ডিজিটাল বাংলাদেশের বন্ধ ওয়েবসাইট রক্ষণাবেক্ষণে !

আল-আমিন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : তৈরির পর্যায়ে থাকতেই বন্ধ হয়ে গেছে ডিজিটাল বাংলাদেশ ওয়েবসাইট। তবে এখনও রক্ষণাবেক্ষণ বন্ধ হয়নি!

সরকার ২০০৯ সালের শেষের দিকে ডিজিটাল বাংলাদেশের অগ্রযাত্রা ও কার্যক্রম তুলে ধরতে ডিজিটাল বাংলাদেশ নামের (www.digitalbangladesh.gov.bd) ওয়েবসাইটটি চালু করে। এতে দেশের ডিজিটাল উন্নয়ন, বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও দপ্তরের ডিজিটাল কার্যক্রমের খবরসহ অন্যান্য তথ্য প্রকাশ করা হয়। অথচ কিছু দিন না যেতেই তা বন্ধ হয়ে যায়।

সোমবার ওয়েবসাইটির ঠিকানায় গেলে একটি স্থিরচিত্র দেখা যায়। ওয়েবটিতে শুধু ইমেজ ব্যবহার করা হয়েছে। যে মেনু বা ট্যাবগুলো রয়েছে সেগুলো কাজ করছে না। শুধু দেখা যাচ্ছে। আর ইমেজটিতে ওয়েবসাইটের নাম হিসাবে ডিজিটাল বাংলাদেশ উল্লেখ করা হয়েছে। এবং নিচের দিকে বড় করে লেখা রয়েছে ‘ওয়েলকাম টু ডিজিটাল বাংলাদেশ, দিস পেজ ইজ আন্ডার মেইনটেন্যান্স।’

digital bangladesh_techshohor

সরকার ২০২১ সালের মধ্যে ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার লক্ষ্যে তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে অগ্রাধিকার দিয়েছে। এ জন্য বিভিন্ন পদক্ষেপও হাতে নিয়েছে। বিভিন্ন মন্ত্রণালয়সহ সরকারি কার্যক্রমকে ডিজিটাল করার উদ্যোগ নিয়েছে। এরই অংশ হিসাবে চালু করা ওয়েবসাইটটি বন্ধ থাকায় তা সরকারের ডিজিটাল কার্যক্রম সম্পর্কে ভুল বার্তা দিচ্ছে বলে মনে করেন সংশ্লিষ্টরা।

জানা গেছে, ওয়েবসাইটটি তৈরির দু’বছর পর ন্যাশনাল পোর্টাল ফ্রেমওয়ার্কের আওতায় এর উন্নত সংস্করণ তৈরির কাজে ২০১১ সালের ডিসেম্বরে ওয়েবসাইটি রক্ষণাবেক্ষণে নেওয়া হয়। সেই রক্ষণাবেক্ষণ এখনও শেষ হয়নি। এ কারণে তখন থেকে এটির তথ্য দেখা যাচ্ছে না।

সংশ্লিষ্টরা জানান, দীর্ঘ দুই বছর ধরে রক্ষণাবেক্ষণে থাকা অবস্থাতেই এটি মৃত ওয়েবসাইটে রুপান্তরিত হয়েছে। তবে সাইটটিতে ঢুকলে এখনও রক্ষণাবেক্ষণ চলছে বলে নোটিশ ঝুলানো হয়েছে।

সাপোর্ট টু ডিজিটাল বাংলাদেশের কমিউনিকেশন অ্যাসোসিয়েট হাসান বেনাউল ইসলাম সোমবার টেক শহরকে বলেন, ডিজিটাল বাংলাদেশের ওয়েবসাইটটি ছয়-সাত মাস আগে থেকে বন্ধ রাখা হয়েছে।

বন্ধ হয়ে যাওয়ার পরও কিভাবে ওয়েবসাইটটি রক্ষণাবেক্ষণে থাকে তা জানতে চাইলে হাসান বেনাউল বিষয়টি খোঁজ নেবেন বলে জানান।

অন্যদিকে বাংলাদেশ ন্যাশনাল ওয়েব পোর্টালে (www.bangladesh.gov.bd) ডিজিটাল বাংলাদেশর ব্যানারের সাব মেন্যুতেও আছে বন্ধ হয়ে যাওয়া ডিজিটাল বাংলাদেশের ওয়েবসাইট লিংক।

ন্যাশনাল ওয়েব পোর্টালে অকার্যকর লিংকটির বিভ্রান্তি তৈরি বিষয়েও খোঁজ নেবেন বলে জানান হাসান বেনাউল ইসলাম।

জানা গেছে, কথা ছিল উন্নত সংস্করণের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ ওয়েবসাইটিতে বাংলা ও ইংরেজি দুটি ভার্সন থাকবে। সরকারের ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ কার্যক্রমের এ টু জেড তুলে ধরা হবে এতে।

এ ছাড়া ব্লগ, বিভিন্ন কার্যক্রম-কর্মসূচীর গল্প, অনুষ্ঠানের খরব, প্রযুক্তি খাতে ব্যবসার খবর ও গবেষণাপত্র এতে তুলে ধরা হবে। সেই সঙ্গে থাকবে বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের ওয়েবসাইট ও ডিজিটাল কার্যক্রমের তথ্য ।

পরিকল্পনায় ছিল ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ’ নিয়ে নিয়মিত একটি ই-নিউজলেটারও প্রকাশ করা হবে। এ টু আই প্রকল্পের খবরও ওয়েবসাইটটিতে জায়গা পাবে।

অথচ সব কিছুর পর শেষ পর্যন্ত কোনো কথাই রাখা হয়নি।

Related posts

*

*

Top