Maintance

দেশেই স্মার্টফোন তৈরির আহবান

প্রকাশঃ ৬:৫৮ অপরাহ্ন, জানুয়ারি ১১, ২০১৮ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১১:৪৫ পূর্বাহ্ন, জানুয়ারি ১২, ২০১৮

টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : টেকশহর স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন অনুষ্ঠানে দেশেই স্মার্টফোন তৈরির আহ্বান জানিয়েছেন মন্ত্রীরা।

ডাক, টেলিযোগযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বিভিন্ন স্মার্টফোন ব্র্যান্ডগুলোকে এই আহ্বান জানান।

রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে (বিআইসিসি) বৃহস্পতিবার সকাল ১০টা থেকে স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা সবার জন্য উন্মুক্ত হলেও বিকেলে এর আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করা হয়।

মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে মোস্তাফা জব্বার বলেন, আমরা আমদানিকারক নই, আমরা রপ্তানিকারক দেশ হতে চাই। তাই বেশ কয়েকবছর থেকেই আমরা রপ্তানিতে জোর দিচ্ছি। এজন্য চলতি অর্থবছর থেকে ক্যাশ ইনসেনটিভ সুবিধা চালু করা হয়েছে।

তিনি বলেন, দেশে এখন ওয়ালটন, সিম্ফনি, উইসহ বেশ কয়েকটি দেশী ব্র্যান্ড কারখানা স্থাপন করতে প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। আশা করছি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ও মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ডও দেশে মোবাইল তৈরি না হোক, সংযোজন করতে আগ্রহী হবে।

নবনিযুক্ত এই মন্ত্রী বলেন, টেকশহর স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা যে ধারাবাহিকতা ধরে রেখেছে তা ধরে রাখবে এটা আশা করতেই পারি। আর এমন মেলা ২০১৮ সালের মধ্যেই দেশের অন্যান্য বিভাগীয় শহরে নিয়ে যাবে এটা প্রত্যাশা।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, একটা সময় এই স্মার্টফোন মেলায় শুধু বিদেশী ব্র্যান্ডগুলোই চোখে পড়তো। তবে সেই দিন শেষ হয়ে এখন সেসব ব্র্যান্ডের পাশাপাশি দেশীয় কয়েকটি ব্র্যান্ড স্থান করে নিয়েছে।

পলক বলেন, যত বেশি শিক্ষার হার বাড়ছে, ততবেশি স্মার্টফোনের চাহিদা বাড়ছে। যতবেশি ই-গভর্নেন্স বা ই-সেবার হার বাড়ছে ততবেশি বাড়ছে স্মার্টফোনের ব্যবহার। ফলে যেটা হচ্ছে, ই-সেবা পেতে মানুষ স্মার্টফোন ব্যবহার করে সহজেই তার কাজটি করতে পারছে।

তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী বলেন, দেশে এখন স্মার্টফোন ব্যবহারকারী ২৯ শতাংশ। তবে গত পাঁচ বছর আগে এই পরিমাণ ছিল মাত্র এক শতাংশ। যেভাবে স্মার্টফোন পেনিট্রেশন বাড়ছে তাতে করে ২০২১ সাল নাগাদ আমরা শতভাগ না হলেও খুব কাছাকাছি চলে যাবো স্মার্টফোন ব্যবহারের হারের দিক থেকে।

মেলার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধনীতে আরও বক্তব্য রাখেন স্যামসাং মোবাইল বাংলাদেশের কান্ট্রি ম্যানেজার স্যাংওয়ান ইউন, ট্রানশান বাংলাদেশ লিমিটেডের সিইও রেজওয়ানুল হক, শাওমি বাংলাদেশের সিইও দেওয়ান কানন, আমরা কোম্পানিজের ম্যানেজিং ডিরেক্টর সৈয়দ ফারহাদ আহমেদ, হুয়াওয়ে টেকনোলজিস (বাংলাদেশ) লিমিটেডের ডেপুটি ডিরেক্টর (হুয়াওয়ে ডিভাইস বিজনেস ডিপার্টমেন্ট) জিয়া উদ্দীন, এলজি মোবাইল বাংলাদেশ এর পরিবেশক প্রতিষ্ঠান মেট্রোসেম টেকনোলজিস লিমিটেডের ম্যানেজিং ডিরেক্টর মো. শাহিদুল্লাহ, অপ্পো বাংলাদেশের মার্কেটিং ডিরেক্টর ব্রুস লি, এডিসন গ্রুপের ডিজিএম মার্কেটিং মো. আসাদুজ্জামান। অুনষ্ঠান সঞ্চালনা করেন এক্সপো মেকারের কৌশলগত পরিকল্পনাকারী মুহম্মদ খান।

মেলায় অংশগ্রহণকারী প্রতিটি ব্র্যান্ড মূল্যছাড় অফার দিচ্ছে। এমনকি একটি কিনলে একটি ফ্রি অফারও দিচ্ছে কিছু ব্র্যান্ড।

টেকশহর স্মার্টফোন ও ট্যাব মেলা চলবে শনিবার পর্যন্ত। প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত আটটা পর্যন্ত মেলা দর্শনার্থীদের জন্য উন্মুক্ত থাকছে।

ইমরান হোসেন মিলন

*

*

Related posts/