আগামী বছর ডাটা সেন্টার নিরাপত্তার গুরুত্ব বাড়বে

তুহিন মাহমুদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দিনে দিনে বেড়ে চলেছে ডাটা সেন্টারের উপর বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নির্ভরতা। অপরদিকে বেড়েছে ডাটা সেন্টারের নিরাপত্তা নিয়ে উদ্বিগ্নতা। আগামী বছর নিরাপত্তার দিক থেকে ডাটা সেন্টারকেই সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দিতে হবে প্রতিষ্ঠানগুলোর। নিরাপত্তা সফটওয়্যার নির্মাতা প্রতিষ্ঠান ম্যাকাফি সম্প্রতি এই তথ্য প্রকাশ করেছে।

যুক্তরাষ্ট্র নির্ভর ম্যাকাফি জানিয়েছে, প্রতিষ্ঠানগুলোর ক্ষেত্রে ডাটা সেন্টার হলো স্নায়ুর কেন্দ্র। বর্তমানে বেশিরভাগ কোম্পানিরই নিরাপত্তার ক্ষেত্রে ডাটা সেন্টার প্রধান বিবেচ্য হয়ে দাড়িয়েছে।

datacenter_techshohor

ফিজিক্যাল, পাবলিক ও প্রাইভেট ক্লাউডর প্রতিবন্ধতাকে সরাতে কোম্পানিগুলো পরবর্তী প্রজন্মের ডাটা সেন্টারের দিকে ঝুঁকছে বলে জানায় ম্যাকাফি। প্রতিষ্ঠানটি আরও জানায়, সার্ভার, স্টোরেজ ও নেটওয়ার্কিং রিসোর্সের মধ্যে ডাটা শেয়ারের কারণে নিরাপত্তার বিষয়টি সামনে চলে আসছে। প্রতিষ্ঠানগুলো নিজস্ব একটি ডিভাইসের মাধ্যমে একটি নিরাপত্তা সমাধান খুঁজলেও সেটি বাস্তবে সম্ভব নয়। সেটি করতে হলে প্রতিষ্ঠানগুলোকে নিজস্ব নিরাপত্তা কাঠামো তৈরি করতে হবে।

নিরাপত্তার ক্ষেত্রে প্রতিষ্ঠানগুলো অভ্যন্তরীনভাবে যে নিরাপত্তা সফটওয়্যার ব্যবহার করছে সেটিও যথাযথ নয় জানিয়েছে ম্যাকাফি। এর পরিস্থিতিতে আধুনিক প্রতিরোধ ক্ষমতা তৈরি করতে হবে। এটিএম, পজ টার্মিনাল, কিয়স্ক, মেডিক্যাল যন্ত্রপাতি, এসসিএডিএ সিস্টেমসসহ অন্যান্য ডিভাইসগুলোর সাথে ইন্টারনেটের সম্পৃক্ততা থাকায় হ্যাকিংয়ের পরিমান দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে। এগুলোতে যে সেন্সর ব্যবহার করা হয় তা সহজেই ট্রাক করতে পারে হ্যাকাররা। বটনেট ও অন্যান্য হ্যাকিং সফটওয়্যারের মাধ্যমে মূল্যবান তথ্য এভাবে হারিয়ে যাচ্ছে।

২০১২ সালে ইন্টারনেট প্রোটেকল সংযুক্ত ডিভাইসের সংখ্যা ১ বিলিয়ন থাকলেও আগামী ২০২০ সাল নাগাদ এসব ডিভাইসের পরিমান হবে ৫০ বিলিয়ন। এক্ষেত্রে নিরাপত্তার বিষয়টি আরও গুরুত্ব দিতে হবে।

– সমাচার ডটকম অবলম্বনে

Related posts

*

*

Top