Maintance

গার্লস ইন আইসিটি ডে : উদ্যোগে আগ্রহীদের সহায়তা দেবে সরকার

প্রকাশঃ ৮:১১ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৩, ২০১৫ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:১১ অপরাহ্ন, এপ্রিল ২৩, ২০১৫

ফখরুদ্দিন মেহেদী, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডিজিটাল বাংলাদেশের লক্ষ্যমাত্রা অর্জন করতে হলে পুরুষের পাশাপাশি সমান সংখ্যক নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে হবে।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর ডেইলি স্টার কার্যালয়ে বাংলাদেশ উইমেন ইন টেকনোলজির (বিডব্লিউআইটি) উদ্যোগে আয়োজিত ইন্টারন্যাশনাল গার্লস ইন আইসিটি ডে ২০১৫ পালন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন হাইটেক পার্কের ব্যবস্থাপনা পরিচালক হোসনে আরা বেগম।

তিনি বলেন, সরকার প্রযুক্তিতে নারীর অংশগ্রহণ নিশ্চিত করতে বিভিন্ন প্রশিক্ষণের পাশাপাশি উদ্যোগেও অনুপ্রাণিত করছে।

women in tech

 

তিনি আরও বলেন, পুরুষের পাশাপাশি নারীকেও আরও বেশি আইটিতে যুক্ত হতে হবে। পিছিয়ে পড়াদের চাকরি দেবার ক্ষমতা অর্জন করতে হবে।

উদ্যোগে আগ্রহী নারীদের তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ থেকে সব ধরনের সহায়তার দেয়ার প্রতিশ্রুতিও দেন তিনি।

জীবনের প্রতিটি মোড়ে নারীকে বিভিন্ন বাধার মুখোমুখি হতে হয়। কিন্তু তথ্য প্রযুক্তি নারীর এইসব বাধা দূর করার হাতিয়ার হতে পারে বলে মনে করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কম্পিউটার সায়েন্স বিভাগের শিক্ষক প্রফেসর সুরাইয়া পারভিন। তাই তিনি সকল কাজে নারীদের তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার করার পরামর্শ দেন।

অনুষ্ঠানে নারী উদ্যোক্তা এবং স্টার কম্পিউটার সিস্টেমের পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী রেজওয়ানা খান বলেন, দেশের আইটি শিল্প সবার জন্য। এখানে কোন ছেলেমেয়ে ভেদ নেই। কিন্তু মেয়েরা উদ্যোগে আগ্রহী না হওয়ায় ব্যবধানটা তৈরি হচ্ছে। ব্যবধানটা দূর করতে তাই ছেলেদের সাথে প্রতিযোগিতা করে নারীদের আইটি শিল্পে জায়গা করে নিতে হবে।

গার্লস ইন আইসিটি ডে ইন্টারন্যাশনাল টেলি-কমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) একটি উদ্যোগ। প্রতি বছর এই দিনে আইটিইউ সদস্য দেশগুলো দিবসটি পালন করে থাকে। বিগত কয়েক বছর ধরে বিডব্লিউআইটি দিবসটি উদযাপন করে আসছে।

ইন্টারন্যাশনাল গার্লস ইন আইসিটি ডে ২০১৫ পালন উপলক্ষে বিডব্লিউআইটি বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রীদের জন্য একটি অ্যাপ প্রতিযোগিতার আয়োজন করে। গত এক মাস ধরে প্রতিযোগিতাটি চলে। এতে নারী উন্নয়নসহ শিক্ষা, স্বাস্থ্য, নিরাপত্তা ও ক্যারিয়ার বিষয়ে অ্যাপ তৈরি করতে বলা হয়।

প্রতিযোগিতায় বুইজব্রিজ নামের একটি অ্যাপ বানিয়ে প্রথম স্থান অধিকার করেছে বুয়েটর দল কিটক্যাট। এ দলের সদস্যরা হলেন জান্নাতুল ফেরদৌস টুম্পা ও সামিয়া শফিক।

প্রতিযোগিতায় টেক ওমেন নামের একটি অ্যাপ তৈরি করে দ্বিতীয় স্থান অধিকার করেছে বুয়েটের আরেকটি দল পোলারিশ। এ দলের সদস্যরা হলেন মিথশ্রি দেব ও নওরিন হক হৃদি।

প্রতিযোগিতায় সেইফ স্যানিটেশন ও টেক্সট ফর মি নামের অ্যাপ দুটি বানিয়ে যুগ্মভাবে তৃতীয় স্থান লাভ করেছে ইউআইটিএসের ক্রেজি কিডস এবং খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ের দল কোড লাইক গার্ল।

ক্রেজি কিডের সদস্যরা হলেন রুবাইয়া রওশান ও হুনূফা আক্তার এবং কোড লাইক গার্লের সদস্যরা হলেন রাহাতারা ফেরদৌসি ও তারান্নুম ফারিয়া রাইসা।

বিডব্লিউআইটির প্রেসিডেন্ট লুনা শামসুদ্দোহাসহ অনুষ্ঠানের অতিথিরা বিজয়ীদের হাতে সম্মাননা তুলে দেন।

*

*

Related posts/