ই-কমার্সে স্বপ্ন সাজাচ্ছে আপনজোন ডটকম

তুহিন মাহমুদ, টেক শহর প্রতিবেদক : দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উদ্যোক্তাদের সাফল্যের কথা তুলে আনতে চায় টেক শহর ডটকম। ই-বাণিজ্য, সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান, টেলিকম সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান তথা তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ক যে কোনো উদ্যোগ ও উদ্যোক্তাদের নিয়মিত সবার সামনে তুলে ধরতেই এ উদ্যোগ। সফলদের সাফল্য গাঁথার পেছনের কাহিনী ছড়িয়ে দিতে টেকশহর ডটকমের এ আয়োজনে এবার থাকছে আপনজোন ডটকমের বেড়ে ওঠার গল্প।

সবেমাত্র এসএসসি পরীক্ষা দিয়েছেন। ছুটির এ সময়টাতে সমবয়সীরা যখন এটা ওটা নিয়ে ব্যস্ত তখন তিনি বিভোর ইন্টারনেট জগতে। বিশাল এ ভুবনের নিয়মিত বাসিন্দা হয়ে পড়েন তিনি। দেশ বিদেশের নানা সাইট ঘাঁটাঘাঁটির সময় অ্যামাজন, ই-বেসহ আরও কয়েকটি সাইটের কার্যক্রম দেখে মুগ্ধ হয়ে পড়েন। মাথায় ঢুকে যায় ই-কমার্সের পোকা।

শুরুর গল্পটা এমনই ছিল বলে জানালেন আপনজোন ডটকমের (http:/ /aponzone.com) উদ্যোক্তা ও প্রধান নির্বাহী আসিফ আহনাফ। ১৯ বছর বয়সী এ তরুণ বলেন, এসএসসি পরীক্ষার পর ছুটির সময়টাতে বিশ্বজুড়ে অনলাইনে কেনাবেচার জমজমাট ভুবনের সঙ্গে পরিচিত হওয়ার সময়টাতেই দেশে এ রকম কিছু করার পরিকল্পনা প্রায় ঠিক করে ফেলি। ওই সময়টাতে খুবই অবাক হয়েছিলাম অনলাইনের মাধ্যমে সব কিছু কেনাবেচা সম্ভব দেখে। এ ধরনের ব্যবসা সম্পর্কে জানা শোনা বলতে ইন্টারনেটের তথ্যই ভরসা। পুঁজিও নেই। এরপরও কিছু একটা করার নেশা থেকেই যেন পথে নেমে পড়ি।

দেশের ই-বাণিজ্যে আপনজোন ডটকম ক্রমে পরিচিতি পাচ্ছে জানিয়ে আসিফ বলেন, অথচ শুরুটা ছিল একেবারেই সাদামাটা। গল্পটা অনেকেই বিশ্বাস করতে চান না। তিনি বলেন, অনলাইনে বেচাকেনার স্বপ্ন দেখতে দেখতেই পরীক্ষার রেজাল্ট হয়ে গেল। ভর্তি হলাম ঢাকা কলেজে। কলেজের পড়াশোনার ফাঁকেই সেই ইচ্ছাটা আবার জাগতে শুরু করল। আমিও হাল না ছেড়ে তা বাস্তবায়নের পথ খুঁজতে শুরু করলাম। হাতে পুঁজি না থাকায় এলিফ্যান্ট রোডের পরিচিত এক দোকান থেকে ওয়াইম্যাক্স মডেম ও কিছু কম্পিউটার সামগ্রী বাকিতে নিয়ে যাত্রাবাড়ি এলাকায় আমার ইংলিশ শিক্ষক মোহাম্মদ তারেকের বাসা থেকে বিক্রি শুরু করলাম।

