গ্রামে যাচ্ছে ভার্চুয়াল শপ

আল আমীন দেওয়ান, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ই-কমার্স সেবা সারাদেশে ছড়িয়ে দিতে গ্রামে বসছে ভার্চুয়াল শপ। গ্রামীণ জনগণকে দেশ ও বিদেশের যে কোনো স্থানের পণ্য অনলাইনে কেনাকাটার সুবিধা দিতে এ উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এসব শপ বসবে দেশের প্রতিটি ইউনিয়ন তথ্য সেবা কেন্দ্রে।

সরকারের এ উদ্যোগ সফল হলে অনলাইনে কেনাকাটা তখন আর শুধু শহুরে ব্যাপ্তিতে সীমাবদ্ধ থাকবে না। গ্রামের লোকজনকে প্রয়োজনীয় পণ্য কিনতে শহরে ছুটে আসতে হবে না। বাড়ির পাশের ইউনিয়ন কেন্দ্রের ভার্চুয়াল শপ থেকে তা সংগ্রহ করতে পারবেন।

গ্রামীণ জনগণকে ডিজিটাল সেবার আওতায় আনতে এ কার্যক্রম বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে সরকারের একসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) প্রকল্পের আওতায়।

union information center_techshohor

এ উদ্যোগ এখনও প্রাথমিক পর্যায়ে থাকলেও সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন প্রকল্পের কর্মকর্তারা।

এ সেবা চালু করতে চলতি মাসের শেষের দিকে দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে সমঝোতা চুক্তি সই হওয়ার কথা রয়েছে বলে জানা গেছে।

ইতোমধ্যে এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে দেশের বিভিন্ন পেমেন্ট গেটওয়ে, কুরিয়ার সেবা প্রদানকারীপ্রতিষ্ঠানগুলোর সঙ্গে ইউনিয়েনের তথ্য ও সেবাকেন্দ্রগুলোর সেবাসমন্বয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে একটি বৈঠক করেছে এটুআই।

বৈঠকে আজকেরডিল ডটকম,এখনি ডটকম,সূর্যমুখী,বিক্রয় ডটকম ,সুন্দরবন,সোনার কুরিয়ার, অ্যারামেক্স,চালডাল,ই-কুরিয়ার, ইউরেশিয়া গ্রাফিক্স,পেজা ডটকম ও আমার দেশ আমার গ্রামের প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

গ্রাম পর্যায়ে অনলাইন কেনাকাটার এ উদ্যোগ সফল করা গেলে তা দেশের ই-বাণিজ্যে বিপ্লব তৈরি হবে বলে সভায় উপস্থিত বিভিন্ন ই-কমার্স ও ই-কুরিয়ারের প্রতিনিধারা মন্তব্য করেন। তারা এ উদ্যোগ সফল করতে সব ধরনের সহযোগিতা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেন।

union info center

এটুআই প্রকল্পের প্রকল্প সহকারি এবং এ কার্যক্রমের পরামর্শক জোবায়ের আলম টেকশহরডটকমকে বলেন, ভার্চুয়াল শপের মাধ্যমে অপ্রতুল পণ্য প্রত্যন্ত এলাকায় সরবরাহের ব্যবস্থা করা হবে। একই সঙ্গে ওইসব এলাকার পণ্যগুলো দেশ-বিদেশে বিক্রির সুযোগ তৈরির ব্যবস্থা করার পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

আলম জানান, এসব শপে অনলাইনে গ্রামের জনগণ যেমন পছন্দ অনুযায়ী সব পণ্য কিনতে পারবেন,তেমনি নিজেদের স্থানীয় পণ্যও বিক্রির জন্য জাতীয় ও আন্তজার্তিক বাজারে উপস্থাপন করতে পারবেন।

ওই কর্মকর্তা বলেন,ভার্চুয়াল শপ কর্মসূচী বাস্তবায়নে প্রাথমিক পর্যায়ে গ্রামীণ জনগোষ্ঠী অনলাইনে কেনাকাটার সঙ্গে পরিচিত হবে। এরপর ঘরে বসেই কেনাকাটার সুবিধা নিতে অভ্যস্ত হবে।

Ecommerce-site-TechShohor

প্রকল্পটির প্রস্তাব থেকে জানা যায়,দেশের শহর,উপ-শহর ও প্রত্যন্ত এলাকা মিলিয়ে ৪০৮শহর,৩১৯ পৌর এলাকাএবং ৪৫৪৫ইউনিয়নের তথ্য ও সেবাকেন্দ্রে এসব ভার্চুয়াল শপ প্রতিষ্ঠা করা হবে।

একই সঙ্গে দেশের বিভিন্ন স্থানের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের পণ্য কেনাবেচায় কুরিয়ার সার্ভিস প্রতিষ্ঠানকে সম্পৃক্ত করা হবে। এরপর এসবশপে বিভিন্ন স্থানের উদ্যোক্তাদের পণ্য আদান-প্রদানের উদ্যোগ নেওয়া হবে।

যেসব স্থানে কুরিয়ার সেবা প্রদানকারীপ্রতিষ্ঠানের নিজস্ব আউটলেট নেই, সেখানে তথ্য ও সেবাকেন্দ্রগুলোকে কুরিয়ার সেবা প্রদানকারীপ্রতিষ্ঠানের এজেন্সিশিপ দেওয়ার মাধ্যমে কার্যক্রম চালানো হবে বলে প্রস্তাবে উল্লেখ করা হয়েছে।

Related posts

*

*

Top