HP Banner
Maintance

স্পেকট্রাম নিলামে নেই রবি-সিটিসেল

প্রকাশঃ ফেব্রুয়ারি ৫, ২০১৮, ১১:২৩ - আপডেটঃ ফেব্রুয়ারি ৬, ২০১৮, ০৪:২৬

spectrum_techshohpr
Symphony 2018

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : স্পেকট্রাম নিলামে অংশ নিচ্ছে না রবি ও সিটিসেল।

ফলে এখন গ্রামীণফোন একটি ব্যান্ডে ও বাংলালিংক দুটি ব্যান্ডের জন্য নিলামে অংশ নেবে। সোমবার বাংলালিংক জামানত হিসেবে তিন’শ কোটি আর গ্রামীণফোন দেড়শ কোটি টাকা জমা দিয়েছে।

প্রতিটি ব্যান্ডের নিলামে অংশ নেওয়ার জন্যে জামানত ধরা হয়েছিল দেড়’শ কোটি টাকা করে।

বিটিআরসি মোট তিনটি ব্যান্ডের অব্যবহৃত স্পেকট্রামের নিলামের জন্যে প্রস্তুতি নিয়েছিল। এর মধ্যে ২১০০ ব্যান্ডে ছিল মোট ২৫ মেগাহার্জ স্পেকট্রাম। যার প্রতি মেগাহার্জের নিলামের ফ্লোর মূল্য হয়েছে ২ কোটি ৭০ লাখ ডলার। আর ১৮০০ ও ৯০০ ব্যান্ডের প্রতি মেগাহার্জ স্পেকট্রামের নিলামের ভিত্তি মূল্য ধরা হয়েছে তিন কোটি ডলার করে।

spectrum_techshohpr

কিন্তু দুই অপারেটর, বিশেষ করে রবি কোনো নিলামে অংশ না নেওয়ার কারণে টেলিটকম খাতে একটু নড়েচড়ে বসার মতো অবস্থা তৈরি হয়েছে।

বিটিআরসির নিলাম সংশ্লিষ্টরা বলছেন, রবি এয়ারটেলের সঙ্গে একীভূত হওয়ার কারণেই আর কোনো স্পেকট্রাম নেবে না বলেই তাদের মনে হচ্ছে।

বর্তমানে রবির হাতে ২১০০ ব্যান্ডে ১০ মেগাহার্জ স্পেকট্রাম আছে। আর ১৮০০ ও ৯০০ ব্যান্ড মিলিয়ে আছে আরও ২৪ মেগাহার্জ।

আর জিপির ২১০০ ব্যান্ডে ১০ মেগাহার্জ স্পেকট্রামের সঙ্গে ১৮০০ ও ৯০০ ব্যান্ড মিলিয়ে আছে আরও ২২ মেগাহার্জ স্পেকট্রাম।

বাংলালিংকের অবস্থা সবচেয়ে নীচে। তাদের ২১০০ ব্যান্ডে আছে মাত্র পাঁচ মেগাহার্জ। অন্য দুইটি ব্যান্ডে আছে আরও ১৫ মেগাহার্জ। ফলে তাদেরকে নতুন করে স্পেকট্রাম কিনতেই হবে।

এদিকে রবি নতুন করে স্পেকট্রাম না নিলেও ইতোমধ্যে স্পেকট্রামের প্রযুক্তিগত নিরপেক্ষতার জন্যে টাকা জমা দিয়ে গেছে। ফলে লাইসেন্স পেলেই তাদের হাতে থাকা বিদ্যমান স্পেকট্রাম দিয়েই তারা ফোরজির সেবা দিতে শুরু করবে বলে জানা গেছে।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

সর্বাধিক পঠিত