এ প্রতিবেদককে মনোযাগী শ্রোতা পেয়ে পুরনো স্মৃতি তুরে আনতে শুরু করেন বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তিচ্ছু তরুণ আসিফ। তার স্বপ্ন যাত্রার কথা বলতে থাকেন। তিনি জানান, যাত্রাবাড়িতে ডোর টু ডোর সেবা দেওয়া শুরুর তিন মাসের মাথায় ২০ হাজার টাকা মুনাফাও করে ফেললাম। এরপর আমাদের সঙ্গে যোগ দিলেন নাহিদুর রব জিকো। ফ্রেঞ্জ এশিয়া নামে কম্পিউটার সামগ্রী বিক্রি ও কম্পিউটার ট্রেনিং সেবা দিতে একটি শোরুম খুললাম আমরা। তিন জনের বিনিয়োগ দাঁড়াল দুই লাখ টাকা। এরই মাঝে স্বয়ংসম্পূর্ণ ই-কমার্স সাইট দাঁড় করানোর অভিজ্ঞতা লাভে প্রতিষ্ঠিত ১০টি ক্লাসিফাইড ও ই-কমার্স সাইটগুলোতে বিভিন্ন পণ্য সরবরাহ শুরু করলাম। পাশাপাশি বাজার বিশ্লেষণের কাজও চালিয়ে যাই। কিভাবে যে দু’বছর কেটে গেল টেরই পেলাম না। উচ্চ মাধ্যমিক শেষ করলাম ২০১২ সালে। এবার লেগে গেলাম পরিপূর্ণ ই-কমার্স সাইট চালু করতে। আপনজোন ডটকমের যাত্রা শুরু এভাবেই।

Aponzone dotcom Cover Photo_Tech Shohor

 

টার্নিং পয়েন্ট কিউবি ল্যাপটপ ফেয়ার

সীমিত আকারে ২০১২  সালের শেষের দিকে শুরু হয় আপনজোনের ই-কমার্স কার্যক্রম। তবে আনুষ্ঠানিকভাবে সবার কাছে আত্মপ্রকাশ মূলত চলতি বছরের ফেব্রুয়ারিতে ঢাকার একটি ল্যাপটপ মেলায়।  আসিফ বলেন, আমাদের আরও উদ্দমী হতে সাহায্য করেছে মেকার কমিউনিকেশন আয়োজিত কিউবি ল্যাপটপ ফেয়ার। প্রায় বিনামূল্যে ১২৮ বর্স্কফুটের বিশাল স্টলসহ মেলায় অংশ নেওয়ার সুযোগ এসেছিল মেকারের সৌজন্যে। এ মেলাতেই তিনশ’র বেশি গ্রাহক পেয়েছিল আপনজোন। এটি ছিল আমাদের ব্যবসায়ের মূল টার্নিং পয়েন্ট।

বাধা পেরিয়ে এগিয়ে চলা

একটি ই-কমার্স সাইট পরিচালনা করতে অনেক মূলধনের প্রয়োজন। এ নিয়ে আমাদেরও বিপাকে পড়তে হল। আপনজোন ডটকম পরিবারের প্রত্যয় ছিলো শূন্য থেকে বড় হওয়ার। একযোগে অনেক বিনিয়োগের সুযোগই ছিল না আমাদের। ফ্রেঞ্জ এশিয়া থেকে ৫০ হাজার টাকা ঋণ নেওয়া হয়। যা মেলার মুনাফা ও পরবর্তী এক মাসের মুনাফা দিয়েই পরিশোধ করা হয়। আপনজোনের মূলধন দাঁড়ায় ৬০ হাজার টাকা। এভাবেই শুরু হয় আস্তে আস্তে এগিয়ে চলা। আসিফ আহনাফ বলেন, এগিয়ে চলার পথে কখনও যেমন সাফল্য এসেছে, তেমনি হতাশাও ভর করেছে।  এসব নিয়েই চলছে আপনজোনের পথ চলা।

asif_Ziko_ Tech Shohor

ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় সেরা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত

ওয়েবসাইটের মার্কেটিং ও ব্র্যান্ডিংয়ের জন্য আসিফ আহনাফ ও নাহিদুর রব জিকো ঘুরে বেড়িয়েছেন ঢাকা, কুমিল্লা, সিলেট, চট্টগ্রামসহ বিভিন্ন নগরীতে। অংশগ্রহণ করেছেন বিভিন্ন মেলায়। চলতি বছরের জুলাইয়ে যখন নিজেদের উদ্যম ও উদ্ভাবনীর স্বীকৃতি হিসেবে পুরষ্কার পেয়ে নতুন করে উজ্জীবিত হলেন। প্রায়  ৬০টি প্রতিষ্ঠানকে পিছনে ফেলে তথ্য ও প্রযুক্তি মন্ত্রনালয় আয়োজিত ঢাকা ডিজিটাল উদ্ভাবনী মেলায় সেরা প্রতিষ্ঠান নির্বাচিত হয় আপনজোন ডটকম। আসিফ বলেন, এ প্রাপ্তি আমাদের আকাংখাকে আরও বাড়িয়ে দেয়।

