর্নিতীমুক্ত বাংলাদেশ গড়তে চাই, তাহলে সবার আগে ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়ন করতে হবে। যদি তা করা যায়, তাহলে জীবনই কেবল সহজ হবে না, নাগরিক দূর্ভোগও শূণ্যের কোঠায় নেমে আসবে।’

অনুষ্ঠানে সেলিনা হোসেন, এন আই খান, কবির বিন আনোয়ার, শামীম আহসান, মুসা ইব্রাহিম, রেজওয়ান হক এবং মুহম্মদ খানও হাতেখড়িতে সাধুবাদ জানিয়ে বক্তব্য রাখেন।

Related posts

*

*

Top