যত আত্মা ততো পয়েন্টের খেলা ডার্ক সোলস ২

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ডার্ক সোলস ২ নিয়ে প্রথমেই যেটি বলতে হবে তা হলো- এটি অন্ধকার জগতের ভয়ংকর গেইম। একই সঙ্গে মৃত্যু ও আত্মার। গেইমটি খেলার সময় অসংখ্যবার মারা যাবেন আপনি। আর প্রতিটি মৃত্যুর পর যেন এটি নতুন করে গভীরতা পাবে। গেইম ধীরে ধীরে এক ভ্রমণে পরিণত হবে।

গেইমটি তৈরি করেছে জাপানের ফ্রম সফটওয়্যার ও পাবলিশ করেছে ন্যামকো বান্দাই। মার্কিন গেইম খেলে যারা অভ্যস্ত, তারা শুরু থেকে গেইমে অন্য ধরনের আকর্ষণ পাবেন।

গেইম ম্যাগাজিন আইজিএন ও গেইমস্পট একে দশে নয় রেটিং দিয়েছে। গেইম ইনফর্মার দিয়েছে পাঁচে সাড়ে চার ও জয়স্টিক দিয়েছে পাঁচে চার।

Dark-Souls-2_techshohor

ডার্ক সোলস ১ এর সরাসরি সিক্যুয়েল এটি। চোজেন আনডেডের সঙ্গে গেইনের লড়াইয়ের পর কয়েক শতক পেরিয়ে গেছে। কিন্তু এখনও কাটেনি যুদ্ধের রেশ।

আনডেডের ভয়াবহ অভিশাপে পুরো পৃথিবী আক্রান্ত। আপনিও এ অভিশাপের চক্রে আটকা পড়া এক হতভাগ্য। কিন্তু অন্যদের সাথে আপনার একটি পার্থক্য রয়েছে। অভিশাপ থেকে আপনি বের হতে চান।

অভিশাপ কাটানোর একমাত্র উপায় আত্মাকে গ্রহণ করা। গেইমটির গেইমপ্লে জুড়ে রয়েছে আত্মাকে খুঁজে বেড়ানোর অভিযান। ড্রাংলেইক নামে এক বিরাট প্রাচীন রাজ্য ঘুরে এসব আত্মা খুঁজতে হবে।

আর এ রাজ্য এত বড় যে পুরো গেইম শেষ করলেও হয়তো এর অনেক জায়গা অদেখা থেকে যাবে। ওপেন ওয়ার্ল্ড গেইম হওয়ায় ইচ্ছেমতো এ আশ্চর্য রাজ্য ঘুরে বেড়াতে পারবেন। পথে পথে কিম্ভূত সব দৈত্য দানোর সঙ্গে দেখা হবে। কেউ বন্ধু হবে, কেউ শত্রু।

গেইমটির বৈচিত্র্য কেবল যারা খেলবেন তারাই বুঝতে পারবেন। এর সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো মৃত্যু। মরে গেলে এখানে লেভেল রিস্টার্ট হবে না। বরং আপনার ‘হিউম্যানিটি’ কমে যাবে। প্রতিবার মরার সঙ্গে আপনি একটু একটু করে জন্তুতে পরিণত হতে থাকবেন।

যদিও শিরোনামে রোল-প্লেয়িং অ্যাডভেঞ্চার গেইম বলা হচ্ছে, কিন্তু ডার্ক সোল্‌স ২ একসাথে আরও অনেক গোত্রে পড়ে। মাথা না খাটিয়ে ও অসতর্কভাবে খেললে এক জায়গাতেই বন্দী থাকতে হবে।

আবার অনেকে যদি সারভাইভ্যাল গেইমের মতো শুধু মৃত্যুকে এড়িয়ে খেলতে চান, তাহলেও এক জায়গায় ঘুরপাক খেতে থাকবেন। এর বদলে গেইমের প্রতি মুহূর্তে আপনাকে শিখতে হবে।

বর্ম পরা যোদ্ধা, বিষাক্ত নদী, দাঁতালো দানব –সবার যেন নিজস্ব সত্তা বা পার্সোনালিটি আছে। তাদের না বুঝলে বারবার ভুল করে আপনিও দানবে পরিণত হবেন।

এরকম ফ্যান্টাসি গেইম যদি ভালোবাসেন এবং আপনার হাতে যদি অফুরন্ত সময় থাকে তাহলে এখনই বসে পড়তে পারেন গেইমটি নিয়ে। অতুলনীয় গ্রাফিক্স আর সাউন্ড মিলে রহস্য-রোমাঞ্চের অন্য এক জগতে নিয়ে যাবে আপনাকে।

Related posts

*

*

Top