Maintance

তহবিল সংগ্রহ ও বিনিয়োগের লক্ষ্যে ফেনক্সের আনুষ্ঠানিক যাত্রা

প্রকাশঃ ৬:০৩ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৭, ২০১৫ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৯:২৩ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৭, ২০১৫

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তথ্যপ্রযু্ক্তি, ইন্টারনেট ও মিডিয়া সেক্টরে ১৬০০ কোটি টাকা বিনিয়োগের লক্ষ্যে বাংলাদেশে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রা শুরু করল যুক্তরাষ্ট্রের সিলিকন ভ্যালির শীর্ষস্থানীয় ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানি ফেনক্স।

আগামী ১০ বছরে এই অর্থ দেশের ৪০ থেকে ৪৫টি স্টার্টআপ কোম্পানিতে বিনিয়োগ করবে ফেনক্স। শুরুতে ই-কমার্স স্টার্টআপ বিনিয়োগে অগ্রাধিকার পাচ্ছে।

বিনিয়োগ ছাড়াও দেশের ব্যাংক, ইন্স্যুরেন্স কোম্পানিসহ বিভিন্ন অর্থ লগ্নিকারী প্রতিষ্ঠান থেকে ক্যাপিটাল সংগ্রহেরও লক্ষ্য রয়েছে ফেনক্সের। যদিও এ অর্থ দেশের স্টার্টআপেই বিনিয়োগ করতে চায় তারা। সেক্ষেত্রে বিনিয়োগের পরিমান ১৬০০ কোটি টাকা থেকে বাড়বে।

রোববার রাজধানীর হোটেল ওয়েস্টিনে এক অনুষ্ঠানে পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শাহরিয়ার আলম দেশে ফেনক্সের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকের সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে ফেনক্সের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী ড. আনিস উজ্জামান, ফেনক্সের জেনারেল পার্টনার ও বেসিস সভাপতি শামীম আহসান এবং ফেনক্স পার্টনার আবুল নুরুজ্জামান উপস্থিত ছিলেন।

শাহরিয়ার আলম বলেন, ফেনক্সের নেটওয়ার্ককে কাজে লাগিয়ে বাংলাদেশ অন্যান্য দেশের সঙ্গে ইকোনোমিক ডিপ্লোমেসিতে বেটার ডিল এবং নেগোসিয়েশনে যেতে পারবে।

জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, আইসিটি ইন্ডাষ্ট্রিতে ইনভেস্টমেন্টের দিক থেকে ফেনক্সের অংশগ্রহণ এই দেশের ইনভেস্টমেন্টের সংস্কৃতিকে আরও সমৃদ্ধ করবে।

আরও পড়ুন: ফেনক্সের আনুষ্ঠানিক যাত্রা রোববার, লক্ষ্য ১৬০০ কোটি টাকা বিনিয়োগ

fenox

ড. আনিস উজ্জামান বলেন, বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রচলিত চিন্তাধারার বাইরে গিয়ে সৃজনশীল ও সম্ভাবনাময় নতুন উদ্যোগকে আমরা প্রাধান্য দিয়ে থাকি। এক্ষেত্রে বাংলাদেশে মেধাবী এবং সৃজনশীল তারুণ্যের অভাব নেই। দেশের সরকারি-বেসরকারি নানা উদ্যোগে আইটি অবকাঠামো উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশ এক্ষেত্রে দারুণভাবে অগ্রসর হচ্ছে। আমরা এই সুযোগটিকে কাজে লাগাতে চাই।

শামীম আহসান বলেন, অনেকদিন ধরেই আমরা চেষ্টা করে যাচ্ছিলাম বিশ্বমানের ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কাউকে এই দেশে নিয়ে আসতে। অবশেষে আমরা ফেনক্সের মতো আন্তর্জাতিক একটি প্রতিষ্ঠানকে বাংলাদেশে পাচ্ছি যারা এখানে ইনভেস্টমেন্টের জন্য অনেক বড় ফান্ড নিয়ে এসেছে।

ফেনক্স বাংলাদেশে নতুন ব্যবসায়িক উদ্যোগের পাশাপাশি বুয়েট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো দেশের বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে ইউরোপ-আমেরিকার বিশ্ববিদ্যালয়ের সম্পর্ক উন্নয়নেও কাজ করবে ।

যদিও বছরখানেক আগেই বাংলাদেশে অনানুষ্ঠানিক কার্যক্রম শুরু করেছে ফেনক্স। ২০১৪ সালের নভেম্বরে প্রিয় ডটকম এবং পরে সহজ ডটকমে বিনিয়োগ করে এ ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানিটি।

আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন, তথ্যপ্রযু্ক্তি সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদার, ঢাকা চেম্বার অব কমার্স ইন্ডাস্ট্রিজের সভাপতি হোসেন খালেদ, স্টান্ডার্ড ব্যাংকের চেয়ারম্যান কাজী আকরাম উদ্দিন আহমেদ, ডাচ-বাংলা ব্যাংকের চেয়ারম্যান সায়েম আহমেদ, বাংলাদেশ ব্যাংকের কার্যনির্বাহী পরিচালক আহসান উল্লাহ।

এসময় বিভিন্ন ব্যাংক, বীমা ও বেসরকারি ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

আমেরিকা, ইউরোপ, জাপান ও দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার ৭টি দেশে ১৩ দপ্তর রয়েছে ফেনক্সের। বাংলাদেশের ফেনক্সের এই অফিস ১৪তম। বিশ্বের হাজার হাজার ভেঞ্চার ক্যাপিটাল কোম্পানির মধ্যে ফেনক্সের অবস্থান ১৯তম।

ফেনক্স ভেঞ্চার ক্যাপিটাল ২০১১ সালে যাত্রা শুরু করে। কোম্পানিটি বিভিন্ন বহুজাতিক প্রতিষ্ঠান ও নতুন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসাগুলোতে এন্টারপ্রাইজ পার্টনারশিপে সহায়তা করে থাকে। এছাড়াও ফেনক্স নতুন প্রতিষ্ঠিত ব্যবসায়ের কার্যক্রমে সহায়তা, নতুন আন্তর্জাতিক বাজারে প্রবেশ এবং মার্জার অ্যান্ড ইকুইজিশন ও আইপিওতে যাওযার সহায়তা দেয়।

তথ্যপ্রযুক্তি, তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক স্বাস্থ্যসেবা, ইন্টারনেট, ক্লাউড কম্পিউটিং, বিগ ডাটা, মোবাইল ডিভাইস, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, পেইমেন্ট সিস্টেম এবং পরবর্তী প্রজন্মের প্রযুক্তি নির্ভর উদ্ভাবনে বিনিয়োগ করে থাকে ফেনক্স।

সাইডকার, জিবো, শেয়ারদিস, র্যা পজিনিয়াস, বটলনস, টেক ইন এশিয়া, জেটলোর, লার্ক,মেট্যাপ্স, আই মানি, জু, ইনফোকমের মতো অসংখ্য প্রতিষ্ঠানে ইতিমধ্যে বিনিয়োগ করেছে এই ভেঞ্চার।

ফেনক্সের বর্তমান ভেঞ্চার ক্যাপিটাল দেড় বিলিয়ন ডলার।

আল-আমীন দেওয়ান

*

*

Related posts/