আশা ভঙ্গের বেদনায় প্রযুক্তি পণ্য ব্যবসায়ীরা

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : অবরোধকে সঙ্গী করে শুরু হলো নতুন বছর। হাসি মুখে নতুন বছরকে বরণ করলেও প্রথম দিনেই আশা ভঙ্গের বেদনায় পড়ছেন প্রযুক্তি পণ্যের বাজারের ব্যবসায়ীরা। অবরোধের মাঝেও দোকান খোলা রাখলেও যথারীতি ক্রেতাবিহীন বাজারে হতাশায় সময় কাটিয়েছেন তারা। মাঝের কয়েক দিনে কিছু ক্রেতা এলেও রাজধানীর বাজারগুলোতে গত দু’দিনে দেখা গেছে সেই পুরনো চিত্র। ক্রেতার অপেক্ষায় অবসর সময় গুণছেন বিক্রেতারা।

বিদায়ী বছরের ২৬ নভেম্বর থেকে বৃহস্পতিবার পর্যন্ত ২৩ দিনের অবরোধে অন্য সব খাতের মতো প্রভাব পড়েছে প্রযুক্তি পণ্যের বাজারেও। ক্রেতা যেমন নেই, তেমনি পণ্য পরিবহন বন্ধ থাকায় প্রয়োজনীয় কিছু পণ্যের সরবরাহ সংকট দেখা গেছে।

computer market_techshohor

আগারগাঁওয়ে দেশের সবচেয়ে বড় প্রযুক্তি পণ্যের বাজার বিসিএস কম্পিউটার সিটি ঘুরে দেখা গেছে, হার্ডড্রাইভের সংকট এখনও কাটেনি। অবরোধ উপেক্ষা করে কিছু ক্রেতা এলেও পছন্দসই হার্ডড্রাইভ না পেয়ে ফিরতে হয়েছে তাদের। আবার যারা কিনেছেন তাদের গুনতে হয়েছে বেশি দাম।

সংকট থাকায় যথারীতি বিক্রেতারা হার্ডড্রাইভের দাম বাড়িয়েছেন।আগের চেয়ে ৪০০-৭০০ টাকা বেশি দামে এ পণ্যটি বিক্রি হতে দেখা গেছে।

মগবাজার থেকে আগত ক্রেতা  শিহাব আহমেদ বলেন, প্রয়োজনের কারণে দাম বেশি দিয়ে হলেও কিনতে হলো হার্ডড্রাইভ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, মনিটরের দাম আগের মতই রয়েছে। বিক্রেতারা জানান, বাজারে স্যামসাং মনিটরের চাহিদা একটু বেশি। এ ব্র্যান্ডের ১৭ ইঞ্চি মনিটর বিক্রি হচ্ছে ৯ হাজার টাকায়। আর ৩২ ইঞ্চির মনিটরের দাম ৩৪ হাজার টাকা।
বাজারে ডেলের মনিটরেরও চাদিহা রয়েছে। এ ব্র্যান্ডের ১৯ ইঞ্চি মনিটর সাত হাজার ৬০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।ডেলের ২১ ইঞ্চির মনিটর বিক্রি হচ্ছে ১৫ হাজার টাকায়।

বিক্রেতারা জানান, ল্যাপটপের দাম কিছুটা কমেছে। মডেল অনুযায়ী পাঁচ’শ থেকে এক হাজার টাকা কমেছে।
এ ছাড়া অন্যান্য প্রযুক্তি পণ্যের মধ্যে পেন ড্রাইভ, মাউস, কিবোর্ড, গ্রাফিক্স কার্ড,মেমরি কার্ড, গেইমিং কনসোল, রাউটারের দাম আগের মতোই আছে। তবে কিছু কিছু দোকানে কম লাভে পণ্য বিক্রি করায় কিছু পণ্যের দামও কমেছে। দোকানের খরচ তুলতেই এমন করতে হচ্ছে বলে দোকানীরা জানান।

সাইবার প্লাজার এক কর্মকর্তা জুয়েল জানান, ‘নতুন বছর নিয়ে প্রতিবার কিছু আশা থাকলেও এবার আমরা হতাশা। বিক্রি প্রায় নেই বললেই চলে। তবে দু’দিন অবরোধ না থাকায় কিছুটা ভালো বিক্রি হয়েছিল।’

Related posts

*

*

Top