যুক্তরাষ্ট্রে ৭ কোটি গ্রাহকের তথ্য হ্যাক

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম খুচরা বিপণন সংস্থা ‘টার্গেটের’ সাত কোটি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি হয়েছে। দেশটির ইতিহাসে সবচেয়ে বড় এ তথ্য জালিয়াতির ঘটনা ঘটে নভেম্বরে।

হ্যাকররা সাত কোটি গ্রাহকের ক্রেডিট কার্ড ও ডেবিট কার্ডের ব্যক্তিগত তথ্য চুরি করেছে বলে স্বীকার করেছে টার্গেট কর্তৃপক্ষ। এর আগে তারা ধারণা করেছিল ৩ কোটি তথ্য চুরি হয়েছিল।

বিশাল এ তথ্য চুরির ঘটনা শুরু হয় থ্যাঙ্কস গিভিংয়ের আগের দিন ২৯ নভেম্বর থেকে। ঘটনা প্রকাশ্যে আসার পরই রীতিমত আতঙ্কে রয়েছেন টার্গেটের ক্রেতারা। তবে এখন পর্যন্ত কোনো গ্রাহকের ক্ষতির তথ্য জানা যায়নি। কারা এ কাজ করেছ সেটিই খুঁজে বরে করা যায়নি।

Target hack_techshohor

নভেম্বরের প্রথম যখন ঘটনাটি ধরা পড়ে তখন প্রতিষ্ঠানটি জানিয়েছিল ৩ কোটি গ্রাহকের তথ্য চুরি হয়েছিল। কিন্তু বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে জানানো হয়েছিল এর চেয়ে বেশি ব্যবহাকারীর তথ্য চুরি হয়েছিল।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ১৭৯৭টি দোকান রয়েছে টার্গেটের। সবকটির পেমেন্ট সিস্টেমে হ্যাকাররা তাদের জাল ছড়িয়েছিল। প্রতিটি দোকানের কার্ড সোয়াইপ মেশিনে তথ্য চুরির কোড ঢুকিয়ে দিয়েছিল হ্যাকাররা।

টার্গেট কর্তৃপক্ষ আরও জানায় হ্যাকিংয়ের মাধ্যমে হ্যাকাররা গ্রাহকের ক্রেডিট কার্ড, নাম, ঠিকানা, মোবাইল ফোন নম্বর এবং মেইল আইডির সকল তথ্য চুরি করে।

রিটেইলারটির চেয়ারম্যান, প্রেসিডেন্ট ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা গ্রেগ স্টেইনহাফেল বলেন, ‘তথ্য চুরি হওয়ার ব্যাপারটি খুব হতাশজনক। আমরা এ ঘটনার জন্য আন্তরিকভাবে দু:খিত।’

টার্গেট গ্রাহকদের বিনামূল্যে ক্রেডিট পর্যবেক্ষণ কার্ড এবং তথ্য সুরক্ষার জন্য এক বছরের পরিকল্পনা গ্রহণ করেছে। তবে তা কিছু গ্রাহককে মামলা করা থেকে বিরত রাখতে পারেনি।

–     বিবিসি অবলম্বনে

ট্যাগ

Related posts

*

*

Top