বৃহত্তম অনলাইন শপিং সাইট করার পরিকল্পনা

আগামীতে দেশে ই-বাণিজ্যই হবে ব্যবসার সবচেয়ে বড় ক্ষেত্র এমনটিই মনে করেন আসিফ ও জিকো। তাই আপনজোনকে দেশের সবচেয়ে বৃহত্তম অনলাইন শপিং সাইট করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের। তাইতো এ স্বপ্ন পূরণে জিকো মাস্টার্স শেষ করেও চাকুরি না খুঁজে এটিকেই বড় করার কাজে লেগে পড়েছেন। একজন ক্রেতা তার চাহিদার সম্ভাব্য সবকিছুই যাতে তাদের কাছ থেকে পান সে চেষ্টাই চালাচ্ছেন তারা। পাশাপাশি এখন নজর দিচ্ছেন মানসম্মত পণ্য ও ক্রেতার মনোতুষ্টির দিকে।

আসিফ বলেন, নিজের ওপর বিশ্বাস রেখে এগিয়ে গেলে সাফল্য আসবেই। তিনি বলেন, ‍”একটি কথা বলতে চাই -স্বপ্ন সেটাকে বলে না যা আমরা ঘুমিয়ে দেখি, স্বপ্ন সেটাই যা আমরা জেগে থেকে দেখি।”

-টেক শহর

Related posts

টি মতামত

  1. Tipu said:

    উদ্যোক্তা হয়ে উঠার গল্প টি চরম উৎসাহমূলক। ধন্যবাদ টেকশহর কে, এটি পাবলিশ করে আমাদের জানতে সহায়তা করায়।

  2. bikroymela said:

    আপনার প্রতিষ্ঠানকে কাঙ্ক্ষিত উচ্চতায় নিয়ে যেতে হলে নিজের প্রতিষ্ঠানকে সবার সামনে সুন্দরভাবে উপস্থাপন করতে হলে[ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]হল অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম। আর আপনি যদি অনলাইনে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার কথা ভেবে থাকেন, তবে নিশ্চিন্তে[ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]কে বেছে নিতে পারেন। ই–কমার্সে আপনার সাফল্যের নিশ্চয়তা করতে আমরা দৃঢ় প্রতিজ্ঞ। উন্নত কাস্টমার সার্ভিস প্রদানে সাহায্য করে স্বল্পব্যয়ে বিজ্ঞাপন দেয়া যায় নিমিষেই। প্রিন্টমিডিয়ার তুলনায় সাশ্রয়ী খরচে বিজ্ঞাপন দেয়া যায়। [ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]এর মাধ্যমে অসংখ্য মানুষের কাছে আপনার প্রতিষ্ঠানের প্রোডাক্ট পৌঁছে দিতে পারেন সহজেই।
    [ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]হচ্ছে আপনার প্রতিষ্ঠানের সাইট প্রমোশনের সবচেয়ে সহজ ও টেকসই মাধ্যম।[ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]এর মাধ্যমে সরাসরি লিংক মার্কেটিং করা যায় এবং সেটা সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন এর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ প্রভাব বিস্তার করে। [ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]এর মাধ্যমে অল্প পরিশ্রমে আপনার পন্যটি জনপ্রিয় করতে পারেন।[ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]এ নিবন্ধন এর জন্য অর্থের প্রয়োজন হয় না। বিক্রয় -মেলা ডট কম এ ব্যবসার জন্য আপনাকে উচ্চ ফি ব্যয় করতে হবেনা। [ বিক্রয় – মেলা ডট কম ]এর মাধ্যমে পন্যের বিক্রয়কৃত কমিশন অল্প হওয়ার কারণে প্রতিষ্ঠানের অসংখ্য আয়ের সুযোগ রয়েছে। একজন খুচরা বিক্রেতা আপনার প্রতিষ্ঠানের উৎপাদিত পণ্যসামগ্রী খুব সহজেই আমদানি করতে পারবেন । জন প্রিয় হয়ে উঠছে অনলাইন শপিং তাই আর দেরী না করে এক্ষুনি কর্পোরেট ইউজার নিবন্ধন করুন।

