Maintance

প্রযুক্তিপণ্য নিয়ে বড় স্বপ্ন আইটিবাজার২৪ডটকমের

প্রকাশঃ ৫:৫৭ অপরাহ্ন, আগস্ট ২৪, ২০১৫ - সর্বশেষ সম্পাদনাঃ ৫:৫৭ অপরাহ্ন, আগস্ট ২৪, ২০১৫

ছোটবেলা থেকে প্রযুক্তিপণ্যের প্রতি তীব্র আকাঙ্খা আস্তে আস্তে কুড়ি মেলে পরিণত হয়েছে এক উদ্যোগে। অনলাইনে প্রযুক্তিপণ্যের পসরা সাজিয়েছেন কম্পিউটার বিজ্ঞান থেকে পাশ করা এক তরুন। বিস্তারিত জানাচ্ছেন ইমরান হোসেন মিলন।

২০০১ সালের দিকে বন্ধুর মামা বিদেশ থেকে ক্যামেরাওয়ালা ফোন পাঠালে সেটি একবার হাতে নিতে অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করেছেন। মোবাইল ফোন আগে দেখলেও সেটি দিয়ে যে ছবি তোলা ও ভিডিও করা যায় তা ছিল ছোট্ট রিযাদের কাছে অকল্পণীয়। তাই পরীক্ষা বাদ দিয়ে বন্ধুর সঙ্গে তার মামা বাড়িতে ছিলেন তিন দিন।

সেই ছোটবেলা থেকেই প্রযুক্তির প্রতি এমন টান ছিল শাহাবুল আলম রিয়াদের। সেই আগ্রহ থেকেই এক সময় প্রযুক্তিপণ্য ঘাটাঘাটির ঝোঁক শুরু হয়। ক্যারিয়ার নিয়ে ভাবনার বয়স না হলেও সেই সময়েই যেন আইটিভিত্তিক কিছু করার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেন।

বয়স বাড়লেও তা হারিয়ে যায়নি, বরং স্বাতন্ত্র্য ও কাজের স্বাধীনতার স্বপ্নে বিভোর হয়ে কম্পিউটার বিজ্ঞান থেকে পাশ করেও চাকরির বাজারের পথে পা বাড়াননি। গড়ে তুলেছেন আইটিবাজার২৪ডটকম নামের ই-কমর্সা ব্যবসা।

শুরুর কথা
ওয়ার্ল্ড ইউনিভার্সিটি বাংলাদেশ থেকে কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে পড়ালেখার পাশাপাশি একটি কম্পিউটার হার্ডওয়্যার প্রোভাইডার কোম্পানিতে কাজ করতেন রিয়াদ। প্রায় তিন বছর ওই কোম্পানিতে কাজ করতে গিয়ে অনেক অভিজ্ঞতা অর্জন করেনitbazaar তিনি।

তরুন এ উদ্যোক্তা একটি কোম্পানির কাজ পরিচালনার খুঁটিনাটি বুঝতে তখনই মনোযোগী ছাত্র ছিলেন। কীভাবে তারা মানুষের কাছে যায়, মানুষকে কাছে রাখে-সেসব অভিজ্ঞতা নেন তিনি।

রিয়াদ বলেন, সেই সময় অবসরে অ্যামাজন, ফ্লিপকার্ট, ওয়ালমার্ট, আলিবাবা, বেস্ট বাই-এর মতো সাইটগুলোর প্রতি নজর রাখতে শুরু করেন। এ সময় তিনি কম্পিউটার হার্ডওয়্যার প্রোভাইডার কোম্পানিতে কাজের অভিজ্ঞতা ও পড়াশোনাকে একসঙ্গে কাজে লাগানোর সিদ্ধান্ত নেন।

সেই অভিজ্ঞতা ও প্ররিশ্রমকে কাজে লাগিয়ে নিজে উদ্যোগ নিলেন একটি ই-কমার্স সাইট গড়ে তোলার। ২০১৪ সালের মাঝামাঝিতে আইটিবাজার ডটকম নামের সাইটের যাত্রা শুরু হয়।

২০১৪ মাঝামাঝিতে বন্ধু মফিজুর রহমান টিপুকে সঙ্গী করে প্রযুক্তির গ্যাজেটগুলো নিয়ে শুরু হয় আইটিবাজারের যাত্রা। মফিজুর কাজ করেন মূলত সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে। ব্যবসার অন্যদিকগুলো দেখেন রিয়াদ।0333

নিজেদের ব্যক্তিগত কম্পিউটার দিয়ে কাজ শুরুর পর প্রথমদিকে এক সুহৃদ বড় ভাইয়ের অফিসের জায়গা ভাগাভাগি করে অফিস শুরু করেন তারা। পরে নিজেদের এ উদ্যোগ পরিচিতি পেলে রামপুরার বনশ্রী আবাসিক এলাকায় নিজেদের অফিসে স্থানান্তরিত হয় আইটিবাজার।

