Maintance

অ্যামাজনের বেজোস এখন শীর্ষ ধনী

প্রকাশঃ ১২:৫২ পূর্বাহ্ন, জানুয়ারি ১২, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১২:৩৯ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১৩, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : বিল গেটসের সাম্রাজ্য এবার বুঝি কেড়েই নিলেন জেফ বেজোস। এর আগে কয়েক দফা সাময়িকভাবে হানা দিলেও বৃহস্পতিবার অ্যামাজনের প্রধান নির্বাহী বিশ্বের শীর্ষ ধনী বনে গেছেন।

ই-কমার্স জায়ান্টটির প্রধান বেজোসের সম্পদ বেড়ে হয়েছে ১০৬ বিলিয়ন ডলার। সফটওয়্যার জায়ান্ট মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটসের পর শুধু তারই সম্পদ ১২ অংকের ফিগার ছুয়েছে।

শীর্ষ পাঁচ ধনীদের বাকিরা হচ্ছেন বার্কশায়ার হ্যাথাওয়ে’র প্রধান ওয়ারেন বাফেট, ফেইসবুক প্রধান মার্ক জাকারবার্গ  ফ্যাশন ব্র্যান্ড জারা-এর সহ-প্রতিষ্ঠাতা অ্যামানসিও ওর্তেগা।

Jeff+Bezos-techshohor

জানুয়ারির প্রথম ১০ দিনেই বিশেষ করে বললে বড় দিনের আগে ব্লাক ফ্রাইডের বিক্রিই বদলে দিয়েছে বেজোসের সম্পদের পরিমান। নতুন বছরের প্রথম ১০ দিনেই তার সম্পদ বেড়েছে সাড়ে ৬ শতাংশের বেশি।

তার মোট সম্পদের অধিকাংশই আসে অ্যামাজনে তার মালিকানায় থাকা ১৭ শতাংশ (৭ দশমিক ৮৯ কোটি) শেয়ার থেকে। ২০১৭ সালে অ্যামাজনের শেয়ারমূল্য প্রায় ৫৭ শতাংশ বেড়েছে।

জনপ্রিয় বাণিজ্য সাময়িকী ফোবর্স ও ব্লুমবার্গ উভয়টির বিশ্বের শীর্ষ ধনীদের তালিকার এক নম্বর স্থানে সোমবার বেজোসের নাম রয়েছে। তবে সাময়িকী দুটির সম্পদের হিসাবে কিছু্টা পার্থক্য রয়েছে।

ফোর্বসের হিসাবে সম্পদের পরিমাণ ১০৫ বিলিয়ন ডলার আর ব্লুমবার্গের হিসাব অনুযায়ী ১০৬ বিলিয়ন ডলার। অন্যদিকে ফোবর্সের তথ্য মতে গেটসের সম্পদের পরিমান ৯১ দশমিক ৭ বিলিয়ন এবং  ব্লুমবার্গের হিসাবে ৯২ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন ডলার।

ধনীদের শীর্ষ তালিকায় একচ্ছত্রভাবে দীর্ঘদিন এক নম্বরে থাকা বিল গেটসের সম্পদ -এর দখলে। সর্বকালের সেরা ধনী হওয়ার রেকর্ডটাও তারই দখলে ছিল। ১৯৯৯ সালে প্রথমবারের মতো ১০০ বিলিয়ন ডলার হয়েছিল তার সম্পদ। পরে বিল ও মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশনে দেড় বিলয়ন ডলার দান করে দেয়ায় তার সম্পদ কমে আসে।

*

*

Related posts/