Maintance

শিক্ষার ডিজিটাল রূপান্তরে সক্রিয় মাইক্রোসফট

প্রকাশঃ ৫:০৫ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১৭, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৫:০৫ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১৭, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ভবিষ্যৎ প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যে ৮৭ শতাংশ শিক্ষাবিদ মনে করেন, শিক্ষাব্যবস্থায় ডিজিটাল রূপান্তর অত্যন্ত জরুরি।

মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে অনুষ্ঠিত ব্রিটিশ এডুকেশনাল ট্রেনিং অ্যান্ড টেকনোলজি বা বেট এশিয়া সামিটে শিক্ষা খাতে ডিজিটাল রূপান্তর নিয়ে মাইক্রোসফটের আলোচনা এমন কথা তুলে ধরা হয়।

মাইক্রোসফট শিক্ষাবিদদের নিয়ে একটি জরিপ চালিয়ে শিক্ষার ডিজিটাল রূপান্তর নিয়ে একটি প্রতিবেদন তৈরি করেছে। যেখানে ২৩ শতাংশ মনে করেন, ইতিমধ্যে তাদের শিক্ষাব্যবস্থায় ডিজিটাল কৌশল অবলম্বন করা হয়েছে

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, তবে সঠিক প্রযুক্তি ব্যবহার করে শিক্ষাবিদরা শিক্ষার্থীদের সঙ্গে নিয়ে উপযুক্ত, অংশ্রগ্রহণমূলক এবং ব্যক্তিগতকৃত ডিজিটাল কনটেন্ট নিয়ে কাজ করতে পারবেন। একইসঙ্গে শিক্ষকতা পেশায় জড়িত না এমন সব কর্মকর্তারাও এর গুরুত্ব অনুধাবন করে ডিজিটাল রূপান্তর বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ নিতে পারবেন।

মাইক্রোসফট এশিয়া প্যাসিফিকের এডুকেশন বিভাগের ডিরেক্টর ডন কার্লসন বলেন, ডিজিটাল ডিসরাপশনের ফলে কাজের ধরণ ও পরিচালনায় অনেক পরিবর্তন এসেছে এবং শিক্ষার্থীদের সৃষ্টিশীলতা ও বিশ্লেষণী চিন্তার উন্নয়ন ঘটানোর মতো বিষয়গুলো নিয়ে তাদের ভবিষ্যতের দক্ষতার বিষয়ে প্রস্তুত করে তুলতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর রূপান্তর প্রয়োজন।

তিনি জানান, শিক্ষাখাতে ডিজিটাল রূপান্তর নিয়ে মাইক্রোসফটে সুস্পষ্ট ও সুনির্দিষ্ট ধরণ রয়েছে। তাদের বিশ্বাস, চারটি মূল বিষয়ের মধ্যে এ রূপান্তর অন্তর্ভুক্ত। বিষয়গুলো হচ্ছে : শিক্ষক ও শিক্ষাসংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের ক্ষমতায়ন, শিক্ষার্থীদের সম্পৃক্ততা, প্রতিষ্ঠানের অনুকূলকরণ এবং ডাটা ও ক্লাউড মূল চালিকাশক্তি ধরে শিক্ষার রূপান্তর।

মাইক্রোসফট বাংলাদেশ, নেপাল, ভুটান ও লাওসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক সোনিয়া বশির কবির বলেন, বাংলাদেশের শিক্ষাখাতে সত্যিকার অর্থেই ডিজিটালকরণের দিকে এগিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে এ গবেষণায় প্রাপ্ত তথ্যের ওপর আমাদের অগ্রাধিকার দিয়ে প্রতিবন্ধকতাগুলো দূর করা উচিত। এখনই সময়, ভবিষ্যতে এগিয়ে থাকার জন্য আমাদের নতুন প্রযুক্তি গ্রহণ করে এর সম্পূর্ণ সুবিধা গ্রহণ করা।

শিক্ষাখাতে বিনিয়োগের মাধ্যমে এ খাত থেকে আরও বেশি কিছু অর্জনের ক্ষেত্রে মাইক্রোসফট শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের ক্ষমতায়ন নিয়ে কাজ করছে। সাম্প্রতিক ঘোষণা অনুযায়ী, মাইক্রোসফট ৩৬৫ এডুকেশনে অফিসে ৩৬৫ ফর এডুকেশন, উইন্ডোজ ১০, এন্টারপ্রাইজ মবিলিটি + সিকিউরিটি এবং মাইনক্রাফট : এডুকেশন এডিশন যুক্ত করা হয়েছে।

সুরক্ষিত উপায়ে নতুন কিছু সৃষ্টিতে এবং কোলাবোরেশনে এটা শিক্ষক, শিক্ষার্থী ও কর্মকর্তাদের প্রয়োজনীয় সবকিছু দেবে। শিক্ষাবিদদের বিশ্বমানের কোলাবোরেশন ও প্রোডাকিভিটি টুলসে বিনামূল্যে সুযোগ দেয়ার মাধ্যমে মাইক্রোসফট নিশ্চিত করছে যেন এশিয়ার ভবিষ্যৎ নেতৃবৃন্দ একই সফটওয়্যারে প্রশিক্ষণ পায়, যা বিশ্বজুড়েই ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ও সরকারকে ক্ষমতায়িত করতে কাজ করবে।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/