Maintance

নেপাল নাইজেরিয়ায় যাচ্ছে বাংলাদেশে তৈরি কম্পিউটার

প্রকাশঃ ৬:৪৬ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৬:৪৬ অপরাহ্ন, ফেব্রুয়ারি ৭, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : দেশের তৈরি কম্পিউটার এবার রপ্তানি শুরু হচ্ছে। প্রথমবারের মতো বাংলাদেশ কম্পিউটার রপ্তানিকারক দেশ হিসেবে নেপাল ও নাইজেরিয়ায় চলতি মাস থেকে কম্পিউটার রপ্তানি শুরু করছে।

বুধবার রাজধানীর এলিফ্যান্ট রোডের কম্পিউটার সিটি সেন্টার বা মাল্টিপ্ল্যানে পাঁচ দিনব্যাপী জিডিটাল আইসিটি ফেয়ার উদ্বোধনীতে এমন কথা জানান ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।

তিনি বলেন, বাংলাদেশ বিশ্বের অন্যতম বড় কম্পিউটার পণ্যের ক্রেতা বাজার। একটা সময় ছিল যখন আমরা কম্পিউটার বলতে শিশুদের বোঝাতাম, এই যে এটার নাম সিপিইউ, এটা মাউস, এটা মনিটর। পরে সেগুলো হয়তো খুলে ভিতরের জিনিসপত্র, এটার নাম হার্ডডিস্ক, এটা র‍্যাম এমন করে দেখিয়েছি। তখন থেকে একটি বিষয় খেয়াল করে এসেছি, তা হলো, নতুন প্রজন্ম সবসময় প্রযুক্তিকে ইতিবাচক হিসেবে গ্রহণ কর এসেছে।

তিনি বলেন, আমাদের কৃষি প্রধান দেশ। যে কারণে আমরা শুরু থেকেই প্রযুক্তিতে অগ্রগতি করতে পারি নাই। একটা পশ্চাৎপদতা ছিল। তবে একটা সময় এসে এই শিল্পে বিপ্লব ঘটে।

চলতি অর্থবছর একটা মাইলফলক উল্লেখ করে তিনি বলেন,  এই অর্থবছরে সরকার দুটি দিগন্ত উন্মোচন করেছে। আমাদের কম্পিউটার ও ডিজিটাল ডিভাইসের যন্ত্রাংশ যার সংখ্যা ৯৪টা। এই যন্ত্রাংশ থেকে কোন কোনটিতে খুব বেশি ইম্পোর্ট ডিউটি ছিল তা শতকরা এক ভাগে নামিয়ে এনেছে।

অনেকেই বলেন এর ইমপ্যাক্ট কী হবে? এর ইম্প্যাক্ট হবে, দেশে কম্পিউটার তৈরির কারখানা হবে। হয়েছেও। এর মানে আমরা এখন কম্পিউটার আমদানিকারক থেকে কম্পিউটার উৎপাদনকারী দেশে পরিণত হয়েছি বলে জানান তিনি।

শিক্ষার্থীদের হাতে ডিজিটাল ডিভাইস তুলে দেওয়া হবে বলে জানিয়ে তিনি বলেন, আমাদের দেশে ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে সাড়ে পাঁচ কোটি শিক্ষার্থী রয়েছে। এদের প্রত্যেকের হাতে একটি করে ডিভাইস পৌঁছানো আমাদের প্রধানমন্ত্রীর অঙ্গীকার। ২০১৪ সালের ১ জানুয়ারি প্রধানমন্ত্রী স্পষ্টভাবে বলে দিয়েছেন, আমাদের ছেলেমেয়েরা ল্যাপটপ হাতে স্কুলে যাবে সেটা আমি দেখতে চাই।

তিনি বলেন, আমিও দেখতে চাই, স্যামসাং, এইচপি, আসুস, ডেল এগুলো ল্যাপটপে মেইড ইন বাংলাদেশ লেখা। সবগুলোই বাংলাদেশে তৈরি হবে এমন আশা করছি। কেন বাংলাদেশে তৈরি করবেন? এজন্য যে, বাংলাদেশে এগুলো তৈরি করে রপ্তানি করলে একটা নির্দিষ্ট পরিমাণ ক্যাশ ইনসেনটিভ পাবেন।

মোস্তাফা জব্বার জানান, নেপাল ও নাইজেরিয়ায় মেড ইন বাংলাদেশ ট্যাগযুক্ত কম্পিউটার রপ্তানি করার উদ্যোগ নেয়া শুরু হয়েছে। এই মাসের মধ্যেই রপ্তানি প্রক্রিয়া শুরু হবে।

মাল্টিপ্ল্যান সিটিতে মেলাটি চলবে ১১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। মেলায় অংশ নেওয়া স্টলগুলো তাদের পণ্যে বিভিন্ন ছাড় অফার দিয়েছে। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত।

ইমরান হোসেন মিলন

১ টি মতামত

*

*

Related posts/