  3. bikroymela said:

    http://bikroy-mela.com/
    বিক্রয় – মেলা ডট কম বাংলাদেশের সর্ববৃহৎ অনলাইন মার্কেটপ্লেস মধ্যে অন্যতম একটি। এখান থেকেই আপনি আপনার যে কোনো পন্যের সেরা মানটি নিশ্চিত করতে পারেন। প্রচুর ক্রেতা এবং বিক্রেতা থাকার কারনে, বিড বা নিলামের মাধ্যমে যে কোনো ধরনের পন্য বিক্রি করে সর্বাধিক মুল্য পাবার নিশ্চয়তা থাকছে ‘বিক্রয়-মেলা’তে।
    যেভাবে ব্যবহার করবেন

    বিক্রয় – মেলা ডট কম থেকে আপনি জামাকাপড়, কম্পিউটার, ল্যাপটপ, মোবাইল, বই, বিভিন্ন ইলেক্ট্রনিক্স পণ্য থেকে শুরু করে ডিজিটাল পন্য যেমন সেবা, ইবুক, প্রশিক্ষণ , নতুন পুরাতন যানবাহন ইত্যাদি বিক্রয় করেও আয় করতে পারেন।অনলাইনে ব্যাবসা প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলার পূর্বে কিছু জিনিসের উপরে গুরুত্ব দিতে হবে প্রথমে আপনাকে আপনার ব্যাবসার ধরণ নির্বাচন করতে হবে। আপনার ব্যাবসার উপর নির্ভরশীল পণ্য তালিকাভুক্ত করতে হবে। কিভাবে অর্থ গ্রহন করবেন সে সম্পর্কে শর্টনোট তৈরি করুন | পন্য কিভাবে পাঠাবেন এবং তার নির্দিষ্ট সময় নির্বাচন করুন। ক্রেতা সন্তুষ্টির উপরে খুব বেশি জোর দেওয়া উচিত। মনে রাখবেন অনলাইনের একজন ক্রেতা শুধুমাত্র একজন ক্রেতাই নয়, সে আপনার পণ্য সন্তুস্তির উপরে নির্ভর করে ভাল রেটিং রিভিউ এর মাধ্যমে আপনার ব্যাবসার সাফল্য তুলে ধরবে।
    এখানে ব্যবসা শুরু করার পূর্বে পণ্য নির্বাচন করা খুবই জরুরি। কারন দৃষ্টিনন্দন এবং অধিক জনপ্রিয় পণ্যের দিকেই ক্রেতাদের বেশি ঝোঁক থাকে। আপনি চাইলে এই সুযোগকে সম্পূর্ণরূপে কাজে লাগাতে পারেন। ‘বিক্রয় – মেলা ডট কম’ পণ্যের অধিক জনপ্রিয়তা এবং বিক্রির পরিমান বৃদ্ধি করতে চাইলে আপনাকে কিছু বিষয়ের উপর অবশ্যই গুরুত্বারোপ করতে হবে। কিভবে আপনার পণ্যটিকে জনপ্রিয় করা যায় এবং তা থেকে আপনার ইনকাম বা আয বৃদ্ধি করা যায় সে সংক্রান্ত নিবন্ধন ও পরামর্শের জন্য শীঘ্রই আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন

    অনলাইন বিষয়ক আপনার ভাবনা

    অনলাইনে বেচাকেনা করার চিন্তা যখন করছেন তখন আপনার মনে কি এই প্রশ্নগুলো জাগছে না যে পণ্যের – কম মূল্যে বিক্রয় রোধ করতে চাই, অন্যান্য কোম্পানির ক্রয়মুল্য প্রস্তাব সস্তা ছিল, পণ্যের সুস্পষ্ট মূল্য নির্ধারণ করতে চাই, বর্তমান বাজার দর জানিনা, প্রতিযোগিতামূলক মূল্য প্রস্তাব করার জন্য আহ্বান করতে চাই, যে কোনো ধরনের পন্য বিক্রি হওয়ার নিশ্চয়তা চাই, ব্যাবসা প্রতিষ্ঠানের পণ্যকে অনলাইন বাজারে জনপ্রিয় করতে চাই, কোনো ঝামেলা ছাড়াই ২৪ ঘন্টার যে কোনো সময় বেচা-কেনা করতে চাই।

