Maintance

শিশুরা ইন্টারনেটে কী করে?

প্রকাশঃ ১১:০৯ পূর্বাহ্ন, মার্চ ৩১, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৮:০৩ অপরাহ্ন, এপ্রিল ৩, ২০১৮

টেক শহর  কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশে প্রতি বছর প্রথমবারের মতো ইন্টারনেট ব‍্যবহার শুরু করে ১ লাখ ৭৫ হাজার শিশু। বর্তমানে বাংলাদেশে প্রতি ৫ জন ইন্টারনেট ব‍্যবহারকারীর মধ‍্যে ১ জনের বয়স ১৮ বছরের নিচে। যাদের মধ‍্যে ২১ দশমিক ৩ শতাংশ অনলাইনে বন্ধু বানাতে ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে।

তবে ভালো খবর হলো, ৬৭ দশমিক ৪ শতাংশ শিশু নতুন কিছু শিখতে ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে। গেইম খেলার জন্য ৭ দশমিক ৪ শতাংশ ও অর্থ উপার্জনের জন্য ৩ দশমিক ৮ শতাংশ শিশু ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে থাকে।

শুক্রবার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান নভো থিয়েটারে ইউনিসেফ ও ফেইসবুকের উদ্যোগে ‘শিশুদের জন্য নিরাপদ ইন্টারনেট’ শিরোনামের এক উৎসবে এসব তথ‍্য তুলে ধরে ইউনিসেফ বাংলাদেশ।

সম্প্রতি সংস্থাটি অনলাইনে শিশুদের উপর এক জরিপ চালায়। জরিপটিতে অংশ নেয় ১৩ থেকে ১৮ বছরের ১১ হাজার ৮২১ জন শিশু।

জরিপে জানা যায়, প্রতিদিন সামাজিক যোগাযোগ মাধ‍্যম ব‍্যবহার করে ৮১ দশমিক ২ শতাংশ শিশু। সপ্তাহে কয়েকবার ১৩ শতাংশ ও একবার হলেও ২ দশমিক ২ শতাংশ শিশু সামাজিক যোগাযোগ মাধ‍্যমে প্রবেশ করে। আর মাধ‍্যমটি মাসে কয়েকবার ব‍্যবহার করে ৩ দশমিক ৫ শতাংশ শিশু।

ল‍্যাপটপ বা কম্পিউটারের তুলনায় শিশুরা স্মার্টফোনে ইন্টারনেট ব‍্যবহার করতে বেশি পছন্দ করে। প্রায় ৯০ শতাংশ শিশু স্মার্টফোনে ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে থাকে। সেখানে ল‍্যাপটপ বা কম্পিউটারে ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে মাত্র ৬ দশমিক ৬ শতাংশ শিশু। এছাড়া, বিভিন্ন বন্ধু বা আত্মীয়দের বাড়িতে গিয়ে ৩ শতাংশ শিশু ইন্টারনেট ব‍্যবহার করে থাকে।

Symphony 2018

৮৪ দশমিক ৩ শতাংশ শিশু অন্যের অনুমতি ছাড়া কোনো তথ‍্য ফেইসবুক শেয়ার করেনি। তবে ৫ দশমিক ১ শতাংশ শিশু ফেইসবুক তথ্য শেয়ার করেছে। আর ৩ দশমিক ৩ শতাংশ শিশু মনে করে, সামাজিক যোগাযোগ মাধ‍্যমে অন্যের ব‍্যক্তিগত তথ‍্য শেয়ার করতে অনুমিতর প্রয়োজন নেই। এছাড়া, ৭ দশমিক ১ শতাংশ শিশুর ব‍্যক্তিগত তথ‍্য তাদের অনুমতি ছাড়া অন্য কেউ অনলাইনে শেয়ার করেছে।

অপরিচিত কোনো ব‍্যক্তি অনলাইনে বন্ধু হতে চাইলে ৫২ দশমিক ৩ শতাংশ শিশু জানিয়েছে বন্ধু হতে তাদের কোনো আপত্তি নেই। তবে বিষয়টি বাবা-মাকে জানাবে বলে উল্লেখ করেছে ১১ দশমিক ২ শতাংশ শিশু। কখনোই অপরিচিতদের বন্ধু তালিকায় স্থান দেবে না বলে জানিয়েছে ৩৩ দশমিক ৯ শতাংশ শিশু। অপরিচিত কেউ বন্ধু হতে চাইলে অভদ্র আচরণ করবে বলে জানিয়েছে ২ শতাংশ ৬ শতাংশ শিশু।

সোশ্যাল মিডিয়াতে হয়রানির শিকার হয় ১৩ শতাংশ শিশু আর এই কারণে ৩ দশমিক ৩ শতাংশ শিশু সোশ্যাল মিডিয়া ব‍্যবহার বন্ধ করে দিয়েছে বলে জানায়। একাধিক বার হয়রানি শিকার হয়েছে ৩ দশমিক ৬ শতাংশ শিশু।

শিশুদের জন্য এই ইন্টারনেট উৎসবে শতাধিক শিশু-কিশোর অংশগ্রহণ করে। ইন্টারনেট বিভিন্ন পণ্যের দেখার পাশাপাশি ছাত্রছাত্রী, শিক্ষক-শিক্ষিকা, অভিভাবক, টিভি, চলচ্চিত্র, ক্রিকেট তারকা, দেশের তথ্য প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞদের উপস্থিতিতে শিশুরা ইন্টারনেটভিত্তিক প্রযুক্তি সম্পর্কে জানার সুযোগ পেয়েছে।

এই উৎসবে উপস্থিত ছিল তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক, ফেইসবুক ইন্ডিয়া ও সাউথ এশিয়ার পলিসি প্রোগ্রাম ম‍্যানেজার শ্রুতি মুওহে ও ইউনিসেফ বাংলাদেশের প্রতিনিধি এডুয়ার্ড বেগবেদারসহ আরো অনেকে।

তুসিন আহমেদ 

*

*

Related posts/