Maintance

আকাশে লড়াইয়ের ঠিকানা ওয়ার্ল্ড অব ওয়ার প্লেনস

প্রকাশঃ ১:৩৮ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৩ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:৩৯ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ১৪, ২০১৩

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : প্লেন চালানো নিয়ে সিমুলেশন গেইম প্রেমীদের জন্য নভেম্বরে মুক্তি পেয়েছে দারুণ সিমুলেশন ও আর্কেড ধাঁচের গেইম- ওয়ার্ল্ড অব ওয়ার প্লেনস।

এ গেইমের প্রতিটি ব্যাটল জেতার জন্য বেশ মাথা খাটাতে হবে। এলোপাতাড়ি গুলি আর বোমা মারলেই হবে না, জেতার জন্য প্রতিপক্ষের বিমানঘাঁটি বা তাদের সব উড়োজাহাজকে ধ্বংস করতে হবে। ব্যাটল ম্যাচগুলো খুব বেশি দীর্ঘ না হওয়ায় একঘেয়েমিও পেয়ে বসবে না।

দক্ষ হাতে প্লেন নিয়ন্ত্রণ করা, আবার শত্রুর গুলিবর্ষণ থেকে প্লেনকে বাঁচিয়ে পাল্টা আক্রমণ করা- দুইয়ের সমন্বয়ে তৈরি এর গেইম প্লে। সমন্বয়টি এতই চমৎকার যে প্লেন ফাইটিং বা সিমুলেশন গেইমে একই কাজের পুনরাবৃত্তির অভিযোগের লেশমাত্র খুঁজে পাওয়া যাবে না এতে।

World-of-Warplanes_techshohor

সহজ-সরল কন্ট্রোল গেইমটির একটি বড় সুবিধা। কয়েক মিনিটের টিউটোরিয়ালের পরই আর্কেড স্টাইলের মূল গেইমে নিয়ে যাওয়া হবে আপনাকে। সেখানে শুরুতে খুব অল্প রিসোর্স নিয়ে ডগফাইটে নামতে হবে অন্যান্য যুদ্ধবিমানের সঙ্গে। লেভেল যতই বাড়বে, আরও আধুনিক ও সমরাস্ত্র সজ্জিত হয়ে উঠবে উড়োজাহাজ।

ডগফাইটগুলো যেমন বাস্তব, তেমনই উপভোগ্য। শত্রুর প্লেনের হাত থেকে বাঁচার জন্য প্রতি মুহূর্তে সতর্ক থাকতে হবে। যে কোনো সময় মেঘের আড়াল থেকে বেরিয়ে বা নিচু দিয়ে উড়ে এসে আপনাকে আঘাত করতে পারে। তখন মুহূর্তের মধ্যে ডাইভ দিয়ে বা গতি পরিবর্তন করে বাঁচতে হবে।

শত্রুকে ধ্বংস করার জন্যেও নানা ট্যাকটিক্যাল পদ্ধতি আছে। গুলি ও বোমা মারার পাশাপাশি তার উড়োজাহাজের চারপাশে চক্রাকারে ঘুরে কোনঠাসা করে ফেলতে পারেন। পাহাড়ের আড়াল থেকে মিসাইল নিক্ষেপ করতে পারেন। আপনার প্লেনের বেশি ক্ষতি হলে পাইলটও আহত হতে পারে, সেক্ষেত্রে প্লেন নিয়ন্ত্রণ করা মুশকিল হয়ে দাঁড়াবে।

প্রতি ম্যাচেই আপনার বিভিন্ন দক্ষতা ও অর্জনের জন্য এক্সপেরিয়েন্স পয়েন্ট ও ক্যাশ পাবেন। সেগুলো নানাভাবে প্লেনকে কাস্টোমাইজ করতে পারবেন, কিনতে পারবেন নতুন প্লেন। নানা মডেলের, নানা কাজে পারদর্শী প্রচুর প্লেন রয়েছে এতে, কাস্টোমাইজেরও বিস্তৃত অপশন রয়েছে। ফলে এ দিক দিয়ে নিড ফর স্পিড সিরিজের মত মজা পাওয়া যাবে।

গেইমটির গ্রাফিক্স ও পরিবেশ আকর্ষণীয়। আকাশের লড়াই হলেও স্থলের গ্রাফিক্সের দিকে কম নজর দেওয়া হয়নি। ফলে বেশও রিয়েলিস্টিক পরিবেশ তৈরি হয়েছে। এ ছাড়া প্লেনগুলোর ধ্বংসযজ্ঞ দেখে হলিউডের মুভির কথা মনে পড়তে পারে। পরিবেশের বৈচিত্র্যের কথাও উল্লেখযোগ্য; আর্কেড গেইম হলেও পুরো গেইম শেষ করার জন্য নানা লেভেলের একটি বড়সড় ম্যাপ পাড়ি দিতে হবে।

শুধু শুটিং বা সিমুলেশন গেইম খেলার পাশাপাশি যারা কিছু নতুনত্ব চান, তারা নির্দ্বিধায় এই গেইমটি নিয়ে বসে যেতে পারেন।

এক নজরে ভালো

–       চমৎকার গেইমপ্লে

–       উন্নত ও বৈচিত্র্যময় গ্রাফিক্স

–       নানা কাস্টোমাইজেশনের সুবিধা

এক নজরে খারাপ

–       কাহিনী নেই

–       সবার ভালো নাও লাগতে পারে

*

*

Related posts/