ইউটিউবে মন্তব্য পদ্ধতি পরিবর্তনে বিতর্ক

তুসিন আহমেদ, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ইউটিউবে মন্তব্য করার পদ্ধতিতে পরিবর্তন এনেছে টেক জায়ান্ট গুগল। ভিডিও শেয়ারিং এ সামাজিক সাইটের মন্তব্য করার সঙ্গে যুক্ত করা হয়েছে গুগল প্লাসকে। এ নিয়ে ব্যাপক সমালোচনার মুখে পড়েছে তারা।

কতৃর্পক্ষের দাবি, চলতি মাসের শুরুতে চালু করা এ পদ্ধতি ইউটিউব ও গুগল প্লাসে অনিরাপদ এবং অশ্লীল মন্তব্য বন্ধ করতে সাহায্য করবে। একই সঙ্গে অনিরাপদ লিংক এবং এএসসিআইআই আটর্স, যতিচিহ্ন এবং অন্যান্য অক্ষরের লেআউটগুলোকে আরও উন্নত করবে। এর ফলে অনিরাপদ ও অশ্লীল লিংক কিংবা স্প্যাম প্রতিরোধ করা সম্ভব হবে।

google-plus-youtube-comments_techshohor

তবে সমালোচক ও বিশ্লেষকদের দাবি এতে হিতে বিপরীত হয়েছে। অনেক অশ্লীল স্প্যাম ও জাঙ্ক তৈরি হয়েছে। গুগলও এ বিষয়টি স্বীকার করলেও বিভিন্ন গণমাধ্যমের খবর, তারা নতুন পদ্ধতি চালু রাখার কথা জানিয়েছে।

গুগল প্লাস যুক্ত করার পদ্ধতি নিয়ে বির্তকে নতুন মাত্রা যোগ করেছে একটি অনলাইন পিটিশন গ্রুপের কার্যক্রম। তারা আগের অবস্থায় ফিরে যাওয়ার আহবান জানিয়ে ক্যাম্পেইন শুরু করেছে। ইতোমধ্যে এর পক্ষে ২১ লাখ ৬০ হাজার সই গ্রহণ করেছে। যদিও গুগল জানিয়েছে, এ পরিবর্তন স্প্যাম প্রতিরোধের অংশ।

সম্প্রতি সার্চ জায়ান্ট গুগলের মালিকানাধীন জনপ্রিয় ভিডিও শেয়ারিং সাইট ইউটিউবে নতুন মন্তব্য পদ্ধতি যুক্ত করা হয়। এতে মন্তব্য করার সময় গুগুল প্লাসে সাইন ইন করতে হয়। একই মন্তব্য ইউটিউবের পাশাপাশি গুগল প্লাসেও শেয়ার হয়।

নিরাপত্তা বিষয়ক ব্লগার গ্রাহাম ক্রুলেই এ বিষয়ে মন্তব্য করেন, গুগল প্লাস যুক্ত করে অনুমতি লিংকের ফলে স্প্যামারদের পক্ষে সহজে টাকা আয় করুন কিংবা ম্যালওয়্যারের মতো স্প্যাম ছড়ানো সহজ হবে।

গুগল জানায়, নতুন এ পরিবর্তনের ফলে ব্যবহাকারীদের দীর্ঘ মন্তব্য প্রদর্শিত হবে এবং ভিডিও নির্মাতারা তাদের দর্শকদের পোস্টের বিষয়ে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন।

গুগল কর্মকর্তারা বলেন, মন্তব্য নিয়ন্ত্রণে তারা এখনও কাজ করেছেন। দ্রুত একটি টুলস উম্মুক্ত করা হবে যা এ সমস্যার সমাধান করবে। একই সাথে মন্তব্য র‌্যাকিং এবং পুরাতন স্টাইলের মন্তব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থায় উন্নতির জন্য কাজ চলছে।

Related posts

*

*

Top