ভারতীয় ২৭’শ ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বাংলাদেশি হ্যাকাররা

তুহিন মাহমুদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : কাশ্মীরে হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে ভারতীয় ২ হাজার ৭’শ এর অধিক ওয়েবসাইট হ্যাক করেছে বাংলাদেশি হ্যাকার গ্রুপ ‘বাংলাদেশ গ্রে হ্যাট হ্যাকারস’। বুধবার ফেইসবুক গ্রুপে হ্যাকিংয়ের দায় স্বীকার করেছে হ্যাকার গ্রুপটি।

হ্যাকাররা হ্যাকিংয়ের পর সাইটে কাশ্মীরের সাধারণ মানুষের উপর ভারতীয় আইন প্রয়োগকারী সংস্থার হামলার ছবিসহ একটি ঘোষনা দিয়েছে।

Indian website hacked by BGHH-TechShohor

ঘোষনাতে ভারতের সরকারকে লক্ষ্য করে বলা হয়, “এখন সময় ভারতের কোমলমতি মানুষদের সত্য কথা জানানোর। কাশ্মীরে তোমাদের অবৈধ দখলদারিত্বের ঘটনাটি সম্পর্কে তারা জানে না। তোমরা তাদেরকে অন্ধ করে রেখেছো এই বলে যে, কাশ্মীর ভারতের একটি অংশ। কিন্তু বাস্তবতা ভিন্ন।

মুজাহিদ্দিন নাম করে তোমরা অনেক সাধারণ কাশ্মীর জনগনকে হত্যা করেছে। তোমাদের সেনাবাহিনী কাশ্মীরের স্বাধীনতা ফিরে পেতে ও নির্যাতন বন্ধ করার প্রতিবাদকারী শিশুসহ অনেক মানুষকে কারারুদ্ধ ও হত্যা করেছে। অনেক মহিলাকে ধর্ষন করা হয়েছে। এরপরেও তোমরা মনে করো, কাশ্মীর ভারতেরই অংশ। কিন্তু আমরা সেটা বিশ্বাস করি না।

এই বিষয়ে তোমাদের কাছে কিছু প্রশ্ন আছে। এসব হত্যাকান্ড, নির্যাতন তোমাদের কিছু এনে দিয়েছে? তোমাদের ধর্মও কি এটা সমর্থন করে? এত মানুষকে মারতে তোমাদেরকে একটুও কষ্ট লাগে না”।

হ্যাকাররা আরও বলে, প্রতিটি জাতিরই এমনকি প্রতিটি মানুষেরই স্বাধীনভাবে জীবন ধারণের অধিকার রয়েছে। তোমরা যেখান থেকে এসেছো সেখানেই ফিরে যাও। সেনাবাহিনীকে ফিরিয়ে নাও। এখানকার মানুষদের শান্তিতে বাঁচতে দাও”।

বাংলাদেশ গ্রে হ্যাট হ্যাকারস-এর অ্যাডমিন রোটেটিং রটোর জানিয়েছেন, তিনি ছাড়াও Dr@cul@, মুহাম্মাদ বিলাল, এব্লেজ এভার, সনেট, আশিক, কাইয়ুম, বোকামানুষ, হিমেল, মার্ক, মিরর, নিজাম, সেলিম, ভেঞ্চার, স্পেস ফাইটারসহ আরো অনেকেই এই হ্যাকিংয়ের কাজটি করেছেন।

হ্যাকিংয়ের শিকার কয়েকটি ওয়েবসাইট ভিজিট করে ঘটনারোর সত্যতা দেখা গেছে। তবে কয়েকটি সাইট ইতিমধ্যেই ঠিক করেছেন সংশ্লিষ্ঠরা। কিছু সাইট বন্ধ করে দিয়েছে আবার কিছু সাইট আন্ডার কনস্ট্রাকশনে রেখেছেন সংশ্লিষ্ঠরা।

Related posts

*

*

Top