Maintance

ফেইসবুক বন্ধের কথা বলিনি : শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশঃ ৮:১৪ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২৮, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:২৯ পূর্বাহ্ন, জানুয়ারি ২৯, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : এসএসসি পরীক্ষার সময় প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে সীমিত সময়ের জন্য ফেইসবুক বন্ধ রাখতে চিন্তাভাবনার কথা জানিয়েছিলেন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ।

তবে সেই অবস্থান থেকে সরে এসে রোববার জাতীয় সংসদে এক প্রশ্নে জবাবে ফেইসবুক বন্ধ রাখার কথা বলেননি বলে জানিয়েছেন।

এর আগে মঙ্গলবার সচিবালয়ে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে শিক্ষামন্ত্রী পরীক্ষার সময় নির্দিষ্ট সময় পর্যন্ত ফেইসবুক তার মন্ত্রণালয় বন্ধ রাখতে চায় বলে জানান। এজন্য বিটিআরসি এবং সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে আলাপ করার কথা বলেছিলেন। তবে সংসদে করা প্রশ্নের উত্তরে তিনি সেই অবস্থান থেকে সরে এসে কথা বলেন।

facebook-techshohor

রোববার সংসদে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা প্রশ্নপত্র যখন স্কুলে পৌঁছাই কিছু শিক্ষক রয়েছে তারা বিলির আগেই প্রশ্ন খুলে ফেইসবুক বা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা আধুনিক মোবাইলের মাধ্যমে বিভিন্ন জনের কাছে পাঠিয়ে দেন। এ কারণে আমরা বলেছি, এই পথটা আমাদের বন্ধ করতে হবে।

আমরা বলেছি, আমরা বিটিআরসির সঙ্গে আলাপ করব, তারা কোনো সহযোগিতা করতে পারেন কি না। একটি সীমাবদ্ধ সময়ের জন্য বন্ধ রাখতে পারেন কি না। এটা আমরা আলাপ করব। আমরা আলাপ করেছি তারা বলেছে, বিভিন্ন পদ্ধতিতে এগুলো আসে। পরীক্ষার সময়টায় তারা লোক নিয়োগ করে রাখবেন। এ ধরনের কিছু হলে তারা সঙ্গে সঙ্গে জানাবেন, যাতে পুলিশ ব্যবস্থা নিতে পারে সেই ব্যবস্থা তারা করবেন।

সেসময় তিনি বলেছিলেন, বেশিভাগর ক্ষেত্রে দেখা যায় প্রশ্নপত্র পরীক্ষা শুরুর কিছু আগে ফেইসবুকে আসার অভিযোগ ওঠে। এমন অভিযোগ যেনো কেউ করতে না পারে এজন্য আমরা পরীক্ষার দিনগুলোতে নির্দিষ্ট সময়ে মাধ্যমটি বন্ধ রাখব। এজন্য বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন এবং আইসিটি মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পরামর্শ করে পরবর্তীতে ব্যবস্থা নেব।

তবে রোববার সংসদে প্রশ্নোত্তরে ফেইসবুক বন্ধের বিষয়টি বলার কথা অস্বীকার করেন মন্ত্রী। ওই প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমরা বন্ধ করে ফেলব এটা বলতে পারি না। কারণ এই ক্ষমতাও আমাদের নেই। আবেদন করেছি। উত্তর দিয়েছেন, তারা সহযোগিতা করবে। বন্ধ না করেও তারা অন্য পদ্ধতিতে করতে পারেন। তারা বিবেচনা করবেন সীমাবদ্ধ সময়ের জন্য করা যায় কি না।  এ ক্ষেত্রে তারা কী করতে পারবেন তারা ভেবে দেখবেন।

যেহেতু এই মাধ্যমগুলো অপরাধীরা কাজে লাগায় সেই কারণে আমাদের এই রকম ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বলা হয়েছে। আমরা অবশ্যই জনগণের কোনো ব্যঘাত সৃষ্টির জন্য বলিনি। অপরাধীদের কী করে বিরত রাখা যায় সেই উদ্দেশ্যে বলেছি বলে বলেন নাহিদ।

আগামী ১ ফেব্রুয়ারি থেকে এসএসসি এ সমমানের দাখিল ও কারিগরি বোর্ডের পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/