    আমরা বলবো

    আপনার এই সব চাওয়ার সবচেয়ে সহজ ও সরল সমাধন দিছে ‘ বিক্রয়-মেলা’
    সম্পূর্ণ বিনা খরচে। আপনি আপনার পণ্যের বিজ্ঞাপন দিতে পারবেন। প্রায় সব ধরনের নতুন-পুরাতণ পণ্য এ সাইটে পাওয়া যায় । ক্রয়-বিক্রয় পদ্ধতি একেবারে সহজ ও বিশ্বাসযোগ্য । লেনদেন সংক্রান্ত বিবাদের নিষ্পত্তি জন্য কোন চিন্তা করবেন না, ওটা বিক্রয়-মেলার উপর ছেড়ে দিন। আপনার লেনদেনকে বিশ্বাসযোগ্য ও নির্ভর করাই আমাদের অন্যতম সেবা। আপনি ঘরে বসে নির্বিঘ্নে-নিশ্চিন্তে কেনাকাটা করুন ,বিক্রয়-মেলা ক্রয়বিক্রয়ের ক্ষেত্রে নিরাপত্তা সহায়তা দিবে।

    বিনামূল্যে শুরু করুন ,সহজ এবং নিরাপদে ঘরে বসে নির্বিঘ্নে-নিশ্চিন্তে কেনাকাটা !
    কোনো ঝামেলা ছাড়াই সহজ এবং নিরাপদে ব্যবহার করতে পারেন, এটা একটা বিপদ মুক্ত সম্পূর্ণ দেশীয় এবং বিশ্বস্ত সাইট ।

    অনলাইন নিলামে বিক্রয় পদ্ধতি

    (১) শুধু মাত্র সাধারণ ইউজার যিনি পণ্য নিলামে উঠাবেন (বিক্রয় করবেন)
    (২) সাধারণ ইউজার বা ব্যবহারকারী হিসেবে নিবন্ধি হতে হবে
    (৩) সাধারণ ইউজার প্রয়োজনীয় নিলামপণ্য সংক্রান্ত তথ্য,ছবি,মডেল, বছর আপলোড করলে প্রথম পাতার উপর ডানে নিলামপণ্য প্রদর্শিত হবে
    (৪) সাধারণ ইউজার বা ব্যবহারকারী অনলাইন নিলামে দর হাঁকতে চাইলে(ক্রয় করতে) কর্পোরেট ইউজার বা ব্যবহারকারী হিসেবে নিবন্ধিত হতে হবে।

    অনলাইন নিলামে ক্রয় পদ্ধতি

    (১) কর্পোরেট নিবন্ধিত বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান সমূহ অনলাইন নিলামে দর হাঁকবেন (ক্রয় করবেন)
    (২) কর্পোরেট ইউজার বা ব্যবহারকারী হিসেবে নিবন্ধিত হতে হবে
    (৩) শুধু মাত্র কর্পোরেট ইউজার বা ব্যবহারকারী বাণিজ্যিক প্রতিষ্ঠান সমূহ পণ্য (ক্রয় করবেন) অনলাইন নিলামে দর হাঁকবেন
    (৪) কর্পোরেট ইউজার বা ব্যবহারকারী অনলাইন নিলামে পণ্য উঠাতে চাইলে (বিক্রয়করতে) সাধারণ ব্যবহারকারী বা ইউজার হিসেবে নিবন্ধিত হয়ে পণ্য নিলামে উঠাবেন

    প্রথমে নিবন্ধন করুন একদম বিনামূল্যে!
    ইউজার রেজিস্ট্রেশন ফ্রি এই সাইটের মাধ্যমে পণ্য বিক্রয় করতে চাইলে ব্যবহারকারীর নিবন্ধীকরণের আবশ্যক।
    ‘বিক্রয়-মেলা’ তে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে নিবন্ধন করুন । যতক্ষণ পর্যন্ত চূড়ান্তভাবে লেনদেন শুরু না করবেন আপনার পরিচয় অজ্ঞাত থাকবে, তাই নিরাপদ।নিবন্ধন সমাপ্ত করে আপনার মূল্যবান পন্যের বিজ্ঞাপন দিন। আপনার ব্যবসায়ীক উন্নতি ও সফলতার পথ প্রসস্ত করাই আমাদের লক্ষ্য।

*

*

Top