পণ্য ও সেবা
আইটিবাজার দেশের মানুষকে প্রযুক্তির সর্বশেষ সংস্করণ পৌঁছে দিতে চায়। কম্পিউটার, ট্যাব, ল্যাপটপ, ক্যামেরা, স্মার্টফোন, স্মার্টওয়াচের মতো পণ্য পাওয়া যায় এখানে।

হোম এক্সেসরিজের মধ্যে টেলিভিশন, ফ্রিজ, ওভেন, ওয়াশিং মেশিনসহ অন্যান্য ইলেকট্রনিক্স পণ্যের সমাহার রয়েছে অনলাইন এ বাজারে।

 

বর্তমান অবস্থা
বর্তমানে আইটিবাজারে কাজ করছেন ১৬ জন। এদের দুজন মার্কেটিং, দুজন সেলস ও বাকিদের মধ্যে চারজনের একটি সাপোর্ট টিম আছে।

এ ছাড়াও গ্রাহকদের ই-কমার্সের নতুন সব সো দিতে নিজেদের ওয়েবসাইটটে নতুন নতুন ফিচার যুক্ত করছেন তারা।

আইটিবাজার গ্রাহকদের কিস্তিতে পণ্য কেনার সুযোগও দিচ্ছেন তারা। যা দেশি কোনো ই-কমার্স সাইটের মধ্যে প্রথম বলেও দাবি করেন রিয়াদ।

চ্যালেঞ্জ
ই-কমার্স ব্যবসার সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ পণ্য পৌঁছে দেওয়ার পরে টাকা পাওয়া। এ কারণে বিনিয়োগে অনেক ঝুঁকি থাকে বলে মনে করেন তরুন এ উদ্যোক্তা।

s

প্রযুক্তি পণ্য বিক্রির ক্ষেত্রে মান ও ওয়ারেন্টির বিষয়টিও গুরুত্বপূর্ণ। এ নিয়ে তারা প্রথম দিকে একটু চাপেই ছিলেন। পরে অভিজ্ঞতা বৃদ্ধি পাওয়া তা কাটিয়ে উঠতে সক্ষম হয়েছেন তারা। ২৪/৭ ঘণ্টা জুড়ে গ্রাহক সেবা নিশ্চিত করাও একটি চ্যালেঞ্জ।

প্রতিবন্ধকতা
রিয়াদ বলেন, প্রতিটি কাজের ক্ষেত্রেই প্রতিবন্ধকতা থাকে। এক্ষেত্রেও ব্যতিক্রম হয়নি। একটা পণ্যের অর্ডার গ্রহণ, মার্চেন্ট থেকে তা সংগ্রহ এবং গ্রাহকের কাছে পৌঁছে দেওয়া অব্দি ৫-৬টি ধাপ অতিক্রম করতে হয়। লোকবল কম থাকায় অনেক ছোট উদ্যোগগুলোর মতো তাদেরও কিছু বাধার সম্মুখীন হতে হয়েছে।

এ ছাড়া প্রথমদিকের প্রচুর ভুয়া অর্ডার তাদের হতাশ করেছে। এসব বিপত্তি পেরিয়ে আজকের জায়গায় আসতে হয়েছে আইটিবাজারকে।

প্রচারণা
প্রচারণার জন্য রিয়াদরা প্রথম থেকেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুককে ব্যবহার করছেন। আর বড় পরিসরে প্রচারণার জন্য যমুনা ফিউচার পার্কে জনপ্রিয় ভারতীয় শিল্পী অরিজিৎ সিংয়ের একটি লাইভ প্রোগ্রাম স্পন্সর করা হয়েছিল বলে জানান রিয়াদ। আর তাদের হয়ে মূল প্রচারণার কাজটি করে দেন আসলে পুরনো গ্রাহকরা।

ভবিষ্যৎ
আইটিবাজার দেশের সব অঞ্চলের মানুষের কাছেই প্রযুক্তিপণ্য ন্যূনতম মুনাফায় পৌঁছে দিতে চায়। একই সঙ্গে দেশে তৈরি হার্ডওয়্যার, সফটওয়্যারসহ যাবতীয় পণ্য বিদেশেও সরবরাহ করতে চায় প্রতিষ্ঠানটি।

নতুনদের জন্য পরামর্শ
পরিশ্রমের ফল সবসময় ভালো হয় উল্লেখ করে রিয়াদ বলেন, নতুন উদ্যোগ বিশেষ করে ই-কমার্স কাজের ক্ষেত্রে এর বিকল্প নেই। সেই সঙ্গে মেধাকে কাজে লাগাতে হবে।

দেশে ই-কমার্স সম্ভাবনাময় খাত হলেও বাজার না বুঝে হুটহাট ব্যবসায়িক চিন্তা নিয়ে না নামাই ভালো বলে মনে করেন এ তরুন উদ্যোক্তা।

যোগাযোগ
ফ্ল্যাট এ১-এ২
হাউজ-৪১, রোড নং-০৮
ব্লক-ই, বনশ্রী
রামপুরা, ঢাকা।
হটলাইন : ০১৭৭১১৬৬৫৫১-৩
ওয়েব সাইট : http://itbazar24.com/

*

*

Related posts/