ফাইভ জি উদ্ভাবনের চেষ্টায় হুওয়াই

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বাংলাদেশ সবেমাত্র থ্রিজি যুগে পা রাখছে। পুরোদমে ব্যবহার শুরু হতে এখনও অনেক দেরি। নতুন প্রজন্মের এ টেলিযোগাযোগ প্রযুক্তি নিয়ে উচ্ছাস না থাকলেও উৎসাহের কমতি নেই মোবাইল ফোন গ্রাহকদের একাংশের। তবে বিশ্বের টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক বিস্তারের তুলনামূলক বিচারে এটি নতুন কিছু নয়। কেননা থ্রিজি ও ফোরজির সফলতার পর এবার ফাইভ জি প্রযুক্তি নিয়ে কাজ শুরু হয়ে গেছে।

সর্বশেষ চীনা কোম্পানি হুওয়াই পঞ্চম প্রজন্মের এ প্রযুক্তি উদ্ভাবনের গবেষণায় ৬০ কোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দিয়েছে।  বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় নেটওয়ার্ক সামগ্রী প্রস্তুতকারক কোম্পানিটি ২০২০ সালের মধ্যে ফাইভ জি উদ্ভাবনের সম্ভাবনার কথা বলছে।

বাংলাদেশের সবগুলো অপারেটরের থ্রিজি যন্ত্রপাতি ও যন্ত্রাংশ সরবরাহ করছে হুওয়াই। এককভাবে তারাই এখন বিশ্বের সবচেয়ে বড় থ্রিজি ভেন্ডর।

5g_techshohor

২০২০ সালের মধ্যে কোম্পানিটি ডেটা স্থানান্তরে পঞ্চম প্রজন্মের প্রযুক্তি ব্যবহার শুরুর আশা করছে। ফাইভ জি নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে প্রতি সেকেন্ডে ১০ গিগাবাইট গতিতে ডেটা স্থানান্তর করা সম্ভব হবে বলে মনে করছে কোম্পানিটির গবেষকরা।

এ কাজে সফল হতে আগামী পাঁচ বছরে তারা বিপুল এ অর্থ নতুন প্রযুক্তির উৎকর্ষতা এবং এয়ার-ইন্টারফেস টেকনোলোজির গবেষণায় ব্যয় করবে।

এ ছাড়া এখন পর্যন্ত হুওয়াই ইউরোপীয় ইউনিয়নের (ইইউ) ফাইভ জি গবেষণা প্রকল্পে অংশ নিয়েছে। একই সঙ্গে বিশ্বের ২০টি বিশ্ববিদ্যালয়ের সঙ্গে যৌথভাবে নতুন প্রজন্মের প্রযুক্তি উদ্ভাবনে গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে।

কোম্পানি কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, শুধু নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন নয় বিশ্বজুড়ে টেলিকম খাতের উৎকর্ষ সাধনে কোম্পানিটি কাজ করছে।

– টেলিকমবিষয়ক ওয়েবসাইট টেলিকমপেপার প্রতিবেদন থেকে আমিন রানা

Related posts

*

*

Top