Maintance

কম্পিউটারের ভ্যাট প্রত্যাহারে অনুরোধ করা হবে : তথ্যমন্ত্রী

প্রকাশঃ ৪:২৮ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২০, ২০১৬ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৪:২৮ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২০, ২০১৬

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কম্পিউটার ও কম্পিউটার যন্ত্রাংশ আমদানিতে আরোপ করা ভ্যাট প্রত্যাহারের জন্য প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে অনুরোধ করবেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু।

তিনি বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে হলে অবশ্যই প্রযুক্তিপণ্য বিশেষ করে কম্পিউটারের উপর থেকে ভ্যাট প্রত্যাহার করতে হবে। এর জন্য আমি প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রীর কাছে তা প্রত্যাহারের অনুরোধ জানাবো।

বুধবার রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের কম্পিউটার সিটি সেন্টারে (মাল্টিপ্লান) ছয়দিন ব্যাপি ডিজিটাল আইসিটি মেলার উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তথ্যমন্ত্রী এমন আশ্বাস দেন।

এসময় হাসানুল হক ইনু বলেন, দেশের প্রতিটি এলাকায় ইন্টারনেট পৌঁছে দেওয়ার কাজ চলছে। এখন ইউনিয়ন পর্যায়ে ডিজিটাল সেন্টার থেকে মানুষ নানান তথ্য পাচ্ছেন। যা ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়তে অবদান রাখছে।

‘ভিশন টু সার্ভ গো উইথ আইসিটি’স্লোগান দিয়ে সপ্তম বারের মতো শুরু হয়েছে এবারের মেলা। মেলা চলবে ২৫ জানুয়ারি পর্যন্ত।

mela

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্যে সংসদ সদস্য ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, ইতোমধ্যে দেশে হাইটেক পার্কের কাজ শুরু হয়েছে, সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্ক যাত্রা শুরু করেছে, অনুষ্ঠিত হয়েছে বিপিও সামিট, ডিজিটাল ওয়ার্ল্ডসহ বেশ কিছু আয়োজন। এর সবই ডিজিটাল বাংলাদেশ বাস্তবায়নে ভূমিকা রাখছে, যেমন কম্পিউটার মেলাগুলো রাখছে।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন ইউনিভার্সিটি অব এশিয়া প্যাসিফিকের উপাচার্য ও শিক্ষাবিদ অধ্যাপক ড. জামিলুর রেজা চৌধুরী, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সাবেক সভাপতি প্রযুক্তিবিদ মোস্তাফা জব্বার, বৃহত্তর এলিফ্যান্ট রোড দোকান মালিক সমিতির প্রধান উপদেষ্টা মোস্তফা মহসীন মন্টু, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির সভাপতি এ এইচ এম মাহফুজুল আরিফ, বাংলাদেশ দোকান মালিক সমিতির চেয়ারম্যান এস.এ. কাদের কিরণ ও কম্পিউটার সিটি সেন্টার দোকান মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার সুব্রত সরকার।

বক্তাদের সবার দাবি ছিল কম্পিউটার ও কম্পিউটার যন্ত্রাংশ থেকে চার শতাংশ ভ্যাট যেন অচিরেই প্রত্যাহার করে নেওয়া হয়।

মাল্টিপ্লান সেন্টারের এবারের মেলায় প্রায় সাড়ে ছয়’শো দোকান অংশ নিচ্ছে। যেখানে বাংলাদেশের শীর্ষ আইটি পণ্য আমদানীকারক ও ব্যবসায়ীরা বিভিন্ন ব্র্যান্ডের আধুনিক প্রযুক্তি প্রদর্শন করছে।

ছাড় আর উপহারের পাশাপাশি মেলায় বিনোদনের জন্য গেইমিং জোন, মুভি জোন, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা, সেলফি প্রতিযোগিতা, শীতকালীন পিঠা উৎসব, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানসহ নানা আয়োজন রাখা হচ্ছে। তৃতীয় থেকে১০ম তলা পর্যন্ত বসছে এবারের মেলা।

এছাড়াও মেলার শেষ দিনে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিশেষ অবদানের জন্য দেওয়া হবে গুণীজন সংবর্ধনা।

মেলার গোল্ড স্পন্সর এইচপি, আসুস, স্যামসাং ও লেনোভো। সিলভার স্পন্সর লজিটেক এবং এম এস আই। এছাড়া স্পন্সর হিসেবে আছে টিপি লিংক, রেপো এবং ইসেট।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/