Maintance

ফোরজির সব আবেদনই যোগ্য

প্রকাশঃ ২:৫৯ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২৩, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৪:৪৩ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ২৪, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : চতুর্থ প্রজন্মের সেবা দিতে আগ্রহী সব অপারেটর লাইসেন্স পাওয়ার যোগ্য বিবেচিত হয়েছে। আর স্পেকট্রাম নিলামেও তারা অংশ নেওয়ার সুযোগ পাবে।

এখন সরকারের অনুমোদনের ওপর নির্ভর করছে কারা ফোরজি সেবা দিতে পারবে। এক্ষেত্রে সবারই সুযোগ পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। কেননা নতুন এ সেবা দেওয়ার বিষয়টি সংখ্যা দিয়ে বেধে দেওয়া হয়নি।

টেলিযোগযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বা বিটিআরসির যাচাই-বাছাই কমিটি ফোরজির জন্য সবগুলো আবেদনকে বৈধ এবং সিটিসেলসহ সব অপারেটরই স্পেকট্রাম নিলামে বসতে পারবে বলে রায় দিয়েছে

মঙ্গলবার কমিটি যাচাই-বাছাইয়ের প্রতিবেদন চূড়ান্ত করে কমিশনের কাছে জমা দিয়েছে। বৃহস্পতিবার এ তালিকা আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করা হবে।

গত ১৪ জানুয়ারি এ বিষয়ক আবেদেনের শেষ দিনে সেবার বাইরে থাকা সিটিসেলসহ বিদ্যমান চারটি অপারেটরই লাইসেন্স পেতে আবদেন করে।

তবে রাষ্ট্রায়ত্ত কোম্পানি টেলিটক লাইসেন্সের জন্য আবেদন করলেও স্পেকট্রাম নিলামে অংশ নেবে না। কেননা তাদের হাতে ফোরজি দেওয়ার মতো পর্যাপ্ত স্পেকট্রাম আছে।

ফোরজির জন্য যোগ্যদের তালিকা প্রকাশের পর লাইসেন্সের জন্য করা আবেদনগুলো পাঠিয়ে দেওয়া হবে সরকারের অনুমোদনের জন্য। আর স্পেকট্রাম নিলামে অংশগ্রহণে আগ্রহী অপারেটরগুলোর সঙ্গে আগামী ২৯ জানুয়ারি বৈঠক করবে বিটিআরসি।

১২ ফেব্রুয়ারি স্পেকট্রাম নিলামের একটি মহড়া হওয়ার পরদিন হবে মূল নিলাম। আর এরপর দিন ১৪ ফ্রেব্রুয়ারি বিজয়ী কোম্পানিগুলোর নাম প্রকাশ করা হবে।

তার পর থেকে ৩০ দিনের মধ্যে টাকা পরিশোধ করা সাপেক্ষে অপারেটরগুলো লাইসেন্স ও স্পেকট্রাম পেয়ে যাবে।

সরকার স্পেকট্রাম নিলাম থেকে প্রায় ১০ হাজার কোটি টাকা আয় করবে বলে আশা করছে।

আবেদন গ্রহণ ও যাচাই বাছাইয়ের মাধ্যমে দেশে চতুর্থ প্রজন্মের সেবা চালুর আনুষ্ঠানিক প্রক্রিয়া আরেক ধাপ এগিয়ে গেল বলে জানান সংশ্লিষ্টরা।

বিটিআরসি আশা করছে মার্চের মধ্যেই অপারেটগুলো গ্রাহকদের ফোরজি সেবা দিতে পারবে।

অনন্য ইসলাম

*

*

Related posts/