Maintance

ভিন্ন স্বাদের কমব্যাট গেইম ইনজাস্টিস : গডস অ্যামং আস ­

প্রকাশঃ ১:৪১ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৭, ২০১৩ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ১:৪১ অপরাহ্ন, ডিসেম্বর ৭, ২০১৩

শাহরিয়ার হৃদয়, টেক শহর কনটেন্ট কাউন্সিলর : ব্যাটম্যান ও জোকারের দ্বন্দ্ব চিরকালীন। একইভাবে সুপারম্যানের চিরকালের শত্রু জেনারেল জড। সুপার হিরো বনাম সুপার ভিলেইনের এ দ্বন্দ্ব নিয়ে মুক্তি পেয়েছে নেদাররিম স্টুডিওজের তৈরি নতুন গেইম ইনজাস্টিস : গডস অ্যামং আস আল্টিমেট এডিশন। ডিসি কমিক্সের বিখ্যাত সব চরিত্রগুলোকে নিয়ে তৈরি হয়েছে ফাইটিং ধাঁচের এ গেইম।

বিখ্যাত সুপারহিরোদের নিয়ে গেইম করতে গেলে তাদের ভক্তদের কথাও মাথায় রাখতে হয়, কেননা ফ্যানদের তাদের প্রিয় হিরোকে নিয়ে আলাদা প্রত্যাশা থাকে। ইনজাস্টিস এ ক্ষেত্রে চমৎকারভাবে সফল বলতে হবে।

injustice-gods-among-us_techshohor

এত প্রিয় হিরো এক জায়গায় হওয়ার পরও নির্মাতারা প্রতিটি চরিত্রের স্বকীয়তা বজায় রাখতে পেরেছে। এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে আকর্ষণীয় প্লটের কাহিনী, যা কড়া ধাঁচের ফাইটিং গেইমগুলোয় দেখা যায় না বললেই চলে। যেমন- সুপারম্যান যদি মানুষের ওপর বিশ্বাস হারিয়ে, হতাশ হয়ে উল্টো তার অসীম ক্ষমতাকে অন্যায় কাজে লাগানো শুরু করত, তাহলে কি হতো সেটা বোধহয় কেউ চিন্তা করেননি। কিন্তু এটাই দেখা যাবে এই গেইমে। তাই এখানে প্রতিদ্বন্দ্বিতা কেবল সুপারহিরো আর সুপারভিলেইনের নয়; হিরোদের নিজেদের মধ্যেও!

কাহিনীর মারপ্যাঁচে মারপিটকে ছোট করে দেখা হয়নি। বিশেষ করে জাস্টিস লিগ সিরিজটি যাদের পছন্দ, তারা অনেকেই পরিচিত পরিবেশ দেখতে পাবেন। মূল সিরিজের অনেক কণ্ঠাভিনেতা গেইমের চরিত্রে কণ্ঠ দিয়েছেন। কেভিন কনরয় ডার্ক নাইট ও জর্জ নিউবার্ন সুপারম্যানের কণ্ঠ দিয়েছেন।

স্ট্রিট ফাইটার, মর্টাল কমব্যাট খেলে যারা অভ্যস্ত, তারা ফাইটিংয়ের গেইমের নতুন একটি ধারা দেখতে পাবেন এখানে। নিনজা স্টাইলের মারামারির বদলে এতে প্রতিটি সুপারহিরো বা ভিলেইনের নিজস্ব ক্ষমতার প্রতি গুরুত্ব দেওয়া হয়েছে। যেমন- সলোমন গ্রান্ডির সুপারপাওয়ার হলো সে চেইন দিয়ে পেঁচিয়ে প্রতিপক্ষকে কাবু করতে পারে।

আবার ফ্ল্যাশ তার প্রচণ্ড গতিকে কাজে লাগিয়ে প্রতিপক্ষকে একেবারে ধীর করে দিতে পারে। তবে গেইমটির কন্ট্রোল পদ্ধতি অন্যান্য ফাইটিং গেইমের মতোই রয়েছে- কিবোর্ড বা গেইমপ্যাডের ডিরেকশনভিত্তিক। প্রতিপক্ষকে হারাতে ব্লক ও কম্বোতে দক্ষ হতে হবে।

পরিবেশের কথাও আলাদা করে না বললেও নয়। প্রায় সব ফাইটিংয়ের সময়ই চারপাশে ইন্টারঅ্যাকটিভ পরিবেশ থাকবে, বিভিন্ন ভারী বস্তু নিয়ে প্রতিপক্ষকে আঘাত করা যাবে সেগুলো দিয়ে। নিনজা ধরনের গেইমগুলোতে এটি বরাবরই অনুপস্থিত ছিল।

কিন্তু এতোকিছুর পরও গেইমটির গ্রাফিক্স আরও কিছুটা ভালো হলে একে বছরের সেরা ফাইটিং গেইম বলা যেত। আবার মাঝে মাঝে অপ্রয়োজনীয় অ্যানিমেশন কাহিনীর গতি নষ্ট করতে পারে। কিন্তু সব মিলিয়ে যারা ভিন্ন স্বাদের কমব্যাট গেইম উপভোগ করতে চান, তারা এখনই খেলা শুরু করতে পারেন গেইমটি।

এক নজরে ভালো
– দুর্দান্ত কাহিনী ও কমব্যাট
– নতুন ধরনের গেইমপ্লে, আকর্ষণীয় চরিত্রায়ন

এক নজরে খারাপ
– গ্রাফিক্স ও অ্যানিমেশন কিছুটা দুর্বল

*

*